বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

মুক্তি দিলাম তোমায় আমার জীবন থেকে।

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Tufan Chakma (৬০ পয়েন্ট)



X গল্পের নাম: মুক্তি দিলাম তোমায় আমার জীবন থেকে। ভালোবাসা মানুষের কাছে হয় না।হয় দুটি মনের মধ্যে। কিন্তু আমার মনে হয় কি জানো,,,,তোমার মনে আমি নেই।ভালোবাসতে একটরপা হয় না।হয় দুটি মনে সমান চাওয়া পাওয়ার।আমার জন্য তোমার ভালোবাসা আছে কিনা। সেটা সত্যিই বুঝা অনেক কঠিন।তবু আছে সামন্য কিছু মোহন।কিন্তু আমি তো মোহনসন্ধী চাইনি তোমার কাছ থেকে।আমি তোমার কাছে সবকিছু অবলিলায় মেনে নিতে পারতাম। তবে তোমাকে ছাড়া কোথাও চলে যেতে পারতাম না।তুমি হয়তো ভাবতে পারো।যেখানে তোমার কাছে আমার অচল ইমুশন চোখেরজল কোনো দাম নেই।সেখানে আমি কিসের আসাই আমি পুড়ে আছি।যেখানে শুধু সন্দেহ ছাড়া কিছুই নেই আমার।তবুও সেই পিছো টান ছেড়ে আমি আসছি না কেন? কারন আমি চাইলে ও পারবো না তোমাকে ভুলে যেতে ।ভুলে যাওয়ার জন্য তো তোমাকে ভালোবাসিনিই।আচ্ছা আমি ও তো রক্তমাংসের মানুষ তাই না,,,,আমার মনে কি কষ্ট নেই।নাকি আমার ভালোবাসা চাওয়ার অধিকার নেই।তোমার সুখি জীবনে সঙ্গী হতে চেয়েছিলাম মাত্র।আমি তোমাকেই চিনেছি।তোমার অবহেলার পাত্র ছিলাম শুধু আমি।আর এভাবে পথ চলাটা ও সত্যিই খুব কুঠিন।তাই তোমার আগামিদিনগুলো যেন ভালো কাাটে।সেই ব্যবস্তা ও করলাম।যাও তোমার মুক্তি দিলাম।ঘুরে বেড়াও খোলা আকাশের নিচে।আজ থেকে তুমি আমার জীবন থেকে মুক্তি।আর আমাকে দেখবে না।তোমার জন্য ফেসবুকে অপেক্ষা করে থাকতে। দেখবে না তোমার কাছে সুখ ভিক্ষা চাইতে।দেখবে না তোমার হাসিটা দেখার জন্য ফেসবুকে পড়ে থাকতে।মনে হয় জীবনে তোমাকে খুশি করতে পেরেছি। তবে তুমি অনেক ভালো থেকো।আমাকে যেন মনে করে কষ্ট ফেও না ।আর কষ্ট পাও এটা আমি চাই না রে। তোমার আগামি দিনের সুখ যেন তোমার জীবনকে সুন্দর করে তুলে। এই কামনা করি।তবে আমি আমার জীবন থেকে কখনো হাড়িয়ে যাবো না। তোমার জীবন থেকে তো হাড়িয়ে গেলাম আমি।।।ভালো থেকো।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৪৯ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...