বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

ব্যাঙের রাজাগিরি

"শিক্ষণীয় গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান মোঃ লুৎফর রহমান (৩০ পয়েন্ট)



X এক ছিল এক ব্যাঙ। সে বাস করতো একটি পুরাতন কূপের তলদেশে। সেখানে তার সাথে থাকতো আরও ছোট ছোট অসংখ্য ব্যাঙ। হঠাৎ তার মাথায় এক বুদ্ধি আসল, এখানে যতো ব্যাঙ আছে তাদের একজন রাজা থাকা দরকার। যে কিনা সকল ব্যাঙকে শাসন করবে। সবাই তার কথা মেনে চলবে। তিনিও সবার সুবিধা অসুবিধা দেখবেন। কিন্তু তার মাথায় ছিল সকল ব্যাঙকে শাসন ও শোষন করার এক খারাপ চিন্তা যা অন্যান্ন ব্যাঙ জানতো না। তাই তারা একদিন রাজা বানানোর সভা শুরো করল। তবে কাকে বানানো যায় এই রাজ্যের রাজা কেউ কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারল না। অবশেষে তাকেই রাজা বাননো হল। কারন তিনি সর্বপ্রথম রাজা বানানোর প্রস্তাবকারী তাই তাকেই রাজা হতে হবে। সবাই ব্যাঙ রাজার কথা মেনে চলতে লাগল। বেশ আরাম আয়েশেই চলতে লাগল তার রাজ্য। বেশ কিছু দিন পর রাজা ঘোষণা দিল সে একজন রাজা, তার কি খাবার দাবার ধরে খাওয়া শোভা পায়। তিনি ঘোষণা করলেন সবাই তার জন্য খাবার যোগার করে আনবে আর রাজা বসে বসে খাবে। রাজ্যে সকল ব্যাঙ তাই করতে লাগল। আর রাজা বেশ আরাম আয়েশের সাথেই রাজ্য চালাতে লাগল। একদিন প্রচন্ড বৃষ্টিতে কূপ প্রায় ভরে উঠার উপক্রম হল। রাজা সিদ্ধান্ত নিল কূপের উপরে কি আছে তা তিনি দেখবেন। অন্য ব্যাঙগুলা বলতে লাগল আপনি আমাদের রাজা, আপনি কেন যাবেন আমরা আছি আমরা দেখে আসবো উপরে কি আছে। কিন্তু দুষ্ট ব্যাঙ রাজার মনে ছিল সেখান থেকে মুক্ত হওয়া। যে কথা সেই কাজ, অন্য ব্যাঙের সহায়তায় তিনি উপরে উঠল এবং দেখল সামনে বিশাল এক জলরাশি। ব্যাঙ রাজা তো খুব খুশি অন্য ব্যাঙদের বলল তোর ঐখানেই থাক আমি তোদের রাজ্যের থেকেও বড় রাজ্য পেয়েছি এখন থেকে আমি এখানেই রাজাগিরি দেখাবো। যে কথা সেই কাজ তিনি চললেন সাগরের দিকে। ব্যাঙ রাজা এতো বিশাল রাজ্য পেয়ে মনের আনন্দে লাফাতে লাগল। এমন সময় ছোট ছোট মাছ এসে তাকে বলল ভাই এতো খুশি কেন? ব্যাঙ বলল আমি এখানকার রাজা তাই মনের আনন্দে লাফাইতেছি। মাছেরা বলল এতো লাফালাফি করবেন না এখানে রাজাগিরি চলে না। এখানে সবাই নিজেদের মতো রাজা এখানে প্রজা বলতে কিছুই নেই একটু পরেই টের পাবেন। একথা শুনে ব্যাঙ তো রেগেমেগে আগুন। ব্যাঙ রাগ করে মাছদের দিলো এক ধমক, আর ধমক খেয়ে মাছেরা তো চুপ। আর ব্যাঙ ঘোষনা দিলো আজ থেকে আমি তোদের রাজা। মাছেরা তো ভয়ে ভয়ে জ্বি হুজুর জ্বি হুজুর বলতে লাগল। ব্যাঙ তো জ্বি হুজুর শুনে বেশ খুশি। খুশিতে আবার লাফাতে আরাম্ভ করল আর তার লাফালাফির শব্দ পেয়ে এ বিশাল বড় মাছ এসে খপ করে গিলে ফেলল। আর ব্যাঙের রাজাগিরি শেষ হয়ে গেল। শিক্ষাঃ প্রত্যেককে তার নিজের অবস্থানে থেকেই সন্তুষ্ট থাকতে হবে। বেশি লোভ আর ক্ষমতার পরিনতি সবসময় খারাপই বয়ে আনে।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৫৯ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...