গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

গল্পেরঝুড়িতে স্বাগতম ...

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

নীল দ্বীপ (পর্ব২)

"উপন্যাস" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান ESHRAT JAHAN (২০৭ পয়েন্ট)



মৃন্ময় আর হৃদি ফ্রেস হয়ে ব্রেকফাস্ট করলো।ব্রেকফাস্ট করে মৃন্ময় নিজের রুমে গেল।আর হৃদি টিভি কাছে গেল।একটু পর মৃন্ময়ের কাছে যেয়ে বললো,"কি করছিস?" "কিছু নাহ।দেখছিস কি করছিস।" "শোন ফুফু তোর জন্য ছেলে দেখেছে।ছেলের ব্যাপারে যা শুনলাম তা অনেক ভালো।দেখতেও ভালো।" "তো বিয়া কর।" "আরে কি বলিস!ছেলে তোর জন্য দেখা হয়েছে।" হৃদি মৃন্ময়ের হাতে ছবি তুলে দিয়ে বললো,"এই ধর ওই ছেলের ছবি।দেখ।বিকেলে তোর দেখতে আসবে।" "আজকে?" "হুমম।আমি জানি তোর ছেলেটা পছন্দ হয়নি।আর পছন্দ না হওয়ারই স্বাভাবিক।তোর প্রেমিকের তো কোনো খোঁজ নাই।" মৃন্ময় কিছু বললো না। বিকেলে ছেলে পক্ষ দেখতে আসলো।ছেলেটার নাম নিলয়। হৃদি মৃন্ময়কে ছেলের সামনে নিয়ে গেল।ছেলেরা মৃণ্ময়কে খুব পছন্দ করলো।কিন্তু মৃন্ময়ের ভালো লাগলো না। রাতে হৃদি আর মৃন্ময় ছাদে চা খাচ্ছিল আর গল্প করছিল।হৃদি বললো,"ছেলে পছন্দ হলো না?" মৃন্ময় কিছু বললো না।হৃদি আবার বললো,"দেখ জীবনে মানুষের অনেক কিছুই ঘটে যেটা মেনে নিতে হয়।এটা একটা এক্সিডেন্ট।আর কয়েক মাস ধরে তার কোনো খোঁজ নাই।কি করবো বল!এমনো হতে পারে তোকে ফাঁকি দিচ্ছে।" ফাঁকি দেওয়ার কথা শুনে মৃন্ময় হৃদির দিকে তাকালো।হৃদি বললো,"দেখ এমন অনেকের জীবনে ঘটে।আস্তে আস্তে সব মেনে নিতে হয়।আজকে যে ছেলেটা এসেছে সেতো খারাপ না।তার সাথে মিশতে মিশতে দেখবি যে ভালো লাগবে।" "হ্যা ঠিক বলেছিস।" "আর শোন কখনো পালিয়ে যাওয়ার চিন্তা করবি না।পালিয়ে যাওয়া মানে হারিয়ে যাওয়া।যারা পালিয়ে যায় তারা যুদ্ধ করতে জানে না।তারা ভীতু।আর সেইসব ছেলেরা কাপুরুষ।" "ঠিক বলেছিস।পালিয়ে গেলে বাবা মার মান সম্মানটাও মাটি করে দেয়।আর তুই তো ঠিক বলেছিস পালিয়ে যাওয়া মানে হেরে যাওয়া।এইযে মুক্তিযুদ্ধের সময় যদি সবাই পালিয়ে যেতে তাহলে এই দেশ স্বাধীন হতো না।" "তুই ঠিক বলেছিস।আর শোন যে মানুষ বাবা মা সবাইকে ছেড়ে তোর জন্য তোর কাছে আসবে মনে করবি সেও তোকে ছেড়ে চলে যাবে।কেন জানিস?" মৃন্ময় কফিতে একটা চুমুক দিয়ে বললো,"কেন?" "কারন যে বাবা মা তাকে অনেক কষ্ট করে বড় করেছে এত ভালোবাসা দিয়েছে আর যে মা তার জন্মের আগে থেকে এখন পর্যন্ত কষ্ট করে আসছে সেই মাকে সেই বাবাকে যে ছেড়ে যেতে পারে সে কিন্তু তোকেও ছেড়ে যেতে পারে।বাবা মা জন্ম থেকে সাথে আর তুই তো কিছুদিনের একটা মেয়ে তুই তো বাবার মার মতো এত কিছু করতে পারবি না।তাই যে মানুষ বাবা মা পরিবারকে ছাড়তে পারে সে তোকে ছাড়তে পারে।" "হুমম ঠিক বলেছিস বোন।" "আর আমার ইচ্ছাও নাই পালিয়ে যাওয়ার।বিয়ে তো একবার করবো তাই অনেক আয়োজন করে করবো।" "ঠিক।চল পার্টি করি।এই মৃন্ময় কালকে ওই ছেলে তোর সাথে রেস্টুরেন্ট দেখা করবে।আর ফোন নাম্বার দিয়েছি।" "ওহ রং নাম্বার কল দিলে ধরিস।" "ওকে।"


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৩৬ জন


এ জাতীয় গল্প

→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ।পর্বঃ(০৪)
→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ।(শেষ পর্ব)
→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ। পর্ব(০৩)
→ রহস্যে ঘেরা বাল্ট্রা দ্বীপ
→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ।পর্বঃ(০২)
→ জিজেসরা যখন নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে।(পর্ব ০১)
→ নীল দ্বীপ(পর্ব১)
→ নীলকমল আর লালকমল
→ নির্জন দ্বীপ থেকে…

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...