গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !
জিজে রাইটারদের জন্য সুঃখবর ! এবারের বই মেলায় আমরা জিজের গল্পের বই বের করতেছি ! আর সেই বইয়ে থাকবে আপনাদের লেখা দেওয়ার সুযোগ! থাকবে লেখক লিস্টে নামও ! খুব তারাতারি আমাদের লেখা নির্বাচন কার্যক্রম শুরু হবে

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

অদ্ভুতুড়ে

"রহস্য" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Taharim Tayen (০ পয়েন্ট)



আমি রবিন। আমার নানাভাই জমিদার ছিলেন। কিন্তু এখন সেই জমিদারি নেই। নেই আমার নানাভাই ও। আমার বয়স যখন ৪ মাস তখন হঠাৎ ১দিন ভোর রাতে আমার নানাভাই দেখলেন আমার নানিমা ঘরে নেই। তখন তিনি একজন কাজের লোক সাথে করে খুজতে লাগলেন আমার নানিমা কে। সারা বাড়ী খুজেও তাকে পাওয়া গেলো না। খুজতে খুজতে ভোর হয়ে গেলো। হঠাৎ বাশঁ ঝাড়ের ভিতর একটা লাশ পাওয়া গেলো। দেখে চেনা যাচ্ছিলো না। শুধু বোঝা যাচ্ছিল এটা ১জন মহিলা। নানাভাই লাশটি অনেক খুটিয়ে বললেন এটা নানিমা নয়। এরপর নানাভাই তার একমাত্র মেয়ে অথাৎ আমার মা কে খবর দিলেন। তখন মা আমাকে আর বাবাকে কোলে নিয়ে সেখানে পৌছলেন। মা লাশটি দেখে কিছুই বলেননি। বাবা কিছু বলার সাহস পাননি(যেহেতু তার শশুর বলেছেন এটা আমার নানিমা নয়, সেহেতু তার কিছু বলা সোভা পায় না।) পরে ঐ লাশটিকে দাফন করা হয়। তখন সকলে অনেকগুলি প্রশ্নের সম্মুখিন হলো। *লাশটি যদি নানি মার না হয় তবে লাশটি কার? আমার নানিমা ই বা কোথায়? কে খুন করলো? মানুষ নাকি কোনো হিংস্র জানোয়ার? হিংস্র জানোয়ার আসবেই বা কোথা থেকে? আর কেনই বা কোনো মানুষ খুন করবে? পুলিশ সবাইকে অনেক প্রশ্ন করে চলে গেলো। রাতে নানাভাই তার ঘরে গেলো আর আমার মা বাবা অন্য ঘরে।সারারাত বাবা মা ঘুমোতে পারে নি। একে এত বড় ঘটনা তার উপর আবার আমি এত ছোট। ছোট বাচ্চাদের নিয়ে আলাদা একটা ঝামেলা তো থাকেই। আমাকে সেদিন রাত্রে বাবাই সামলেছিলেন। মায়ের অবস্থা ছিলো খুব করুন। ভোর বেলা মা নানাভাইয়ের খোজ নেয়ার জন্যে তার ঘরে গেলেন। গিয়ে দরজায় টোকা দিতেই দরজা খানিকটা সরে গেলো। পুরোটা সরিয়ে মা সঙ্গে সঙ্গে বেহুশ হয়ে পড়ে রইলেন। ঘরে বাবা আমাকে নিয়ে বসে আছেন। আনুমানিক ৩০ মিনিট যাওয়ার পরও যখন মা আসছিলো না তখন বাবা মায়ের খোজে বেরোলেন। বেরিয়ে দেখেন মা, নানাভাইয়ের ঘরের সামনে পড়ে আছেন। বাবা সঙ্গে সঙ্গে আমাকে ঘরে রেখে সামাদ চাচা সামাদ চাচা( বাড়ির কাজের লোক) বলে দৌড়ালেন। বাবা তখন