বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

ছোট মেয়ের বুদ্ধি (২)

"রূপকথা " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান TARiN (৭৮৯ পয়েন্ট)



X বড়লোক ভাই খানিক ভেবে নিয়ে তার গুরুমার কাছে গেল পরামর্শ চাইতে। গুরুমা তাকে আদর করে বসিয়ে জিজ্ঞাসা করল, তুমি অমন মুখ ভার করে আছ কেন? রাজামশাই আমাকে চারটা হেঁয়ালি জিজ্ঞাসা করেছেন। মাত্র তিন দিন সময় দিয়েছেন জবাবের জন্য। কি হেঁয়ালি শুনি? প্রথম হল- পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে বলবান আর দ্রতগামী কি জিনিস? এ আবার একটা হেঁয়ালি? আমাদের ঘোড়াটার মতো দ্রুতগামী আর কিছু নেই। তার গায়ে চাবুক ঠোকাবার মাত্র সে পাঁই পাঁই করে এমন ছুটবে খরগোশকে ও ধরে ফেলবে। দ্বিতীয় হল- পৃথিবীতে সবচেয়ে মোটা কে? আমাদের শূয়োরের বাচ্চাটা তার মোটা, কি বলব। দু'বছর বয়স, এখনি সে এমন মোটা হয়েছে যে, উঠে দাঁড়াতে পারে না। এবার তৃতীয় হেঁয়ালি- পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে নরম কোন জিনিস? ওঃ! এ আর শক্ত কি? - পালকের বিছানার মত নরম আর কিছু নেই। শেষ হেঁয়ালি হল এই- পৃথিবীতে সবচেয়ে প্রিয় জিনিস কি? আমার নাতি ইভানুশকা ই সবচেয়ে প্রিয় জিনিস সন্দেহ নেই ‌ প্রণাম হই গুরুমা। এবার আমি জানলাম কি বলতে হবে রাজামশাইকে। সেই গরীব ভাই কি করল? সে কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি গেল। দরজার কাছে দাঁড়িয়ে ছিল তার সাত বছরের মেয়েটি। এই মেয়ে ছাড়া তার আর কেউ ছিল না। ..চলবে


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১০৯ জন


এ জাতীয় গল্প

→ টুনটুনি ও ছোটাচ্চু
→ পদ্মা নদীর মাঝি (২)
→ টুনটুনি ও ছোটাচ্চু
→ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, রোবট ব্যবহার করবে রাশিয়ার মহাকাশ স্টেশন
→ নিউজপেপার (২)
→ রুহান রুহান (২)
→ বুদ্ধির তিন
→ খুদে বাহিনীর গুহা অভিযান (২)
→ টুনটুনি ও ছোটাচ্চু
→ আমার সাইন্টিস মামা (২)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...