বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

ডা.জাকির প্রসঙ্গ।(জানতে হলে পড়তে হবে)

"জীবনের গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান বইপোকা(S.A) (guest) (৮ পয়েন্ট)



X [পুরোটা না পড়ে মন্তব্য করবেন না।] জাকির নায়েক হচ্ছে বর্তমান পৃথিবীর অশান্তির মূল..! . তার জন্যই মুসলিম রা আজ বড় অশান্তিতে..! . কি অবাক হচ্ছেন তাই না..? . তাহলে তার অশান্তি ছড়িয়ে দেয়ার কিছু প্রমান বা নমুনা দেখুন... . => ★ জাকির নায়েক বলে চার মাজহাবের নামে চার দলে বিভক্ত না হয়ে বা হানাফী, মালেকি, শাফেয়ী এভাবে নিজেদের ভাগ ভাগ না করে কিংবা সালাফী, আহলে হাদীস, সুন্নী, ব্রেলভী এভাবে বিভক্ত না হয়ে একটি মাত্র নামে নিজেকে পরিচয় দিতে যাতে ইসলাম ধর্মাবলম্বী সকল মানুষের মাঝে একতা থাকে। আর সেই পরিচয় টা হলো মুসলিম..! . তিনি কথায় কথায় কুর-আনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন.... "আল্লাহ পাক বলেন .. " আর তোমরা সকলে আল্লাহর রজ্জুকে সুদৃঢ় হস্তে ধারণ কর; পরস্পর বিচ্ছিন্ন হয়ো না। " (সুরা ইমরান : ১০৩) . তিনি আরো উদ্ধৃতি দিতে গিয়ে একটি আয়াত বলেন..... "আর কে হতে পারে বক্তব্যে তার চাইতে উত্তম? যে (মানুষকে) আল্লাহর পথে আহ্বান করে আর যাবতীয় জীবন কর্ম যেভাবে আল্লাহ করতে বলেছেন সেভাবে করে এবং বলে আমি মুসলিম ..! →(৪১:৩৩)। . নিজেকে শুধু মুসলিম বলে পরিচয় দিতে বলাটা আসলেই তো বড় অশান্তির বিষয়..! . => ★ জাকির নায়েক আরো বলেছেন.. মিলাদ পড়া যাবে না.. মিলাদ পড়া বিদায়াহ..! কোনো সাহাবা কেরাম প্রচলিত নিয়মে মিলাদ পড়েন নি.. . এটাও তো বড় অশান্তির বিষয়..! মুসলিমদের কে শান্তিমত একটু মিলাদ গাইতেও দিচ্ছে না..! . => ★ জাকির নায়েক আরো বলেন... কোনো পীর পূজা বা মাজার পূজা না করতে.. কোনো পীরের কাছে তো দূরে থাক এমনকি রাসুল (সাঃ) এর কাছে কোনো কিছু না চাইতে.. যা কিছু চাওয়ার সেটা সরাসরি আল্লাহর কাছে চাইতে হবে.. কোনো পীর কে ওয়াসিলা হিসেবে গ্রহণ করা যাবে না..! . আচ্ছা আপনারাই বলেন দেখি.. পীরের কাছে না গেলে কি শান্তি লাগে..? পীরের হাতে পায়ে চুমা না খাইলে কি শান্তি লাগে..? তাকে দুই একটা সিজদাহ না করলে কিভাবে হয়..?? এটা তো বড় অশান্তির বিষয়.. . => ★ জাকির নায়েক বলেছেন... কোর-আন এবং সহীহ হাদীস মেনে চলতে... এটাও তো বড় অশান্তির বিষয়... জাল হাদীস না মেনে চললে শান্তি পাবো কিভাবে..? . => ★ জাকির নায়েকের লেকচার শুনে হাজার হাজার অমুসলিম এবং শত শত নাস্তিক মুসলিম হচ্ছে.... অথচ আমাদের পীর বাবাগো কাছে অমুসলিম কিংবা নাস্তিক রা মুসলিম হচ্ছে না.. . এটা