বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

রোমান্টিক অত্যাচার ৪+৫

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান PRINCE FAHAD (০ পয়েন্ট)



X Part : 4 - ইমরান মিম যা বলছে তা সত্যি (মা) - হুম সত্যি (ইমরান) মা ঠাস করে ইমরানের গালে একটা থাপ্পড় মেরে দিলো - বেয়াদব, ও তোর স্ত্রী, তোর উপর ওর অধিকার আছে আর কোনোদিন যদি শুনছি,বা দেখছি ওরে থাপ্পড় মেরেছিস, তাহলে তোর খবর আছে(মা) ইমরান গালে হাত দিয়ে উত্তর দেয়, - হুম (ইমরান) - যা নিজের রুমে যা (মা) ইমরান হন হন করে হেটে নিজের রুমে চলে গেলো মিম মায়ের কোল থেকে উঠে মা এর গালে একটা চুমু দিলো - উম্মাহ (মিম) - Thank you, ammu i love u(মিম) - হইছে আর পাম দিতে হবে না(মা) - কি আমি তোমাকে পাম দি,ওকে আর কোনো দিন তোমাকে পাপ্পি দিবো না,হু(মিম) মিম এই কথা বলে এক দোড়ে রুম থেকে বের হয়ে যায়। - আরে আস্তে আস্তে, পাগলী মেয়ে একটা, ভাগ্য করে আমার ইমরানের জন্য এমন একটা বউ পেয়েছি যেমন সুন্দরী, গুনবতী,তেমনি দুষ্টুমি তে ওস্তাদ, হা হা হা (মা) - ওর কতো বড় সাহস, আম্মাকে নালিশ দেয়,আমারে আম্মা থাপ্পড় মারছে। আজকে আসুক রুমে আরো কয়েকটা থাপ্পড় মারা বাকী আছে,বেয়াদব মেয়ে এক্টা। ইমরান বিছানায় বসে নিজে নিজে বকবক করছে আর রাগে ফুলছে - আল্লাহ জানে এখন কি করে,আল্লাহ এই ডেবিল রাক্ষস টার হাত থেকে আমাকে রক্ষা করো(মিম) মিম রুমে ঢুকতেই ইমরানের নজরে পড়ে গেলো, ইমরান বিছানা থেকে উঠে মিমের দিকে এগুতে লাগলো - আল্লাহ রে,এই ডেবিল টা দেখছি আমার দিকে আসছে( মনে) কি হলো আমার দিকে এগুচ্ছেন কেনো(মিম) - আমার ইচ্ছা,তো কি হয়েছে(ইমরান) - কি হয়েছে মানে(মিম) ইমরান মিমের কাছে এসে খপ করে মিমের কোমড় হাত দিয়ে মিমকে নিজের কাছে আনলো মিম তো ভ্যাবাচেকা খেয়ে গেছে - তখন আম্মাকে ওই কথা গুলা বললা কেনো(ইমরান) - কি বলছি(মিম) - চুমুর কথা (ইমরান) - যা সত্যি তাই বলছি(মিম) - লজ্জা শরম কি কিছু নাই নাকি তোমার,হ্যা(ইমরান) - না নাই (মিম) ইমরান মিমের ঠোটের কাছে মুখ এনে আবার কিছু মনে করে মিমকে ছেড়ে দিলো।তারপর বুক ফুলিয়ে বলল, - মনে করছি অত্যাচার করবো but i am not interest(ইমরান) ইমরান রুম থেকে বের হয়ে গেলো মিম নিজেকে সামলে নিলো। - ডেভিল কি বলে গেলো,no iinterest,ঢং। not interest কে yes interest করতে আজ থেকে আমার মিশন স্টার্ট (মিম হেসে) ইমরান চৌধুরী তুমি যদি ইমরান হও তাহলে আমিও তোমার মিসেস আজ থেকে তোমাকে মিসেস ইমরানের অত্যাচার সহ্য করতে হবে (মিম ) রাতের বেলায় মিম সোফায় না শুয়ে বিছানায় শুয়ে আছে।ইমরান রুমে এসে দেখে এই অবস্থা। - ওই মেয়ে তুমি বিছানায় শুয়েছো কেনো(ইমরান) - প্রথমত আমার নাম ওই মেয়ে না,আমার একটা নাম আছে,মিম। ২য় তো আমি আপনার স্ত্রী তাই আজ থেকে আমিও বিছানায় ঘুমাবো(মিম) - তোমাকে বলছি না আমার উপর অধিকার দেখাতে আসবে না[ইমরান) - আপনার উপর কোথায় অধিকার দেখালাম,আমি তো বিছানার উপর অধিকার দেখালাম (মিম) - তোমাকে কতো বার বলবো আমি তোমাকে স্ত্রী হিসেবে মানি না(ইমরান) - আপনি না মানলে কি হয়েছে,আমি তো আপনাকে স্বামী হিসেবে মানি(মিম) - এতো কথা বুঝি না তুমি বিছানা থেকে উঠবে কিনা(ইমরান) -না উঠবো না,কি করবেন হু?