বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

সাইন্টিস্ট বউ

"ফ্যান্টাসি" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান PRINCE FAHAD (০ পয়েন্ট)

X লেখকঃ কাকার ভাতিজির জামাই,,, শখ করে বিয়ে করেছিলাম ইন্টারের সাইন্সে পড়ুয়া এক মেয়েকে। বিয়ের প্রথম রাত থেকেই তার সাইন্টিস্ট কথা শুনতে শুনতে আধমরা হয়ে কোনো মতে বেঁচে আছি। বাসর ঘরে ডুকতে না ডুকতে বউ বলে উঠলো - বিপরীত ধর্মী আধান একে অপরকে আকর্ষন করে। -- মানে? -- মানে হলো আপনি আমার আর আমি আপনার প্রতি আকর্ষিত হয়েছি।যার ফলে আমাদের বিয়ে হয়েছে আর এখন বাসর হবে। কিছুক্ষণ চিন্তাভাবনা করে কোনো কিছু বের করতে পারলাম না কিছুক্ষণ পর বউ আবার বললো - এই যে শুনেন,আমাদের মেয়ে সন্তান হলে কিন্তু আপনি আমাকে বকা দিতে পারবেন না! -- আমি তোমাকে বকা দিবো কেন? -- এই যে মেয়ে সন্তান অনেকের পছন্দ না তাই,,, আর মেয়ে হলে কিন্তু দোষটা আপনারই হবে। অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করলাম-- আমার দোষ হবে কেন? -- কারন মেয়েদের হোমোগ্যামেটিক হলো XX আর ছেলেদের হোমোগ্যামেটিক হলো XY,,মেয়েরা শুধুমাত্র X ডিম্বাণু উৎপন্ন করে কিন্তু ছেলেরা X ও Y দুই রকমের শুক্রাণু উৎপন্ন করে,,যার ফলে X বাহি ডিম্বাণুর সাথে X বাহি শুক্রাণুর মিলন হলে মেয়ে সন্তান হয় আর X বাহি ডিম্বাণুর সাথে Y বাহি শুক্রাণুর মিলন হলে ছেলে হয়। এখন X ও Y আপনার কাছে,, অতএব মেয়ে হলে আমার দোষ দিলে কিন্তু খবর আছে। কিছু না বুঝেও ভয়ে ভয়ে বললাম -- আচ্ছা আচ্ছা আমারই দোষ। বউ হেঁসে বললো -- এইতো আমার লক্ষি সোনা,,আসো কাছে আসো,তোমাকে ইয়ে দেই কাছে যেতে না যেতেই বউ আমাকে ধাক্কা দিয়ে খাট থেকে নিচে ফেলে দিলো,, রাগের ঠেলায় কিছু বলতে যাবো এমন সময় বউ বললো -- আরে আরে রাগেন কেন? অভিকর্ষজ ত্বরনের প্রভাবে আপনি নিচে পরে গেলেন,এতে আমার দোষ কোথায়? -- মানে? -- মানে হলো পৃথিবী তার কেন্দ্রের দিকে সকল বস্তুকে আকর্ষন করে,,এই যে আমি আপনাকে ধাক্কা দিলাম আপনি তো উপরেও যেতে পারতেন কিন্তু তা না যেয়ে আপনি নিচে পরে গেলেন, সুতরাং পৃথিবী আপনাকে তার কেন্দ্রের দিকে আকর্ষন করছে তাই আপনি নিচে পরে গেছেন,,আর ভূমিতে অভিকর্ষজ ত্বরনের মান 9.8ms~2 বুঝছেন? শুধু মাথা নাড়িয়ে হ্যাঁ সূচক উত্তর দিয়ে মনে মনে বললাম -- ঘুড়ার ডিম বুঝছি। তখনি ভাবছিলাম যে এই মেয়েকে বিয়ে করে আমার জীবন তেজপাতা ভোর সকালে ঘুম থেকে জাগিয়ে বলে বিজ্ঞানের মতে রাতে ৬ ঘন্টা ঘুমানো বেটার,,এত ঘুমান কেন,,যান তাড়াতাড়ি ফ্রেশ হয়ে নেন।আর শুনুন আপনি যে টুথপেস্ট দিয়ে দাত ব্রাশ করবেন সেটি কিন্তু রসায়নের অন্তর্ভুক্ত। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে রসায়ন অনেক কাজে লাগে বুঝছেন? মাথা নাড়িয়ে হা সূচক জবাব!


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৩৫৫ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

  • গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ... Login Now