মাকে তুলছিলেন আর সামাদ নানা ঘরের দিকে তাকিয়েই বড়বাবু বলে জোরে চিৎকার দিলেন। বাবা তাকিয়ে দেখলেন আমার নানাভাই ও নানিমার মাথা দরজার সামনে ঝুলে আছে আর মাথা বাদে পুরো দেহটা খাটের উপর। বাবা শুধু মুখ দিয়ে ওহ মাই গড কথাটি উচ্চারণ করলেন। এরপর বাবা মাকে অজ্ঞান অবস্থায় ঘরে নিয়ে গেলেন আর সামাদ নানাকে বললেন পুলিশে খবর দিতে। পুলিশ এসে মাথা ২টা নামালো আর অন্য কয়জনকে বললো গতকালকের কবরটা খুড়ো। কবরটিতে আগের লাশটি আছে দেখে পুলিশ বললো তাহলে ইনি কে?মা অনেক কান্নাকাটি করছে।বাবা মাকে সামলাতে ব্যাস্ত।আমি তখন সামাদ নানার কোলে এক নাগারে কেঁদেই যাচ্ছি।সামাদ নানা আমার কান্না থামানোর চেষ্টা করছে কিন্তু ছোট বাচ্চাকে কি তার মা ছাড়া কান্না থামানো যায়।কিন্তু মা আমার কান্না কি থামাবে,সে সময় মা হয়তো ভুলেই গেছিলো তার স্বামী সন্তান আছে।পুলিশ লাশ দুটি ভালোভাবে দেখে মাকে উদ্দেশ্য করে বললো,"দেখে মনে হচ্ছে আপনার বাবাকে আনুমানিক ৪ থেকে ৫ ঘন্টা আগে হত্যা করা হয়েছে।আর আপনার মাকে ২৪ ঘন্টা বা তারও আগে হত্যা করা হয়েছে।কারও শরীরে কোনো হাতাহাতির চিহ্ন নেই,মনে হচ্ছে শ্বাস রোধ করে মেরে ফেলা হয়েছে।তারপর ২জনের মাথা শরীর থেকে আলাদা করা হয়েছে।মনে হচ্ছে আপনার বাবাকে আগে হত্যা করা হয় তারপর আপনার মাকে এখানে এনে ২ জনের মাথা কাটা হয়।আপনারা কি কোনো শব্দ পেয়েছিলেন?বাবা_জ্বী না ওসি সাহেব।আমরা ২ জন সারারাত জেগেই ছিলাম।ওসি_হোয়াট জেগে ছিলেন।অথচ খুনি ১টা খুন করলো,এরপর আরেকটা লাশ নিয়ে আসলো,তারপর ছুরি দিয়ে মাথা কাটলো।কোনো শব্দই পেলেননা?ছুরির শব্দও পেলেন না?বাবা_আজ্ঞে না।আর মাথাটা তো অন্য কোথাও নিয়ে গিয়েও কাটা হতে পারে।আপনি এতটা শিওর হলেন কিভাবে?ওসি_ তাহলে তো কেস উল্টো দিকে ঘুরবে। বাবা_মানে? ওসি_ভিকটিমের মাথা কেটে ফেলার পর তার শরীর থেকে রক্ত বেরিয়েছে। সেই রক্ত আমরা ভিকটিমের খাট থেকে মাথা যেখানে ঝুলানো ছিলো তার নিচ পযন্ত দেখতে পেয়েছি। তাই আমাদের মতে মাথা খাটের উপর কাটা হয়েছে। বাবা_ওহ। রাইট ইউ আর। ওসি_আর যদি বাইরে মাথা কাটা হয় তাহলে ভিকটিমের মাথা কাটার পর বডি খাটে রেখে বাইরের রক্ত ধুয়ে ফেলা হয়েছে। খুনি যদি এই বাড়ির কেউ হয় তাহলে এটা সম্ভব হবে। বাবা_হুম ঠিক। ওসি_ আপনি কি করছিলেন সারারাত? বাবা_আমার ওয়াইফ খুব ভেঙে পড়েছিলো তাই কাল আমার ছেলেটা কে আমাকেই দেখে রাখতে হয়েছে। (সামাদ নানার দিকে তাকিয়ে) ওসি_আর আপনি কি করছিলেন? সামাদ_বাবু আমি বুড়ো মানুষ। রাতে কখন ঘুমিয়ে পড়েছি মনে নেই। সকালবেলা জামাইবাবুর ডাকেই আমার ঘুম ভাঙে। আর তারপর তো (কাঁদতে লাগলেন)। কি থেকে কি হয়ে গেলো কিছুই বুঝলাম না। ওসি_লাস্ট কবে এখানে এসেছেন মনে পড়ে? বাবা_তা মাস তিনেক আগে! ওসি_ওহ। তা সামাদ সাহেব আপনার বাসা কোথায়? সামাদ_এখান থেকে বেশি দূর না বাবু।