বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

মেঘের হাঁসি দুলছে রোদ

"স্মৃতির পাতা" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান মুহাম্মাদ মেহেদী হাসান (০ পয়েন্ট)



X পর্ব --০১ খুব গরম পড়ছে৷ পানির তৃষ্ণায় গলা শুকিয়ে চৌচির। রোদে চারদিক খাঁ খাঁ করছে। আবু বকরদের বাড়িতে আজ ইফতারের দাওয়াত। যেতেই হবে। না গেলে আবু বকর রাগ করবে। আজ ১৩ই রমজান চলছে। বেলা এখন এগারোটা। আবু বকরের ফোন! __আসসালামু আলাইকুম হাসিব ভাই। __ওয়ালাইকুম আসসালাম। __ ভাই আজকে আমাদের বাড়িতে ইফতার করতেই হবে। পরে যেনো মত না ঘুরে বললাম। __আরে ভাই যাবো তো বললাম। ইনশাআল্লাহ। __ভাই, জাহিদ ভাইকে নিয়ে আমার মসজিদের এখানে আসেন, আমি, আপনি আর জাহিদ ভাই মিলে একটু বাজারে যাবো। কাজ আছে আপনিসহ যেতে হবে। __কিন্তু কেনো হঠাৎ বাজারে? __আসলেই বলবো আসেন না! __আচ্ছা আমি আসতাছি, আর জাহিদকেও কল করে বলতাছি আপনার মসজিদের ওখানে আসতে। __আচ্ছা। বলে আবু বকর কল কেটে দিলো। হাসিবুল ইসলাম। সবাই হাসিব বলে ডাকে। হাসিব আর জাহিদ স্কুলের ফ্রেন্ড। হাসিব এ বছর ইন্টার সম্পন্ন করেছে। আর জাহিদ ক্লাশ সেভেনে থাকাকালীন সময়ে পড়াশুনা বাদ দিয়ে দিয়েছে। জাহিদ এখন ঢাকায় জব করে। করোনাকালীন সময়ে এখন বাড়িতে আছে। আর আবু-বকর পাশের সমাজের মসজিদের ইমাম। বয়সে তিনজনই সমবয়সী। দ্বীনি সম্পর্কে সবাই ফ্রেন্ড। হাসিব স্কুলে পড়লেও টুপি-পান্জাবী পড়ে। আর জাহিদ তো জুব্বা পড়ে। আবু-বকর সে তো মহল্লার ইমাম। কিন্তু আবু বকরের বাড়ি পাশের এলাকায় একটু দূরে। যাই হোক; হাসিব আর জাহিদ আসলো আবু-বকরের মসজিদের সামনে। আবু-বকরের সাথে কুশল বিনিময় হলো। আবু বকরদের বাড়িতে যেহেতু ইফতারের আয়োজন। সে যেহেতু বাড়িতে যাবে৷ ভাবছে যাওয়ার সময় আবু বকরের ছোট বোনের জন্য কিছু জামা-কাপড় আর বাড়ির জন্য কিছু সদাই করে নিয়ে যাবে। তাই হাসিব আর জাহিদ কে আসতে বলছে বাজারে যাওয়ার জন্য। আবু বকর আবার কাপড় চয়েস করে কিনতে পারে না। তিনজন মিলে বাজারে রওয়ানা হলো। জাহিদ আধ্যাত্মিক জগতের মানুষ। ফেসবুক-ইউটিউব চালায় না গুনাহের আশঙ্কা থাকায়। তবে সে Robi Circle এ দ্বীনের দাওয়াতী কাজ চালায়। সেখানে কোনো ছবি-ভিডিও নাই...আছে শুধু এসএমএস। হাসিবের স্মার্ট ফোন নাই।সময় কাটে না প্রায় সময়। জাহিদ হাসিবকে Circle Id খুলে দিয়েছে যেনো ইসলামিক এসএমএস পড়ে অবসর সময় কেটে যায়। করোনাকালীন সময়ে লেখাপড়া, কাজ-কাম সব বন্ধ। Circle চালাতে পয়েন্ট লাগে, ফেসবুক চালাতে যেমনি এমবি লাগে তেমন। কিন্তু সার্কেল এর মতোই একটা ID আছে যার নাম FZ [friends zone] Id এটা চালাতে কিছু লাগে না। ফ্রি তে এসএমএস করা যায়। হাসিবের ফোনের Circle পয়েন্ট শেষ হয়ে যাওয়ায়, বাজারে যেতে যেতে জাহিদ হাসিবকে FZ এর কথা বললো এবং একটা Fz আইডি খুলে দিলো। Fz জগতে হাসিবের পরিচিত কেউ নেই শুধু জাহিদ ছাড়া। জাহিদের সাথে আর কি এসএমএস করবে! সে তো সারাদিন হাসিবের সাথেই থাকে। বাজারে গিয়ে পৌঁছেছে ওরা তিনজন। এর ভিতর হাসিবের Fz আইডি খোলা হয়ে গেছে। বাজারে গিয়ে আরেক ফ্রেন্ড তোফায়েল এর সাথে দেখা। ইফতারের মেম্বার আরেকজন এড হলো। ভালোই লাগছে। আবু-বকরের বোনের জন্য জামা-কাপড় কিনা শেষ, সদাই করাও শেষ। এবার ওরা আবু বকরের মসজিদের দিকে রওয়ানা করবে....বিকালে যাবে আবু বকরদের বাড়িতে। হঠাৎ হাসিব এর Fz তে শিশিরফোঁটা নামক একটি আইডি থেকে এসএমএস। নতুন আইডি! এর ভিতর এসএমএস! ভালোই লাগলো হাসিবের। যাক একজন মানুষ পাওয়া গেলো শেষ পর্যন্ত। শিশিরফোঁটা থেকে এসএমএস... __আসসালামু আলাইকুম ওরাহমাতুল্লাহ! আমার Fz কোড টা কত একটু বলবেন প্লিজ! __ওয়ালাইকুম আসসালাম। জি আপনার Fz কোড হলো 4564..... একজনের Fz কোড আরেকজনে বলতে পারে যখন মেসেজ করা হয়। হাসিব শিশিরফোঁটার Fz কোডটা বললো। পরে আবার হাসিব এসএমএস করে... __কিন্তু কে আপনি? আমার Fz কোড আপনি কোথায় পেলেন? __জানিনা কোথায় পেয়েছি! কিভাবে যেনো এসএমএস করে ফেলছি। আমার Fz আইডির কোড জানার জন্যই আপনাকে মেসেজ করছি। __হুম বুঝছি। কিন্তু আপনার বাড়ি কোথায়? নাম কি আপনার? __আমার বাড়ি কুমিল্লা, সুধণ্যপুর। আমার নাম হুজাইফা। আপনার? __আমি হাসিবুল ইসলাম। আমার বাড়ি চাঁদপুর, হাজিগঞ্জ। ........ চলবে..?


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৫৯ জন


এ জাতীয় গল্প

→ মেঘের হাঁসি দুলছে রোদ

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...