বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

রাজনীতিবিদের এখন সুযোগ মানুষের মন জয় করার।

"সত্য ঘটনা" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Mohammad Shahzaman (০ পয়েন্ট)



X চট্রগামের সাবেক মেয়র মহি উদ্দিনের মেয়র নির্বাচনের সময় চট্রগ্রাম ছিলাম। তখন আমি ভোটার ছিলাম না। আমি প্রায় বস্তিতে ঘুরে ঘুরে সাবেক মেয়র মহি উদ্দিনের জনপ্রিয়তা লক্ষ্য করেছি। সাধারণ জনগণের একটা কথা ছিল উনি চট্রগ্রামের বন্যা- দূর্যোগের সময় গরিবকে সাহায্য করেছেন কাজেই উনাকেই ভোট দেব। সাবেক মেয়র মহি উদ্দিন যখন মেয়র হন তখন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের করুন অবস্থা ছিল। আমার কাছে মনে হল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নয়, চট্রগ্রামের দূর্যোগের মুহুর্তে সাবেক মেয়র মহি উদ্দিনকে পেয়েছিলেন বলে ঐই সময় তিনি পাশ করেছেন। বাংলাদেশসহ পৃথিবীতে একটি দূর্যোগ চলছে তাহলো করুনা ভাইরাস। সারা বাংলাদেশই এখন হোম কোয়ারান্টের মত। এই অবস্থায় যারা চাকুরীজীবী বা উচ্চ মধ্যবিত্ত তারা একা একা বাস করতে পারবে কিন্তু গরীব মেহনতি মানুষের অবস্থা কী হবে? বাংলাদেশ সরকারের ইউরোপের মত এত টাকা নেই যে সবাইকে বসে বসে সারা বছর খাওয়াতে পারবে। তবে আমার বিশ্বাস বাংলাদেশে অনেক কালো টাকা বা হিডেট মানি আছে। এদেশে ইলেকশনের সময় অনেক টাকা বের হয়। এই হিডেন টাকাগুলো এখন জনগনের কাজে লাগানোর উত্তম সময়। কারণ এই সময় টাকাওয়ালাও যে এই ভাইরাস থেকে মুক্তি পাবেন তারও গ্যারান্টি নেই। কাজেই এখনই টাকা সদকায় বিনিয়োগ করার উত্তম সময়। এখন যদি আপনি জনগণের পাশে থাকেন তাহলে জনগণও আপনার পাশে থাকবে চিরদিন। এখন আপনি সভা সমাবেশ ছাড়াও জনগণের মনের ভিতর স্থান নিতে পারবেন যদি জনগনের নিরাপত্তায় বা সেবায় কাজ করেন। দেশে এই মুহুর্তে দরকার মাদার তেরেসার মত শত শত সেবিকা এবং ডাক্তার সেই সাথে প্রয়োজনীয় ওষুধ। ব্যবসায়ীগণ কালো বাজারী করে কিছু টাকা আয় করতে পারবেন তবে ব্যবসায়ীগণ একটু ছাড় দিয়ে ব্যবসা করে জয় করতে পারেন হাজারো মানুষের ভালবাসা। রাজনীতিবিদের এখন সুযোগ মানুষের মন জয় করার।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৮৩ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...