বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

মেয়ে হয়ে জন্মাটাই যেন অভিশাপ।পাট-২

"ছোট গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান দ্বীনের চাদঁ (০ পয়েন্ট)



X প্রাইভেট পড়া বন্ধ করে দেওয়ার পর কিছুই বলিনি।পরীক্ষা দিলাম রেজাল্ট দিল।রেজাল্টের পর এবার শুরু করল আমার বিয়ে দিবে।আব্বুকে বললাম আমি এখন বিয়ে করব না। আব্বু:তাহলে তোমার কোন ব্যাপারেই আমি নাই।তাহলে নিজের ব্যবস্থা নিজে করে নাও।আজাইরা বসাই বসাই খাওয়াতে পারব না। এটা শুনার পর সারা রাত কাদলাম।না এখানে আর থাকব না চলে যাব এখান থেকে।পরেরদিন কাউকে কিছু না বলে এক বন্ধুর সাহায্যে অন্য শহরে চলে গেলাম।সেখানে আমার কিছু চেনা লোক ছিল তারা আমাকে থাকার জায়গা দিল।সেখানে কাজ যোগাড় করে পড়ালেখা চলিয়ে গেলাম। পড়ালেখা শেষ করে চাকরি সব মিলিয়ে ভালই চলছিল।হঠাৎ আমার বন্ধুর কাছে খোজ পেলাম যেই ছেলের জন্য আমার বাবা এতো করল তাদের সেই আদরে ছেলেই এখন ঘর থেকে বের করে দিছে।এটা শুনে কোথাও একটা আনন্দ হলো এখন যদি বুজে ছেলে ছেলে করলেই যে ছেলেই শেষ কালে দেখবে তা না।আমরা মেয়েরাও পারি বাবা মায়ের দায়িত্ব নিতে।শুধু একটু সাপোট এর প্রয়োজন।যে মেয়েকে এত অবহেলা করল আজ তার কাছেই আশ্রয় নিতে হবে।যেমনই হোক বাবা মা তো উনাদের নিজের কাছে নিয়ে এলাম।শুধু এইটুকুই বললাম চিন্তা করবেন না আমি আপনাদের আজাইরাই খাওয়াব। সমাপ্ত। হয়তো কথা গুলো গুছিয়ে লিখতে পারি নাই চেষ্টা করেছি।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৭৩ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...