বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

কিউট পাগলি ৫

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান PRINCE FAHAD (০ পয়েন্ট)



X কাল রাতেও রিহা আসলো নাহ,, আবার ফজর পরেই ছাদে গেলাম, কই ৭টা বাজলো তাও তো টবে পানি দিতেও আসলো নাহ, আর তো কিছু ভালো লাগছে নাহ, কেন যে কাল এমন করলাম, না করাটাই ভালো ছিলো,. কলেজ যাওয়ার নাম করে বাহিরে দাড়িয়ে আছি রিহা স্কুল তো জাবে তখন না হয় সরি বলে দিবো. অনেকক্ষণ দাড়িয়ে ছিলাম কই রিহা তো আসলো নাহ,, মন খারাপ করেই কলেজে গেলাম. বাসায় এসে,দেখলাম আমার রুমটা অনেক গোছানো, ভালাো না লাগলেও কেন জানি রুমে এসে ভালোই লাগলো,এত সুন্দর করে রুম সাজালো কে?? আম্মু ও আম্মু,, মাঃ হুমমম বল.. -রুম কে গোছালো? মাঃ আমি জানি নাহ, - কেন? মাঃ জানি নাহ মানে জানি নাহ,আমি ছাদে ছিলাম, - ওওও,, মাঃ হুমমমমম..আয় খাবি.. - ওকে... খাওয়া শেষ করে এসে ঘুমিয়ে পড়লাম.. ফোনটা আগের মতো কাছেই রেখে ঘুমিয়ে গেলাম.. ঘুম থেকে উঠে বিকেলে, মা ও মা আমার ফোন কোথায়? মাঃ আমার রুমে... - তোমার রুমে কেন..? মাঃ এমনি নিয়ে এসেছিলাম.. - ওওওওও... ফোনটা নিয়ে ছাদে গেলাম দেখি রিহা আসে কি নাহ .. আসলো নাহ তাই ছাদ থেকে নিচে আসলাম.. মা ও মা,(রান্নার সময় জড়িয়ে ধরে বললাম) মাঃ কি রে বাবা, কি মতলব কখনো তো এভাবে জড়িয়ে ধরিস নি,আজকে ধরলি.. কি টাকা লাগবে? - নাহ মা.... মাঃ তাহলে.. - অন্য কিছু লাগবে.. মাঃ বলেই ফেল.. - মা বাড়িওয়ালা আংকেলের বাসায় গিয়েছিলে কখনো? মাঃ হুমমমমম দুদিন গেছিলাম... - মা চলো আজও জাই ঘুরে আসি.আর বাসাটাও দেখে আসি আমি তো একদিন ও গেলাম নাহ..চলো নাহ মা জাই.. মাঃ ও আচ্ছা তাই তো বলি আজধরে জড়িয়ে এতো মিষ্টি করে কেন ডাকা হচ্ছে... -হুমমম মা চলো নাহ জাই... মাঃ এই তরকারি রাধা শেষ হলেই জাবো..এখন পারবো নাহ..কিন্তু তোকে লাজ করতে হবে একটু.. - বলো বলো কি কাজ.. মাঃ আগে জাও আৃার রুমটা ভালো করে পরিষ্কার করে দাও.. - পরিষ্কার করাই তো দেখলাম.আর কি পরিষ্কার করবো.. মাঃ তাহলে যে পরিষ্কার করলো তাকে তো পুরষ্কার দিতে হবে তাই নাহ.. - হুমম বলো কি পুরষ্কার. মাঃ যখম্ন চাইবো তখনই দিতে হবে, দুই নাম্বারি চলবে নাহ কিন্তু...প্রমিস করো.. - ওকে মা প্রমিস প্রমিস... মাঃ এখন জাও ছাদ থেকে ঘুরে আসো রান্না শেষ করি.তারপর জাবো.. - ওকে উম্মাহহহহহহহহহ, আমার সুইট আম্মু টাহ..... বলেই দোড়ে ছাদে গেলাম,,উফফ কখন যে রান্নাটা শেষ হবে, যাক ধৈর্য হারালে চলবে নাহ.. মা রাজি হয়েছে অনেক খুশি আমি আলহামদুলিল্লাহ... ধৈর্য যেন ধরা দিচ্চ্ছেই নাহ..তারপর মনে হলো আল্লাহ তো ধৈর্যশীল মানুষকে পছন্দ করেন, তাই আল্লাহকে ভয় করেই ধের্য নিয়ে আসলাম মনে, যতই ব্যাকুলতা আর সমস্যা হয় নাহ কেন, আল্লাহর ওপর ভরসা করলেই ব্যাকুলতা আকুলতা দুর হবে ইনশাআল্লাহ, আর ভরসা টা রাখতে হবে একমাত্র মহান আল্লাহর ওপর.. মা ডাকলো মায়ের ডাকেই নিচে গেলাম.. মাঃ হুমমমম মহারাজের বেটা এখন চলেন,, - হুমমম মা চলো.. রিহা দের বাসার সামনে এসে মা দরজায় নক করলো রিহার আম্মু দরজা খুলে দিতে আমি সালাম দিলাম, আসসালামু আলাইকুম আন্টি.... আন্টিঃ ওয়ালাইকুম আসসালাম,,আসো বাবা ভিতরে আসো, আপু আপনিও আসেন,, মাঃ ঠিক আছে বোন,, আন্টিঃ বসো আমি চা করে নিয়ে আসি.. আন্টি আপনি চা আনলে আনেন না আনলে নাই, আর আমি চা খেতেও আসি নাই আমি এসেছি রিহাকে দেখতে আর রিহার সাথে কথা বলতে..( মনে মনেই বললাম) আন্টিঃ বাবা কিছু বললে?? - নাহ আন্টি, বাসাটা অনেক সুন্দর সাজানো, সবসময় কি এমনই থাকে..? আন্টিঃ হুমমমম বাবা আমার রিহা মা তো সবসময় রুম গোছানোই করে থাকে,, - ওওওওও আচ্ছা.... আন্টি চলে গেলেন, আমি তো শুধু রিহাকেই খুজছি, মাঃ রিহাকে এখানে খুজে লাভ নেই,, ওই রুমটাতে যা... আমি দোড় দিয়ে গেলাম,রুমের সামনে পুরাই হিরো দের স্টাইলে চলবে.....


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ২৭৩ জন


এ জাতীয় গল্প

→ কিউট পাগলি ৪
→ কিউট পাগলি ৩
→ কিউট পাগলি ২

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...