বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

হিন্দু পুরাণের দধীচির আত্মত্যাগ-৩

"পৌরাণিক গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান mim (০ পয়েন্ট)



X এবার দোবতারা দধীচিকে বলল,বৃত্রবধের উপায় একমাত্র আপনারই হাতে। এবার দেবরাজ ইন্দ্রই শুধু বললেন। কিন্তু তিনি কথাটা বলতে একটু ইতস্তত করছিলেন। কিভাবে এমন সিদ্ধপুরুষককে তার অস্থি দান করতে বলা যায়? মুনি দধীচি বিনীতভাবে জিজ্ঞাসা করলেন, দেবরাজ থামলেন কেনো? ভগবানের নির্দেশ কি বলুন? দেবরাজ ইন্দ্র সসংকোচে বললেন, হে মুনি বর নারায়ন বলেছেন আপনার অস্থিনির্মিত অস্ত্র ছাড়া অন্য,কোনো অস্ত্রেই বৃত্রাসুর বধ হবে না। অতএব আমাদের কাতর প্রার্থনা আপনি দেবতাদের মঙ্গলের জন্য দেহত্যাগ করে আপনার অস্থি আমাদের দান করুন। পরহিতব্রতে রত মুনি দধীচি দেবতাদের বললেন, আমার জীবনের বিনিময়েও যদি আমি দেবতাদের কোনো উপকার করতে পারি তবে নিজেকে ধন্য মনে করব। এই নশ্বর দেহ তো একদিন নষ্ট হবেই, সুতরাং মহৎকার্যে এর বিনাশ হওয়াই ভালো। আপনাদের অসীম দুঃখ দূর করার জন্য আমার এই নশ্বর দেহ ত্যাগ করার সুযোগ পেয়ে নিজেকে ধন্য মনে করছি। অতএব হে দেবগণ, আপনারা বিপদ থেকে মুক্তিলাভ করুন। আপনাদের কল্যানের জন্য আমি দেহত্যাগ করছি। একথা বলে মুনি দধীচি দেবতাদের সম্মুখে যোগবলে দেহত্যাগ করলেন। দেবতারা দধীচির আত্মত্যাগে ধন্য ধন্য করতে লাগলেন। পরে দধীচির দেহের অস্থি দিয়ে বজ্র নামক অস্ত্র তৈরি করা হল। এই অস্ত্র দারা যখন বৃত্রাসুরকে আঘাত করা হল সাথে সাথে বৃত্রাসুর মারা গেল।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১১৮৮ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...