তো আরো বড় অশান্তি..! . . => ★ জর্জ উইলিয়াম ক্যাম্পবেল যখন কোর-আনের ভিতর অসংখ্য ভুল আছে বলে একটা বই বের করে পুরা মুসলিম জাতিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিলো.. . তখন সমস্ত মুসলিম জাতির কেউ তো তার মোকাবেলা করার দুঃসাহস দেখায় নি... অথচ জাকির নায়েকের এত বড় সাহস যে সেই ক্যাম্পবেল এর সাথে যুক্তি তর্ক করে কোর-আন কে নির্ভুল প্রমান করে ঐ খৃষ্টান পাদ্রীর মুখে চুন কালি মাখিয়ে স্টেজ থেকে বিদায় করে দিলো আর সাথে সাথে তখন বাইবেলের অসংখ্য ভুল বের করে খৃষ্টান জাতিকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলো... এর চেয়ে বড় অশান্তিজনক আর কিছু আছে কি..?? . ★★★★ . জাকির নায়েক এভাবে সমাজে অশান্তি ডেকে আনলে তো হবে না... এজন্য আমরা ডা: জাকির নায়েক এর জন্য কোর্ট, টাই পড়া স্পেশাল বা উনার জন্য ব্যক্তিগত হারাম- করে দিয়েছি..! . উনার আগে মুসলিম রা যখন কোর্ট কিংবা প্যান্ট অথবা টাই, শার্ট ব্যবহার করতো তখন সেগুলো জায়েজ ছিলো.. কিন্ত এখন থেকে শুধুমাত্র ডাঃ জাকির নায়েকের জন্য উক্ত পোশাক গুলো হারাম..! বাহ চমৎকার সুবিধা বাদি তো,,, . অথচ আমরা পরলে কোন সমস্যা নাই। . => ★ ডাঃজাকির নায়েক কোর্ট, টাই পরে..! টাই ইহুদি খ্রিষ্টান দের বানানো পোশাক, এজন্য ডাঃ জাকির নায়েক হচ্ছে ইহুদিদের দালাল, . আর আমরা খৃষ্টানদের আবিষ্কার দাত ব্রাশ করার টুথপেস্টটাও ব্যবহার করি , খৃষ্টানদের আবিষ্কার করা গাড়ি উড়োজাহাজ ইত্যাদি ব্যবহার করি কিন্তু তাতে সমস্যা নাই। . => ★ ডা: জাকির নায়েক কুরান পড়তে জানেনা, সে দ্রুত কুরান পড়ে, তার উচ্চারণে মাঝে মাঝে ত্রুটি হয়ে থাকে... . --আর আমরা রমজানের সময় তারাবিহের নামাযে থ্রি-জি স্পিডে কুরান পড়ি, এতে কোন সমস্যা নাই। কারন আমরা তো জ্ঞানী আলেমগন। ---আরে আমার নিজ ভায়ের মুখ থেকে শুনছি মসজিদ এ হুজুর পড়ানোর সময় উচ্চারনে সঠিক বলেনা।অনেক ভুল পড়ান। আমি বললাম কেউ লোকমা দেয়না।সে বলে না।কারন ওনি হলেন এলাকার নাম করা বড় আলেম।আমি বললাম ভাই তুই হলেও ভুল ধরিয়ে দিস। সে হাফেজ হয়েছে।তবে বেশি দিন হয়নি বয়সও কম। সে বলে কেনো আমার চেয়ে বড় আলেমগন থাকতে আমি কেনো! এভাবে চলছে আমাদের জ্ঞানী সমাজ। আফসোস! . . সারকথাঃ দুনিয়া এগিয়ে যায়, ,ইসলাম ও এগিয়ে যায়,সাথে সাথে ডা: জাকির নায়েকের দাওয়াতি কাজ ও এগিয়ে চলেছে তার আপন গতিতে.... শুধু আমরা কয়েকজন হক্কানী পীরের মুরিদরা তার কোর্ট, টাই ধরে লটকে থাকি। [কালেক্টেড]


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৬৩৭ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...