গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !
জিজে রাইটারদের জন্য সুঃখবর ! এবারের বই মেলায় আমরা জিজের গল্পের বই বের করতেছি ! আর সেই বইয়ে থাকবে আপনাদের লেখা দেওয়ার সুযোগ! থাকবে লেখক লিস্টে নামও ! খুব তারাতারি আমাদের লেখা নির্বাচন কার্যক্রম শুরু হবে

গল্পেরঝুড়িতে স্বাগতম ...

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

স্কুল লাইফের অভিমান!

"জীবনের গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Ahmed Limon (০ পয়েন্ট)



আমার নাম রাহুল।আমি পাড়ার এক হাই স্কুলে পড়াশোনা করি।আমার খুব শখ ছিল কখন আমি হাই স্কুলে উঠব,আর অনেক বন্ধুবান্ধব হবে।আমি সমাপনী পরীক্ষা দিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণীতে উঠি।প্রথম প্রথম একটু আনইজি ফিল হচ্ছিল।নতুন জায়গা নতুন পরিবেশ।তারপর ক্লাস শেষ হয় এবং টিফিনের সময় হয়।তো আমার খুব বাথরুম পেয়েছিল।কাউকে চিনি না।তারপর একজনকে জিজ্ঞেস করলে ও বাথরুমটা চিনিয়ে দেয়।তারপর ওর সাথেই প্রথম পরিচয়।ওর নাম রোহান।তারপর আস্তে আস্তে আরও অনেকজনের সাথে ফ্রেন্ডশিপ হয়।তারমধ্যে সাইফ আর রোহানই আমার ক্লোজ ফ্রেন্ড।সব ভালোভাবেই যাচ্ছিল তারপর হঠাৎ আমার এ ধারণা বদলে যায়।অবশ্য দোষ আমারই।তিন বছরে এতটা বদলে যাবে আমি তা বুঝতে পারিনি,এ-ও বুঝতে পারিনি যে মজাটা ও সিরিয়াসলি নিয়ে নেবে।তো ঘটনাটা হলো এরকম★ফেসবুকে একটা আইডি খুলি যা ফেক আইডি,নাম সাদিয়া।এই আইডি দিয়ে রোহানের সাথে মজা করি।এই মজাটা সিরিয়াস হয়ে যাবে আমি তা উপলব্ধি করতে পারিনি।আমি ওকে কয়েকদিন ইমোশনালি ব্লেকমেইল করি।তারপর আমি নিজেই ওকে আনফ্রেন্ড করে দিই।তারপর ও আবার রিকোয়েস্ট পাঠালে আবার এক্সেপ্ট করি।তারপর ও নিজেই আবার ব্লক করে দেয়।আমারও অনেক খারাপ লাগছিল পরে।ও সত্যি সত্তিই মনে হয় কষ্ট পেয়েছে।প্রথম প্রথম ওকে কিছু বলিনি যে এটা আমি করেছি।তারপর অনুতপ্তে ওর কাছে বললে ও কিছুই বলেনি।ওর স্তব্ধ হওয়ার মতো অবস্থা হয়েছিল।ও হয়ত বিশাশই করতে পারেনি যে এটা আমি করেছি।তারপর থেকে ও আমার সাথে কথা বলা বন্ধ করে দেয়।সাইফও কেমন যেন হয়ে গেছিল।অবশ্য এটাই নরমাল।কারণ ওরা দুজন মামা ভাগিনা ছিল।রোহান কথা বন্ধ করলেও সাইফ বন্ধ করেনি,তবে আস্তে আস্তে সেও অন্যরকম হয়ে যায় আগের মতো কথা বলে না।রোহানের কাছে অনেকবার সরি বলি তবুও ও কথা বলে না।একদিন ও আমাকে একটা বকা দেয়।ও কোনোদিনও এরকম ব্যবহার করেনি।তারপর যে একটা খারাপ লেগেছিল তা বলতে পারব না।তারপর আমি আস্তে আস্তে সরে আসি এবং কারো সাথেই ফ্রেন্ডশিপ করতে চাই না।মানে ক্লোজলি।কলেজে ওঠার পরও আমার তেমন কোনো বন্ধু হয়নি।আর আমার আগের বন্ধুরা তো কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছে।এখন আর সাইফও খোজখবর নেয় না!জীবনটা হয়ত এরকমই!দিনশেষে একদিন একা যাই।অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকি আকাশের দিকে!আর অভিমানে মনে মনে বলি আমার কারো দরকার নেই,আমার আল্লাহই যথেষ্ট!


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৪৯ জন


এ জাতীয় গল্প

→ স্মৃতির ক্যানভাসে নূতন খয়েরতলা স্কুল
→ স্কুল লাইফের প্রেম কাহিনি
→ স্কুল জীবনের প্রেম part ০২
→ স্কুল জীবনের প্রেম part ০১
→ তপুর হাইস্কুল জিবন (পার্ট_১)
→ স্কুলজীবনে স্যারকে নিয়ে কিছু মজার অভিজ্ঞতা।
→ একদিন, স্কুলের শেষে!!!!!!
→ স্কুল লাইফের পরীক্ষা বনাম ভার্সিটি লাইফের পরীক্ষা
→ কলেজ লাইফের প্রেম ( পর্ব ৩)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...