গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !
জিজে রাইটারদের জন্য সুঃখবর ! এবারের বই মেলায় আমরা জিজের গল্পের বই বের করতেছি ! আর সেই বইয়ে থাকবে আপনাদের লেখা দেওয়ার সুযোগ! থাকবে লেখক লিস্টে নামও ! খুব তারাতারি আমাদের লেখা নির্বাচন কার্যক্রম শুরু হবে

যাদের গল্পের ঝুরিতে লগিন করতে সমস্যা হচ্ছে তারা মেগাবাইট দিয়ে তারপর লগিন করুন.. ফ্রিবেসিক থেকে এই সমস্যা করছে.. ফ্রিবেসিক এ্যাপ দিয়ে এবং মেগাবাইট দিয়ে একবার লগিন করলে পরবর্তিতে মেগাবাইট ছাড়াও ব্যাবহার করতে পারবেন.. তাই প্রথমে মেগাবাইট দিয়ে আগে লগিন করে নিন..

যাদের গল্পের ঝুরিতে লগিন করতে সমস্যা হচ্ছে তারা মেগাবাইট দিয়ে তারপর লগিন করুন.. ফ্রিবেসিক থেকে এই সমস্যা করছে.. ফ্রিবেসিক এ্যাপ দিয়ে এবং মেগাবাইট দিয়ে একবার লগিন করলে পরবর্তিতে মেগাবাইট ছাড়াও ব্যাবহার করতে পারবেন.. তাই প্রথমে মেগাবাইট দিয়ে আগে লগিন করে নিন..

power x 3

"রহস্য" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান মোঃএবাদুর রহমান(guest) (৪৬৮ পয়েন্ট)



পাওয়ার x 3 পর্ব-১ লেখক:#লেখক_এবাদুর_রহমান রাস্তা দিয়ে যাচ্ছি বাজারে ইচ্ছে করেই রিকসা ডাকিনি কারন ল্যামপোষ্টের হালকা হলুদ আলোতে আমার হাটতে ভালোই লাগে। আপনারা কি ভাবছেন এত রাতে বাজারে কেন কারন আমার একটা অভ্যাস প্রতিদিন বাজারে গিয়ে আমার এক কাপ চা খাওয়াই লাগে নাহলে আমার ঘুম আসবেনা যদিও আমি বাড়িতে চা খাই তবুও আমার বাজারে এক কাপ চা খাওয়াই লাগে আপনারা হয়তো আমার কথা শুনে হাসছেন। যাই হোক হাটতেছি হঠাৎ সামনে তাকিয়ে দেখি যে কি যেন আগুনের মত আকাশ থেকে পরতেছে হঠাৎই এটা আমার কয়েকমিটার সামনে এসে পরল আমি ভেবেছিলাম এটি খুব জোরে শব্দ হবে কিন্তু আমার ধারনাটা সম্পুর্ন ভুল প্রমানিত হলো এটা নিচে মাটিতে পরেছে ঠিকই কিন্তু কোনো শব্দ করেনি। ভাবলাম কাছে গিয়ে দেখি কিন্তু আবার ভাবলাম যদি কোনো বিপদ হয়ে যায় কিন্তু মানুষের মনের সাথে লড়াই করলে মানুষই হেরে যায় আমিও হেরে গেলাম কাছে গিয়ে দেলাম যে একটি ঘরি পরে আছে ঘরিটি আমাদের দেশের টার্চ স্কিন ঘরির মতই ঘরিটি হাতে নিতে হাত বাড়াতেই ঘরিটি আপনা আপনি আমার হাতে চলে এল।ঘরিটির দিকে হাত বাড়াতেই ঘরিটি আপনা আপনি আমার হাতে চলে এলঅমনি আমি ভয় পেয়ে গেলাম ঘরিকে টেনে টেনে আমার হাত থেকে ছোটানোর চেষ্টা করলাম কিন্তু পারলাম না ভাবলাম দেখি ঘরিটাতে কি আছে দেখলাম যে দুইটি বোতাম আছে কোন বোতামে চাপ দিব ভারিকনফিউশনে পরে।গেলাম একবার ভাবি লাল বোতাম চাপ দিব আবার একবার বলি নিল বোতাম চাপ দিব হঠাৎ কি মনে করে যেন নিল বোতামটাতে চাপ দিলাম দেখলাম ঘরিটা টাইম দেখাচ্ছে কিন্তু টাইমটা দেখে আমি অবাক হলাম ঘরিতে টাইম দেখাচ্ছে ১০ সেকেন্ড।কোনো ঘন্টার কাটা নেই ভাবলাম যাই চাটা খেয়ে আসি ঘরির দিকে তাকালাম দেখলাম যে এখনো সেই ১০ সেকেন্ডই আছে যাইহোক আর কোনো কিছু না ভেবে বাজারের দিকে হাটা দিলাম চা খেয়ে বাড়িতে এসে ঘুমাতে যাব ঠিক তখনই মনে পরল ঘরিটার কথা। চলবে...


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৩২২ জন


এ জাতীয় গল্প

→ হৃদয়ের দভন (পর্ব৩)
→ হৃদয়ের দভন(পর্ব৩)
→ শূন্য থেকে শুরু-৩
→ অ্যামাজনে কয়েকদিন [পর্ব ২৩]
→ অনুভবে শুধু তুমি♥ (পর্ব-১৩)
→ সাগরকন্যা কুয়াকাটা ভ্রমণ(পর্ব৩)
→ পদ্মগোখরো (part 3)
→ ক্রুসেড সিরিজ (৩) ষষ্ঠ অংশ
→ ক্রুসেড সিরিজ (৩) পঞ্চম অংশ
→ Reverse World (Part 3)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...