(মিম) to continue. ( এই গল্পে মিমের রোমান্টিক অত্যাচার দেখবো) Part: 05 - এতো কথা বুঝি না তুমি বিছানা থেকে উঠবে কিনা (ইমরান) - না(মিম) - দেখো আবার জিজ্ঞাস করছি উঠবে কিনা, তানাহলে(ইমরান) - তা নাহলে কি(মিম) - থাপ্পড় মারবো(ইমরান) - এএ আসছে থাপ্পড় মারবে, থাপ্পড় তো দূরের কথা বিছানা থেকে আমাকে উঠালেই সোজা আম্মার কাছে নালিশ দিবো (মিম) - আম্মাকে নালিশ করলে কি হবে আমি কি ভয় পায় নাকি(ইমরান) - ভয় না পান,সম্মান করেন ভালোবাসেন তো, আর থাপ্পড় তো আছেই(মিম) - তুমি উঠবে না তো ওকে দেখাচ্ছি(ইমরান) - কে দেখাবেন আমার লজ্জা লাগে[মিম) ইমরান মিমকে বিছানা থেকে টেনে তুলতে গেলেই মিম চিৎকার করে উঠে - মা, মা মাগোও (মিম) ইমরান মিমের মুখ চেপে ধরে - আরে আরে তুমি দেখি সত্যি সত্যি আম্মাকে ডাকছো (ইমরান) - তো কি মিথ্যা মিথ্যা ডাকবো, এখন কি বিছানায় ঘুমাতে দিবেন(মিম) - কি জ্বালায় পড়লাম রে বাবা (ইমরান) - অনেক জ্বালায় পড়লেন (মিম) - তুমি কি আমার সাথে ফাজলামি করছো(ইমরান ) - না তো (মিম) - তুমি ঘুমাও, আমি ঘুমাবো না তোমার সাথে,আমি অন্য রুমে যাই(ইমরান) ইমরান চলে যাচ্ছিল মিমের কথা শুনে থেমে গেলো - আমার কতো বড় ক্ষমতা দিছি আমার জামাই টাকে রুম থেকে বের করে, আসছে আমার সাথে লাগতে। এই বিছানায় আর কোনো দিন ঘুমাতে দিবো না আমি একলা একলা ঘুমাবও,আহা আরাম(মিম) - কি আমাকে এতো বড় কথা আমার বিছানায় একলা একলা ঘুমাবে। আর আমি নাকি অন্য রুমে ঘুমাবো না আমি এই রুমে,এই বিছানায় ঘুমাবো(ইমরান মনে) ইমরান বিছানায় এসে শুয়ে পড়লো - কি হলো ওই রুমে যাবেন না (মিম) - আমি কি জন্য যাবো,আমার বিছানায় আমিও ঘুমাবো, তোমার কোনো সমস্যা(ইমরান) - আজব,আমার কেনো সমস্যা হবে,সব কথা তো আপনিই বলেন(মিম) - হুহ ঘুমাও (ইমরান) মিম হঠাৎ করে ইমরানের বুকে মাথা দিয়ে শুয়ে পড়লো - ওই ওই এটা কি হচ্ছে সরো (ইমরান) -না সরবো না, আমি আজ থেকে আপনার বুকে ঘুমাবো (মিম) impossible (ইমরান) - impossible k possible করাই আমার কাজ(মিম ) ইমরান মিমকে সরাতে চেষ্টা করছে বাট পারছে না মিম শক্ত করে ইমরান কে জড়িয়ে ধরে আছে - এই মেয়ে উঠতে বলছি না, উঠবে কিনা নাকি তুলে আছাড় মারবো (ইমরান) - মারেন না, সোজা আম্মার কাছে নালিশ দিবো, এখনি দিচ্ছি, আম্মায়া (মিম) - ওই চুপ, চিল্লাতে হবে না, তুমি আমার বুকেই ঘুমাও(ইমরান) - হুম, thank you jamai (মিম ) মিম ইমরানের বুকে মাথা দিয়ে শুয়ে আছে। - এই মেয়ে টাকে কতো সহজ সরল মনে করছিলাম,কিন্তু এই দেখি আস্ত একটা ডাইনী(ইমরান মনে মনে) - ওই (মিম) - আবার কি হলো (ইমরান) - আমাকে জড়িয়ে ধরছেন না কেনো(মিম) - কিই, এখন আবার তোমাকে জড়িয়ে ধরতে হবে(ইমরান) - হুম (মিম) - পারবো না(ইমরান) - সত্যি তো (মিম) - হুম (ইমরান) - আম্মা আম্মায়া(মিম) মিমের আম্মা বলতে দেরি ইমরানের মিমকে জড়িয়ে ধরতে দেরি হয় নি - gj(মিম) -angry (ইমরান) - কি শয়তান মাইয়া কথায় কথায় আম্মাকে ডাকে মনে চাচ্ছে তুলে আছাড় মারি(ইমরান) চলবে,,,


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ২৮৭ জন


এ জাতীয় গল্প

→ রোমান্টিক অত্যাচার ৩
→ রোমান্টিক অত্যাচার পর্ব ১+২
→ বউয়ের রোমান্টিক অত্যাচার
→ বউয়ের রোমান্টিক অত্যাচার
→ বউয়ের রোমান্টিক অত্যাচার পর্ব ২
→ রোমান্টিক বউয়ের অত্যাচার

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...