গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !
জিজে রাইটারদের জন্য সুঃখবর ! এবারের বই মেলায় আমরা জিজের গল্পের বই বের করতেছি ! আর সেই বইয়ে থাকবে আপনাদের লেখা দেওয়ার সুযোগ! থাকবে লেখক লিস্টে নামও ! খুব তারাতারি আমাদের লেখা নির্বাচন কার্যক্রম শুরু হবে

গল্পেরঝুড়িতে স্বাগতম ...

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

স্বপ্নের ডাইনী

"মজার গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Prachi (০ পয়েন্ট)



অসুস্থ শরীর নিয়ে অফিস থেকে বাড়ি ফিরে ফ্রেশ না হয়েই নাস্তা করে ঘুমিয়ে পরল আদ্রীত। হঠাৎ শোনতে পেল কে জানি তাকে ডাকছে ।চোখ বুজে রেখেছো কেন আদ্রীত?তাকাও, তাকাও না। কি হৈল তাআআকাউউ... আদ্রীত চোখ খুলতেই দেখল একটা ডাইনী হামানদিস্তায় পয়সা আর মরিচ গুঁড়া কর‌ছে।ডাইনী যখন টের পেল আদ্রীত তার দিকে তাকিয়ে আছে তখনই আদ্রীতের কাছে গিয়ে হামানদিস্তার পয়সা আর মরিচ গুড়ার সাথে বিষ মিশিয়ে বলল আক্কর আইজ্জা তোরে বিষ খাওয়াইয়া মারবাম।আদ্রীত আশ্চর্য হয়ে ভাবলো ধুর কোনো স্বপ্ন হবে। কিন্তু পরিস্থিতি দেখেতো স্বপ্ন মনে হয় না।ডাইনী বলল ওই তুই আমারে সামনে রাইখা কি ভাবতাসোস? খাইবিনাতো দারা‌ দেহাইতাসি মযা বলে ডাইনী নিজেই বিষের রেসিপি টা খেয়ে ফেলল। কিছুক্ষণ পর আদ্রীতের মুখে বমি করে বিষের রেসিপি তাকে খাওয়ায় দিল। বিষ খাওয়ার পর আদ্রীতের সারা শরীর নীল হয়ে গেলো কিন্ত এই বিষটার কাজ ছিল শুধু শরীর নীল করা তার কারনে ডাইনী বুঝতে পারে নি যে আদ্রীত বেঁচে আছে। ডাইনী আদ্রীত এর চারপাশে ঘুরে ঘুরে নাচতে লাগলো।ইয়েএ কি মযাআআ শালার বেটা রে মারতে পেরেছি। আদ্রীত একটু চোখ খুলে আবার বন্ধ করে ফেলে। হঠাৎ করে ডাইনীর চোখে আদ্রীত ধরা পরে গেল। ডাইনী হুংকার দিয়ে তার জাদুর আয়নার কাছে গিয়ে বলল শালার বেটা রে না মাইরা ফালাইসি আবার জেন্তা হৈলো কেমনে? আয়না থেকে কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে গাইনী ঘুষি মেরে আয়না ভেঙে ফেলল পরে একটা বদনা ফাটিয়ে তার এক চামচাকে বের করল।বল আমি ওরে মারতে পারি নাই কেনো? চামচা বলল হেইয়্যা মুই কিয়া যানি?gj যানশ না মানে এই বলে ডাইনী তার চামচাকে চড় মেরে আবার বদনাতে ঢুকিয়ে দিল। এটা দেখে আদ্রীত হাসতে হাসতে ঘুম থেকে জেগে উঠলো। এতক্ষণ যা যা ঘটলো সব তার স্বপ্ন ছিল। পাশে ফিরে দেখলো তার বেস্ট ফ্রেন্ড সোহান একটা বাচ্চাকে গল্প শোনাচ্ছে। বুঝতে আর বাকী থাকল না কেন এই স্বপ্ন দখল সে...আদ্রীত: কিরে বাচ্চাটা কে? সোহান: আমার বোন। আদ্রীত:! ও তোর বোন gj? সোহান: হুম। আদ্রীত: ওর বয়স কত যে তুই ওকে গল্প শোনাচ্ছিস?angry সোহান: গতকালকে রাতে হৈসে বলে সোহান হাসতে লাগলো। বন্ধুরা আসসালামুআলাইকুম...আশা করি সবাই ভাল আছো। গল্পে কোনো ভুল হলে কিছু মনে করো না।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৮৮ জন


এ জাতীয় গল্প

→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি(শেষ পর্ব ১৩)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি(পর্ব১২)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি(পর্ব১১)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি(পর্ব১০)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি(পর্ব৯)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি (পর্ব৮)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি(পর্ব৭)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি (পর্ব৬)
→ আমার স্বপ্নের গল্পে তুমি (পর্ব ৪)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...