বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

নীল দ্বীপ(পর্ব১)

"উপন্যাস" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান ESHRAT JAHAN (৩৪ পয়েন্ট)



X মৃন্ময় ছাদে একা দাঁড়িয়ে আছে।উদাস মন তার।জীবনের চলার পথে একটু যেন বাধা পেয়েছে।পিছন থেকে হৃদি এসেছে তাকে চমকে দিলো।মৃন্ময় বলল,"কিরে কখন এলি?" "এইতো এখন।এসে দেখি তুই নেই ।ফুফু বলল তুই নাকি ছাদে তাই ছাদে চলে এলাম।" "ওহ আচ্ছা।তোর তো এখন রেস্টের দরকার।জার্নি করে এসেছিস।" "হ্যা চল।" ঘরে ঢুকেই হৃদি ড্রেসটা চেঞ্জ করে বিছানায় শুয়ে পড়লো।ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়লো।রাতে মৃন্ময় হৃদিকে ডেকে তুললো। "চল হৃদি ছাদে যাই।" "ওকে ।তার আগে কফি করে আনি।দুইজনে গল্প করবো আর কফি খাবো।" "ওকে যা।" মৃন্ময় কফি বানিয়ে হৃদির হাতে একটা কাপ তুলে দিয়ে বলল,"চল ছাদে।" ছাদে জোৎসার আলো।মায়াবী চাঁদ।পূর্ণিমার রাত। মৃন্ময় বলল,"দেখ কত সুন্দর চাঁদ উঠেছে।" "হুমম।আচ্ছা মৃন্ময় তোর প্রেমিকের কি খবর?কোন খোঁজ মিললো তার?" মৃন্ময় হতাশ মুখে বলল,"নারে।তার কোনো খোঁজ নাই।" "তোকে কি ফাঁকি দিলো নাকি!" "আমি তো জানি না।আচ্ছা আয়মানের কি খবর চাকরি পেলো নাকি ?" "নারে এখনো পায়নি।বাসা থেকে বিয়ের চাপ দিচ্ছে।আমি রাজি হইনি।আয়মান কিছু করতে পারলে তাহলে কিছু একটা হতো।" "হুমম রে সবই কপাল।" হৃদি কফির দিকে তাকিয়ে বলল,"দেখি কি করা যায়।তোর জন্য ছেলে দেখছে না?" "খোঁজ করা শুরু করেছে।" "ওহ।" "হুমম।জীবনটাই বেদনার তোর আর আমার।" হৃদি দীর্ঘ নিঃশ্বাস ফেলে বলল,"হ্যা।আয়মানের কিছু একটা হয়ে যেত।" "চিন্তা করিস না হয়ে যাবে কিছু একটা।" "মৃন্ময় তুই তো সুন্দর গান বলিস।একটা বলতো।" "তোমাকে নিয়ে দেখা স্বপ্নের ভিড়ে, ছিল না কোনোকিছুর ঠাঁয় দুচোখের নীড়ে, স্বপ্নগুলোকে হঠাৎ কেড়ে যে নিলে, আমাকে যেন আঁধার পথে ঠেলে দিলে.. মৃন্ময় আর বলতে পারল।চোখে পানি এসে গেল।কন্ঠস্বর ক্ষীণ হলো। "মৃন্ময় কাঁদিস না।দেখ স্বাভাবিক হ।" "ওকে।" গল্প করতে করতে রাত ১২ টা বাজলো।মৃন্ময় আর হৃদি ঘরে ঢুকে ডিনার করে ফেললো।তারপর দুইজনে হাসি আড্ডা দিতে লাগলো।মনে হলো কতদিনের সজীবতা ফিরে এলো।দুইজন মন খুলে হাসাহাসি নাচানাচি করল।রাত ৩ টায় ঘুমিয়ে পড়লো। সকালের মিষ্টি রোদ হৃদির চোখে এসে লাগলো।ঘুমটা তখনি ভেঙে গেল।বিছানা উঠে বারান্দায় চলে গেল।মৃন্ময় এখনো ঘুমাচ্ছে।বারান্দায় দাঁড়িয়ে বিচিত্র মানুষকে দেখলে লাগলো হৃদি। মৃন্ময় ঘুম থেকে উঠে দেখলো হৃদি নেই।বারান্দায় এসে দেখলো হৃদি একা দাঁড়িয়ে আছে। "কিরে হৃদি কি করছিস?" "নারে কিছু না।এমনি দাঁড়িয়ে আছি।" "ওহ আচ্ছা।তুই মনে হয় এখনো ফ্রেস হাসনি।" "ওহ আচ্ছা ফ্রেস হয়ে নে।আমি ফ্রেস হবো।তারপর দুইজনে একসাথে ব্রেকফাস্ট করবো।" "ঠিক আছে চল।"


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৫৫ জন


এ জাতীয় গল্প

→ নীল দ্বীপ (পর্ব২)
→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ।পর্বঃ(০৪)
→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ।(শেষ পর্ব)
→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ। পর্ব(০৩)
→ নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে জিজেসগণ।পর্বঃ(০২)
→ জিজেসরা যখন নীল সাগরের দেশ মালদ্বীপে।(পর্ব ০১)
→ নীলকমল আর লালকমল
→ নীল পরীর গল্প
→ » নীল হাতী » একটি মামদো ভূতের গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...