ওসি_আমরা আজ আসছি।আর হ্যা আপনারা এই বাড়িতেই থাকবেন যতদিন না এই কেসের সমাধান পাওয়া যায়।আর সামাদ বাবু আপনিও এই কদিন বাসায় যাবেন না।এখানেই থাকুন।আর লাশ দুটো আপনারা দাফন করতে পারেন।আসি তাহলে। ওসি সাহেব চলে যাবেন ঠিক এমন সময়... সামাদ_বাবু। ওসি_হুম বলুন। সামাদ_ বলছি যে ও আমার বউ। ওকে কি পৌছে দিবো? ওসি_না আমি নামিয়ে দিবো। আপনি উঠুন গাড়ীতে।... গাড়ীতে উঠে ওসি সামাদের বউকে বললো_আপনার নাম কি? রানু_আজ্ঞে রানু। ওসি_আপনি তো ওদের সব কথাই শুনলেন। তাদের কেউ কী এমন কিছু বলেছে যেটা ভুল এবং বা এমন কিছু কি আছে যা তারা বলে নি? রানু_আমি তা কি করে বলবো বলুন তো। তবে জামাইবাবু... ওসি_জামাইবাবু কি? রানু_৫ দিন আগে জামাইবাবু এখানে এহেছিলেন। ওসি_আপনি কি তাকে দেখেছেন? রানু_আমার স্বামী বলেছে। আমি দেখিনি। ওসি_কিন্তু উনি তো আমাকে বললেন তিনি ৩মাসের মধ্যে আর আসেনই নি! আপনি আর কিছু জানেন? রানু_না। বাবু এখানেই আমার ঘর। ওসি_ঠিক আছে যান আপনি। আর কোনোকিছু সন্দেহ হলে জানাবেন। রানু_আজ্ঞে। ওসি_গল্প এতক্ষণে মোর নিলো। এবার এগিয়ে গেলেই সব বোঝা যাবে। **পরের দিন সামাদ নানার থানায় ডাক পড়লো... ওসি_সামাদ সাহেব শুনলাম আপনার জামাইবাবু ৫দিন আগে এখানে এসেছিলো। সামাদ_না তো বাবু। ওসি_আপনার বউ বলেছে আপনি তাকে এই কথা বলেছেন।এখন যদি আপনি সত্যটা না বলেন তাহলে আপনার জন্য ফাসির মন্ঞ্চ তৈরি আছে।সামাদ_জামাইবাবু এসেছিলেন বাবু!ওসি_ক্যানো এসেছিলেন তিনি?ওসি_সত্যি করে বলুন! সামাদ_আমি সত্যি বলছি বাবু। জামাইবাবু আসেননি। ওসি_আপনি যদি সত্যটা লুকাতে চান তবে কিন্তু আপনার জন্যে ফাঁসির মঞ্চ তৈরি হবে। সামাদ_জ্বী বাবু। জামাইবাবু এহেছিলেন। ওসি_ক্যানো এসেছিলেন? সামাদ_বড়বাবুর লগি দেখা করতি। ওসি_সত্য কথা বলো। সামাদ_আমি সত্যি বলছি বাবু। ওসি_ঠিক আছে। তুমি আস। সামাদ_আজ্ঞে বাবু। (সামাদ নানা চলে যাওয়ার পর)ওসি_রফিক। রফিক_জ্বী স্যার। ওসি_জমিদারের মেয়েকে খবর দাও। রফিক_জ্বী স্যার। * এরপর আমার মাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে আনা হয়। ওসি_৬দিন আগে আপনার স্বামী কি আপনার সাথে ছিলো? মা_নাহ। ও