বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

♦লিপস্টিক♦

"মজার গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান মফিজুল (০ পয়েন্ট)



X সেদিন আমার এক বন্ধুর সাথে মার্কেটে গেছি একটা লিপিস্টিক কিনতে।একটা লিপিস্টিক কিনতে একটা ছেলে যে এত দোকান ঘুরতে পারে জানা ছিলো না। যাই হোক অনেক দোকান দেখান পর গেলাম এক রেটের দোকানে।দোকানে ঢুকার আগেই আমি বন্ধুকে বললাম, শোনা এটা কিন্তু এক রেটের দোকান। দোকানে গিয়ে আবার ঝামেলা করিস না কিন্তু। ও আমার দিকে ভ্রু কুচকে তাকিয়ে বললো, কি ভাবিস তুই আমাকে।আমি কি এক রেটের জিনিস কিনতে পারি না। তারপর আরো গার্লফ্রেন্ডকে গির্ফট করবো।যেন তেনো জিনিস কি দেওয়া যায়। আমি ও মাথা নাড়িয়ে হ্যাঁ সম্মতি দিলাম।আসলেই তো গার্লফ্রেন্ড বলে কথা। আচ্ছা তোর গার্লফ্রেন্ড কি বলে দিয়েছে কি কালারের হবে লিপিস্টিকটা।সব দোকানেই তো শুধু ঘুরে ঘুরে দেখছিস। হ্যাঁ বলেছে।দোকানে গিয়ে কল করে নিবে। তাহলে তো বেশ ভালো।তা তুই আমাকে কেন আনলি? আরে বুঝিস না। ছেলেদের কাছ থেকে দোকানদারটা বেশি দাম নিয়ে নিবে।তারপর গার্লফ্রেন্ডকে দিব বলে কথা একটা মানসম্মানের বিষয় আছে না।তুই থাকলে দাম বেশি নিতে পারবে না। ওহ আচ্ছা।ভালো। চল তাহলে যাওয়া যাক। দোকানে ঢুকেই প্রথমে ও বলতে লজ্জা পাচ্ছিলো।আমাকে ইশারা করলো আমি যেন বলি।আমি দোকানদারকে বললাম কিছু লিপিস্টিক বের করতে। এবার বন্ধু তার মধ্য থেকে কালার পছন্দ করা শুরু করলো। লাল রং এর একটা লিপিস্টিক হাতে নিয়ে বললো, আচ্ছা দেখ তো এটা লাল রং তো। আমি মাথা নাড়িয়ে বললাম, হ্যাঁ এটা লাল রং। ভালো করে দেখ,একটু হালকা লাল নাকি ডিপ। আমি ভালো করে দেখে বললাম, এটা একটু ডিপ।মনে হচ্ছে। ও সাথে সাথে লিপিস্টিকটা রেখে আমাকে বললো,শোন বল হালকা মধ্যে একটু ডিপ রং এর দিতে। আমি ওর দিকে তাকিয়ে বললাম, হালকার মধ্যে ডিপ কিভাবে হয়। আরে হয় হয়।আমার গার্লফ্রেন্ড বলে দিয়েছে।হালকার মধ্যে একটু ডিপ হবে। আচ্ছা তুই তোর গার্লফ্রেন্ডকে কল দিয়ে ভালো করে শোন।কি রং এর নিতে বলেছে। আচ্ছা দাঁড়া আমি কল দিচ্ছি।বলেই বন্ধু ওর গার্লফ্রেন্ডকে কল করলো। ও ফোনটা ধরে আমার কাছে দিয়ে দিলো।ও কিছু বুঝতে পারছে না যাতে সহজেই আমি বুঝতে পারি তাই আর কি। ফোন ধরেই ওপাশ থেকে বলে উঠলো- "আপু লিপিস্টিকটা কিন্তু ব্রান্ডের হওয়া চাই। আর একটু হালকা লাল রং এর মধ্যে ডিপ হবে।ম্যাশ ম্যাশ কালার থাকবে। লিপে নেওয়ার পর অয়েলি যেন না হয়।ম্যাশটা একটু জ্বল জ্বল করবে।যাতে রাত্রে ব্যবহার করলে সুন্দর দেখাবে। ম্যাশের কালারটা একটু ডিপ চাই।একটু নিলেই ডিপ দেখাবে। বেশি ডিপ হওয়ার দরকার নেই তাহলে লিপের ন্যাচারাল লুকটা থাকবে না।হালকা কালার হবে তাহলে ন্যাচারাল দেখাবে।আমি আবার ন্যাচারাল থাকতে পছন্দ করি। আর শুনেন আপু, লিপিস্টিকটা কিন্তু অনেক দিন ব্যবহার করা যায় সেই ভাবে কিনবেন। হালকার মধ্যে ডিপ ডিপ কালারের লিপিস্টিক অনেক খুঁজেছি কিন্তু পাইনি।আপু মনে খেয়াল রাখবেন হালকার মধ্যে ডিপ ডিপ কালার।আর ম্যাশটা যেন হালকার মধ্যে একটু ডিপ ডিপ হয়"। কথা শেষ না হতেই ফোনটা হাত থেকে পড়ে গেলো। মাথায় হাত দিয়ে বসে আছি।আল্লাহ এটা কি লিপিস্টপ ছিলো নাকি অন্য কিছু।এত কম্বিনেশন কোথায় পাই এরা। ডিপের মধ্যে হালকা আবার হালকার মধ্যে ডিপ।সব কিছু মাথার উপর দিয়ে যাচ্ছে। আমার অবস্থা দেখে বন্ধু এক গ্লাস পানি এগিয়ে দিয়ে বললো, দোস্ত বাঁচা আমারে লিপিস্টিক না কিনে দিলে রিলেশন রাখবে না বলছে। কিন্তু তার পছন্দ মতো লিপিস্টিক আমি কোথায় খুঁজে পায়নি।তাই তোকে নিয়ে আসছি।একটা ব্যবস্থা কর এবার। পানিটুকু খেয়ে একটা দশ টাকার কালো রং এর লিপিস্টিক দিয়ে বললাম, গার্লফ্রেন্ডকে বলবি এটা ফ্রান্সের লিপিস্টিক।একবার নিলে আর নেওয়া লাগবে না।সে যা যা বলেছিলো তার সমস্ত কিছুই এই লিপিস্টিকটার মধ্যে আছে। অনেক খোঁজার পর পাওয়া গেছে। বন্ধু লিপিস্টিকটা হাতে নিয়ে একটা হাসি দিয়ে বললো,বাঁচালি আমাকে। আমিও একটা হাসি দিয়ে মনে মনে বললাম, হ্যাঁ আগে নিয়ে তো সামনে যা তারপর বুঝিস ঠ্যালা। #লিপিস্টিক #রম্যগল্প Sadia Afrin Laboni


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৬২৬ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...