বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

ওই বাড়ি

"রহস্য" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Sᕼᗩᕼᗩᖇᓰᗩᖇ (৬৫ পয়েন্ট)



X জীবনে খারাপ সময় কখন আসবে তা কেউ বলতে পারে না, যেমন বলতে পারেনি কিছু স্কুল পড়ুয়া ছেলে। স্কুলে পড়ার সময় ছেলেদের মনে একটু এডভেঞ্জার ভাবটা আসে, তখন তারা কিছু অন্য রকম কাজ করে বসে, টিক তেমনটাই করেছিল তারা। ঘটনার কিছু দিন আগে কোথা থেকে একটা পরিবার এসে উদয় হল তাদের গ্রামে, জমিটা তারা কিছুদিন আগে কিনেছে এখন তারা বাড়ি বানাবে। ইট,বালি, সিমেন্ট দিয়ে শুরু হলো বাড়ি। যারা বাড়িটি বানিয়ে ছিল তাদের সম্পর্কে বলতে পারবো না। বাড়িটি ছিলো জনপদ থেকে একটু কোন ঘেসে। ফাকা জায়গাই মাথা উচু করে আছে বাড়িটি। ফিরে আসি মুল ঘটনাই, স্কুলের সেই ছেলে গুলোর পছন্দ হয় বাড়িটি, কারণ বাড়িটি ছিল ফাকা আর আড্ডা দেবার জন্য ভালো, এমন জায়গা আর কোথায় পাওয়া যেত। গরমের ছুটিতে তারা ঠিক করলো একটু নিজেরা রান্না করে পিকনিক করবে, তারা তাই করলো আর জায়গা ঠিক করলো সেই বাড়িটি। রাত ৯ টা রান্না শুরু হল, ১২ টাই শেষ। শুরু হলো খাওয়া। খাওয়া শেষে তারা ঠিক করলো রাত টা ওখানে থাকবে৷ কারণ অনেক রাত বাড়িতে গিয়ে সবাইকে ডেকে তোলার চেয়ে এখানে থাকাটা ভালো। কিছু সময় পরে, রাত ৩ টার সময় একজন প্রাকৃতিক ডাকে বাহিরে গেল। কিন্তু সে এসে দেখে তার বাকি বন্ধুদের খন্ড খন্ড দেহ। মাথা কাটা, হাত, পা ছিড়ে ফেলা হয়েছে। সে অনেক ভয় পাই, দেয়ালে পিঠ দিয়ে বসে পরে কোন কথা নাই মুখে কারণ সে যানে তার অবস্থাও তার বন্ধু দের মত হতে চলেছে। সে ভাবতে থাকে কিভাবে হলো এমনটা, হঠাৎ একটা গম্ভির শব্দ তার কানে আসছে, বুকে সাহস নিয়ে তার ছোট লাইটা শব্দ বরাবর মারলো। কিন্তু সে দেখলো একটা ছোট মেয়ে বসে আছে তার হাতে তার একটা বন্ধুর হাত, সে তার দিকে তাকিয়েই খামড়া বসিয়ে দিলো। ভয় পেয়ে দৌড় দিয়েও পার পেলো না সে, তার ও এক হাত নাই। নিয়ে নিয়েছে সেই ছোট মেয়েটি। তার পর থেকে কেউ সেই বাড়ির দিকে যাই না, কেউ থাকেও না সেই বাড়িতে। কিন্তু কেন এমন হল, কেনই বা চলে গেলো কয়েকটি ছেলের জীবন। ২ বছর পরে সেই বাড়ির মালিকের সাথে দেখা হল, পাগল প্রায়। বললো কেনো সে বাড়িটি বানিয়েছে। তার একটা মেয়ে ছিল খুব আদর করতো কিন্তু কিছু ছেলেদের অত্যাচারে সে মারা যাই। মেয়েকে সপ্ন দেখে মেয়ে অন্য জায়গায় থাকতে চাই, তাই বাড়িটি বানিয়েছিল। ভয়ে আর যায়নি ওই গ্রামে কারণ তার সাবধান করার আগেই ঘটে যাই ঘটনাটি। শুধু আফসোস থেকে যাই।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১২৭ জন


এ জাতীয় গল্প

→ বিয়ে বাড়ির প্রেম
→ বাড়ির বউ ইতালিয়ান পর্ব 2
→ বাড়ির বউ ইতালিয়ান
→ জ্বীনের বাড়ি
→ পরী আপাদের বাড়ি
→ দাদুর বাড়ির ভূত
→ ভূতের বাড়ি
→ ভুতুড়ে বাড়ির রহস্য (পর্ব ০১)
→ ভুতুড়ে বাড়ির রহস্য (পর্ব ০২ এবং শেষ)
→ অভিশপ্ত বাড়িতে একরাত
→ খালার বাড়ির ভূত।#{শেষ পর্ব}
→ খালার বাড়ির ভূত।#পর্বঃ-১
→ বাড়িটায় কে যেন থাকে
→ জান্নাতের বাড়ি ও গুপ্তধন।

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...