বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

A Journey with মেছো ভূত।

"ভৌতিক গল্প " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান MD.Belal Hosan (৫ পয়েন্ট)



X গল্পটা শুনেছিলাম স্কুলের বন্ধু বীকন থেকে। তার চাচাত ভাই মুরাদ থাকতেন গ্রামে। ভীষণ ডানপিটে আর দুরন্ত ছিলেন। এখানে ওখানে না বলে চলে যাওয়া, বর্ষার ভরা নদীতে সাঁতার দেয়া,।এসবে ছিল দারুণ উৎসাহ। সাথে ছিল তার আরেক বন্ধু শিহাব। একদিন কার কাছো যেন শুনলেন যে রাতে বিরাতে মাছ ধরতে যাওয়া ঠিক নয়, মেছো ভূতের খপ্পরে পড়তে হয়। মনে মনে ঠিক করলেন সে রাতেই ভেলা চড়ে খালে যাবেন মাছ ধরতে। শিহাব ও রাজি। সারাদিন পরিশ্রম করে কলাগাছের ভেলা বাঁধলেন, আর সন্ধ্যার আগেই বেরিয়ে গেলেন ঘর থেকে। শিহাবকে বললেন একটা নির্দিষ্ট জায়গায় এসে দেখা করতে। সময়টা হেমন্তের মাঝামাঝি, বৃষ্টির মৌসুম শেষে হালকা শীত পড়ছে। মুরাদ ভাইয়ের খানিকটা শীত করতে লাগলো। নির্দিষ্ট জায়গায় শিহাবকে দেখত পেলেন, বেচারা অল্প শীতই কাহিল হয়ে পড়েছে, পুরো গা চাদরে মোড়ানো। এবার ধীরে ধীরে নিজের তৈরী ভেলা, মাছ ধরার জাল, কুপি বাতি নিয়ে উঠলেন ভেলায়,শিহাবকে দাঁড় বাইতে বলে নিজে মাছ ধরায় মন দিলেন। আশ্চর্য! কি আশ্চর্য!!! এতো মাছ! খুশিতে গদগদ মুরাদ ভাই। ধরছেন আর টুকরিতে ভরছেন, কত্ত বড় বড় মাছ। হঠাৎ চারপাশে তাকালেন মুরাদ ভাই, ভেলা তো এতটুকু নড়ে নাই, পাড়েই দাঁড়ানো। তখনই শুনলেন কচকচ শব্দ। পেছন ফিরেই দেখলেন বন্ধু শিহাব একের পর এক কাঁচা মাছ চিবিয়ে যাচ্ছে। কিছুক্ষণ অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থেকেই চিৎকার মারলেন," কিরে রাক্ষস, কাঁচা খাচ্ছোস কেন্? তোরে কি দিবো না বলছিলাম?" তখনই নাঁকী কণ্ঠে শুনলেন " তোঁর কঁপাল ভালো তোঁরে খাই নাই"। এই বলে চাদরের আবরণ সরালো শিহাব, কালো গোল মুখে দুটো লাল কুতকুতে চোখ, আর দুটো চকচকে দাঁত। সারা শরীরে মেছো গন্ধ এই শীতে ও মুরাদ ভাই ঘেমে শেষ। অনেক কষ্টে নিজেকে সামলে দৌঁড় লাগালেন। ঘটনার পর প্রায় ৭ দিন জ্বরে অচেতন ছিলেন। আজো প্রায়ই নাকি স্বপ্নে সেই ভয়ানক মুখ টা দেখতে পান, আর কানে বাজে সে ভয়াল কণ্ঠস্বর, " তোঁকে তোঁ খাঁই নাই।" এটই ছিলো কাহিনী।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৮২২ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...