বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

অনলাইনে ব্যস্ত সময়

"জীবনের গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Mohammad Shahzaman (০ পয়েন্ট)



X অনলাইনে ব্যস্ত সময় নয় জুলাই ২০২১ আজ সকাল ৯.৩০ মিনিটে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর ৪৬তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে অনলাইন ভার্চুয়াল অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানের আমি হোস্ট। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেছেন, তিতাস উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোসাম্মৎ আনোয়ারা চৌধুরী। আজ তিনটি ইভেন্টে প্রতিযোগিতা হয়েছে যথাঃ সাতই মার্চের ভাষণ, কবিতা আবৃতি ও সংগীত। বিচারকের ভূমিকায় আছেন, গাজীপুর গান মডেল সরকারি স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল বাতেন এবং মেহনাজ হোসেন মীম সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আলেক উল্লাহ। গতকাল আমি একটি গুগলফরম দিয়েছিলাম আজকের অনুষ্ঠানের অংশগ্রহণের জন্য। তিতাস উপজেলায় মাধ্যমিক শিক্ষায় এই প্রথম গুগল ফর্মে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি অবলম্বন করা হলো। গতকাল রাত পর্যন্ত প্রায় পনেরজন রেজিস্ট্রেশন করেছে। আজ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের মৌখিক অনুমোতি নিয়ে অনেকেই অংশগ্রহণ করেছে তবে তারাও গুগল ফর্মে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তিতাস উপজেলায় গুগল ফর্ম ব্যবহার করে রেজিস্ট্রশন করছে তিতাস উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ। তিনপর্বের অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব সাতই মার্চের ভাষণ। শিক্ষার্থী বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক সাতই মার্চের ভাষণ মুখস্ত করে অনুরূপ বক্তব্য দিবেন। বাতাকান্দি সরকার সাহেব আলি আবুল হোসেন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়, লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়, গাজীপুর খান মডেল সরকারি স্কুল এন্ড কলেজ, মজিদপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রভৃতি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী খুবই করেছে। বঙ্গবন্ধু বিষয় কবিতা আবৃতিও ভাল করেছে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা যার যার বাসা থেকে এইভাবে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে তা এখন থেকে ২/৩ বছর আগেও কল্পনা করতে পারিনি। বঙ্গবন্ধু এবং দেশাত্মবোধক গানের অনুষ্ঠানও ভাল হয়েছে। শিক্ষার্থী হারমোনিয়াম বাজিয়ে গান গেয়েছেন। কেউ খালী কলায় গান গেয়েছেন। অনুষ্ঠানের তিনটি পর্বই চমৎকার হয়েছে। অনুষ্ঠানে তিতাস উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাশেদা আক্তারও অংশগ্রহণ করেছে। দুপুর ১২টা ৩০মিনিটে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হলো। বিকেল ২.৩০মিনিটে অনলাইনে বিজ্ঞান ও আইসিটি বিষয়ক কুইজ প্রতিযগিতায়ও জয়েন করেছি। সাতানী ইউনিয়ন কারিগরি উচ্চ বিদ্যালয় এবং মঙ্গলকান্দি ফাজিল মাদ্রাসার প্রতিযোগিতাটি পরিচালনা করেছে মজিদপুর উচ্চ বিদ্যালয়। আজ মঙ্গলকান্দি ফাজিল মাদ্রাসা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেনি। তিতাস উপজেলায় এই প্রতিযোগিতা একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। এর আগেই পাচটি প্রতিযোগিতা হয়েছে কিন্তু এইরকম এক পক্ষ প্রতিযোগিতা হয়নি। আমি আগের পাচটি প্রতিযোগিতা অংশগ্রহণ করেছি এবং একটি প্রতিযোগিতা আমি নিজেই পরিচালনা করেছি। বিকেল চারটার আরেকটি অনলাইনে বিজ্ঞান ও আইসিটি বিষয়ক কুইজ প্রতিযগিতায়ও জয়েন করেছি। এটি পরিচালনা করেছে নারানদিয়া কলিমিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম। সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে আমার নিয়মিত অনলাইন ক্লাস। আমি প্রতিদিন সন্ধ্যার সময় নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীর ক্লাস নিয়ে থাকি। আমার অনলাইন ক্লাসে (জুম) প্রথম প্রথম ২০/৩০জন অংশগ্রহণ করতো এখন শিক্ষার্থী কমে ১০/১২জন হয়েছে।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৫৪ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...