বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

হৃদয়ের নীলপরী পর্ব ১৫

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান ESHRAT JAHAN (৫৫ পয়েন্ট)



X পরদিন ইসরাত বাসায় আসলো।বিকেলে ইসরাত পার্কে গেল।দেখলো রনি কার সাথে যেন গল্প করছে।ইসরাত রনির হাত ধরলো।ওই মেয়েটা বললো,"কে ভাবি নাকি?" রনি বললো,"হ্যা পিঙ্কি,তোর ভাবি।" পিঙ্কি বললো,"কয় নাম্বার ভাবি?" ইসরাত বললো,"কয় নাম্বার মানে?" রনি বললো,"কি বলছিস কয় নাম্বার হবে!এটাই তো ফাস্ট।" ইসরাত বললো,"আপনি ভালো করে বলুন তো কয় নাম্বার।" পিঙ্কি বললো,"কি আর বলবো আপু এ তো ১২ ভাতার।আমার সাথে ২ বছর আগে রিলেশন ছিল ব্রেকআপ করেছে।অন্য একটা মেয়ে দেখলেই ব্রেকআপ করে দেয়।জানি না কয়টা যে করলো।আপু তোমার বিশ্বাস না হলে আমি প্রমান করে দিবো।আমি বড় আপু হয়ে বললাম ভালো মনে করলে ভালো।" রনি বললো,"পিঙ্কি তুই কি চাস! তুই এইভাবে মিথ্যা বললি কেন?" পিঙ্কি বললো,"আমি মিথ্যা বলিনি।" ইসরাত রনির হাত ছেড়ে দিয়ে বললো,"ওহ তোমার মাঝে যে এই আছে আমি তো জানতাম না।তোমার বোন আর তুমি আমার সাথে ঠকবাজি করেছ।আর কখনো আমার সাথে যোগাযোগ করবে না।এই যে এখনি সব দিক দিয়ে ব্লক মেরে দিচ্ছি।আর কখনো আসবে না আমার সামনে।" ইসরাত চলে গেল।রনি পিঙ্কিকে বললো,"কি করলি এটা! তোর সাথে আমার কোন কালে রিলেশন ছিল!কেন এমন করলি!" "তুই আমাকে এপসেপ্ট করিসনি মনে আছে?তোকে আমি চেয়েছি।তুই আমার হবি না তোকে আর কারো হাতে দিবো না।" পিঙ্কি চলে গেল।রনি চুপচাপ হয়ে ঘাসের ওপর বসে পড়লো।অনেক ভালবাসে সে ইসরাতকে।নীরব আর শান্ত সবই দেখছিল দূর থেকে।কাছে এসে রনির পাশে বসে রনিকে জড়িয়ে ধরলো।রনি চুপচাপ বসে আছে।নীরব বললো,"কেন হলো এমন?" শান্ত বললো,"ওই পিঙ্কিকে আমরা ছাড়বো না।রনি তুই কিছু ভাবিস না ইসরাত তোরই হবে।" রনি কিছুই বলছে না।ইসরাত বাসায় খুব রাগান্বিত হয়ে রিফাহকে গালি দিতে লাগলো চিল্লাচিল্লি করে।রিফাহ বললো,"কি বলছিস ভাইয়া তো এমন না।" ওহ তোর ভাই ১২ ভাতার আমাকে বলিসনি কেন?আর কখনো তোর ভাইয়ের নাম আমার সামনে নিলে আমি এ বাসা ছেড়ে দিবো।আর তোর সাথেও সম্পর্ক রাখবো না।" রনিকে নীরব আর শান্ত বাসায় আনলো।রনি কিছুই বলছে না।নড়াচড়াও করছে না।চুপচাপ বসে আছে নিজের রুমে।নীরব আর শান্ত রনির বাবা মাকে সব কিছু খুলে বললো।বিকেল পেরিয়ে রাত হয়ে গেল।রনি ওই একই অবস্থা।রনির মা প্লেটে খাবার এনে মুখে দিলো।রনি মুখ খুলল না।মা বললেন,"বাবা খেয়ে নাও।না খেলে কি হবে!হা করো বাবা।" রনি তারপরেও চুপচাপ এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে অন্যদিকে।রনির মা প্লেট নিয়ে চলে গেল।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৮৬ জন


এ জাতীয় গল্প

→ হৃদয়ের নীলপরী (শেষ পর্ব)
→ হৃদয়ের নীলপরী ১৯
→ হৃদয়ের নীলপরী ১৮
→ হৃদয়ের নীলপরী ১৭
→ হৃদয়ের নীলপরী পর্ব ১৬
→ হৃদয়ের নীলপরী পর্ব ১৪
→ হৃদয়ের নীলপরী (পর্ব১৩)
→ হৃদয়ের নীলপরী পর্ব ১৫
→ হৃদয়ের নীলপরী (পর্ব১২)
→ হৃদয়ের নীলপরী (পর্ব ১১)
→ হৃদয়ের নীলপরী (পর্ব১০)
→ হৃদয়ের নীলপরী (পর্ব ৯)
→ হৃদয়ের নীলপরী (পর্ব ৮)
→ হৃদয়ের নীলপরী (পর্ব৭)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...