বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

ভয়ংকর সব মারাত্মক ভূতের গল্প

"ভৌতিক গল্প " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান MD.Belal Hosan (৫ পয়েন্ট)



X মধ্য প্রাচ্যের একটি দেশ কাতার । আমার ভাইয়া কাতার আর্ম-ফোর্স এ চাকরী করে । ভাইয়ার কাছ থেকে ঘটনাটি শুনে বিশ্বাস করলাম, তার একটি কারন ভাইয়া মিথ্যা বলেনা, দ্বিতীয় কারন যে বিষয় নিয়ে ভাইয়া ঘটনাটি বলেছে তাতে মিথ্যা বলার প্রশ্নই আসে না। ঘটনাটি হচ্ছে…… ভাইয়ার খুব ভাল বন্ধু জমির ভাই । আমি ছোট বেলা থেকেই উনাকে চিনি । উনিও কাতারে থাকত ভাইয়ার সাথে একই কোয়াটারে । কাতারে ‘সানাইয়া’ নামের একটা এলাকা আছে ‘ইন্ড রাস্ট্রীয়াল এরিয়া’, যেখানে কোনো প্রয়োজন ছাড়া কেউ যেত না । সন্ধ্যার আগ থেকেই ওখানে আর মানুষের আনাগোনা দেখা যেত না । তাই ঐ এলাকাটা খুব নির্জন থাকত । ওখান থেকে গাড়িযোগে কাতারের মূল শহরে (যেখানে ভাইয়ার কোয়াটার ছিল) আসতে প্রায় এক ঘন্টা সময় লাগে এবং ঐ পথের মাঝা-মাঝিতে একটি পেট্রোল ষ্টেশন ছাড়া আর কোনো রেসিডেন্সিয়াল এরিয়া কিংবা কোনো দোকান-পাট ছিল না । এলাকাটা তেমন ডেভেলপ না থাকাতে রাস্তায় কোনো লেম্পপোস্ট ছিলনা । ওখানে গাড়ি ছাড়া যাতায়ত একেবারে অসম্ভব । জমির ভাই ঐ দিন একটা কাজে সানাইয়া গিয়েছিল । কাজটি সময় মতো শেষ না হওয়ায় জমির ভায়ের বাসার উদ্দেশ্যে রওনা দিতে সন্ধ্যার পর হয়ে যাই । জমির ভাইয়ের সাথে গাড়ি ছিল । কিছু দূর আসতেই জমির ভাই খেয়াল করল সামনে একটি লোক রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে আছে । জমির ভাই মনে মনে ভাবল এই সময় এই স্থানে তো কেউ থাকার কথা না, গাড়ীর গতি বেশী থাকায় ঐ লোকটিকে ক্রস করে গাড়ির গতি কমালো আর গাড়ির লুকিং গ্লাসে যখন দেখল তখন ওখানে কেউ ছিল না । জমির ভাই একটু সাহসী টাইপের ছিল তাই সেটা চোখের ভুল মনে করে সামনের দিকে গাড়ির গতি বাড়িয়ে দিল । কিছু দূর পার হতেই আবার সেই একই ঘটনা, সাদা রঙের একটি আলখেল্লা পড়া একটি লোক রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে আছে । কিন্তু এবার লোকটিকে ক্রস না করে লোকটির পাশে এসে গাড়ি থামাল । লোকটি কালো বর্নের, দেখতে সাদা-সিদে ছিল । জমির ভাই এরাভিয়ান ভাষা জানত । লোকটি তার ভাষাই জমির ভাইয়ের কাছে শহরের দিকে আসার জন্য সাহায্য চাইল, এবং লোকটি গাড়িতে উঠে বসল । গাড়িতে বসার পর লোকটি দেখতে যে উচ্চতার ছিল তার চেয়েও লম্বা লাগছে, বিশেষ করে হাটুর দিকটা দেখতে নাকি অন্য রকম ছিল । পেট্রোল ষ্টেশনের পাশে আসতেই তেল নেয়ার জন্য যখন গাড়ি পেট্রোল ষ্টেশনের ভেতর ডুকবে সে সময় গাড়ির ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায় আর সাথে সাথে লোকটি গাড়ি থেকে নেমে জমির ভাইকে তার ভাষাই ধন্যবাদ জানিয়ে বিদায় নেয় । হটাৎ জমির ভাই চিৎকার শুনে সামনের দিকে তাকাতেই দখলো পেট্রোল ষ্টেশনের একজন কর্মচারী জমির ভাইয়ের গাড়ির দিকে তাকিয়ে চিৎকার করে পেট্রোল ষ্টেশনের অফিসের দিকে দোড় দিল । জমির ভাই তা দেখে হতভম্ভ হয়ে গেল আর যখন পাশ ফিরে লোকটির দিকে তাকাল তখন দেখলো, হাই হিলের সেন্ডেল পড়ে মেয়েরা যে ভাবে হাঁটে লোকটি ঠিক সে ভাবে হাঠছে । লোকটির পায়ের দিকে তাকাতেই জমির ভাই যেন জমে বরফ হয়ে গেল । লোকটির পা দু’টো ছিল ঠিক ঘোড়ার পায়ের মত । জমির ভাই সাহস করে গাড়ি থেকে নেমে পেট্রোল ষ্টেশনের অফিসের দিকে দোড় দিল । জমির ভাই নাকি প্রায় আধা মত বাক রুদ্ধ ছিল । এর পর জমির ভাই ভাইয়াকে ফোন করে ওখানে আসতে বলল , সাথে ভাইয়ার এক রুমমেট ছিল তাকে সহ আসতে বলল । ভাইয়া কি জন্য জানতে চাইলে ভাইয়াকে আসতে বলে ফোন লাইন কেটে দিল । তারপর ভাইয়া ও ভাইয়ার রুমমেট এসে জমির ভাইকে নিয়ে ভাষাই যাই । এর পরের দিন জমির ভাই ঘটনাটা সবাই কে খুলে বলে । জমির ভায়ের ভাষ্য মতে লোকটি গাড়িতে উঠার প্রায় আট/দশ মিনিট পর পেট্রোল ষ্টেশনটি আসে। তাহলে জমির ভাই ঐ আট/দশ মিনিট কার সাথে ছিল?


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৬৭৩ জন


এ জাতীয় গল্প

→ ভয়ংকর সব মারাত্মক ভূতের গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...