ওর ব্যবসার কাজে চিটাগং গেছিলো। মা নিখোজ হওয়ার আগের দিন ফিরেছে। ওসি_ওহ। আপনার বাবা মা আর আপনার স্বামীর মধ্যে কোনপ্রকার দ্বন্দ ছিলো? মা_নাহ। আপনারা যা ভাবছেন সেটা কখনোই সম্ভব না। চাঁদের কলঙ্ক আছে কিন্তু আমার স্বামীর নেই। ওসি_আপনি এত উত্তেজিত হচ্ছেন ক্যানো? একটা কথা জেনে রাখবেন, যে অপরাধ করছে সেই শাস্তি পাবে। আপনি এবার আসতে পারেন।(মা চলে যাওয়ার পর)রফিক এবার জমিদারের জামাইকে নিয়ে আসো।* এবার বাবাকে নিয়ে যাওয়া হলো। ওসি_৬দিন আগে আপনি কোথায় ছিলেন আপনি?বাবা_চিটাগংয়ে। তার আগের দিন আমি ব্যবসার কাজে ওখানে যাই। ওসি_কাজটা কি ছিলো জানতে পারি? বাবা_এক বিদেশি কোম্পানীর সাথে ডিল ছিলো। এটা সিকরেট রাখতে চাচ্ছি। ওসি_ওকে। তো ওই সফরটা নিয়ে একটু বিস্তারিত বলবেন? বাবা_আজ থেকে ৭ দিন আগে অথাৎ বুধবার রাতে আমি চিটাগংয়ে পৌছাই। বৃহস্পতিবার কোন কাজ ছিল না তাই সারাদিন ওখানেই ঘুরে বেরিয়েছি। শুক্রবার বিজনেজ ডিলটা হয়। শনিবার রাতে আমার ফ্লাইট ছিল। রবিবার আমি বাসায় আর সোমবার থেকে তো এখানেই। ওসি_আপনি সব মিথ্যা বলছেন! বাবা_হোয়াট? ওসি_আপনি ৬ দিন আগে এখানে আসেন। তারপর আপনি চিটাগং যান।আর তারপর বাসায়। ক্যানো এসেছিলেন আপনি? বাবা_সব মিথ্যা কথা। কিসের ভিত্তিতে বলছেন আপনি? ওসি_সামাদ এবং তার স্ত্রীর ভিত্তিতে।বাবা_ওরা মিথ্যা বলছে।আমি প্রমাণ করে দিবো আমি চিটাগংয়ে ছিলাম, এখানে আসিনি।আপনি চাইলে আমরা যে হোটেলে মিটিং করেছি সেখানকার ভিডিও ফুটেজ দেখে যাচাই করতে পারেন।এটাও চেক করতে পারেন আমি কবে ওখানে গিয়েছি এবং এসেছি।ওসি সাহেব তখনই সব চেক করে দেখলেন বাবার কথা সত্য।তখন ওসি সামাদকে ধরার জন্যে যায়।কিন্তু গিয়ে দেখে সামাদ নিজেকে শেষ করে দিয়েছে এবং ১টা চিঠিতে লিখে রেখেছে তার বউ শুধু ওই মিথ্যা কথাটাই বলেছে আর সব দোষ তার নিজের।তার কাছে আত্মহত্যাই ছিল একমাত্র পথ। ওসি সাহেব ফ্যান এ ঝুলে থাকা লাশটা নামাতে বললেন। লাশ নামাবার পর তিনি দেখলেন লাশের মাথার চুলে খানিকটা রক্ত জমাট বেঁধে আছে। ঠিক ভাবে দেখার জন্য কাছে যেতেই দেখলেন মাথার সে যায়গাটা ফাটা।.............. ….......………… এটা কি আত্মহত্যা নাকি ………………………… To be continued????????


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৭৭২ জন


এ জাতীয় গল্প

→ অদ্ভুতুড়ে ডাচম্যান
→ অদ্ভুতুড়ে
→ অদ্ভুতুড়ে
→ জমিদারবাড়ির অদ্ভুতুড়ে পুকুর
→ অদ্ভুতুড়ে গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...