বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

প্রতিশোধ

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Asif islam jibon (০ পয়েন্ট)



X প্রতিশোধ পর্ব ::: :-- ২ Writer : Asif islam jibon নীল ঃঃঃ রিফাত অই মেয়ে সব খবর এনে দিবি আমার।প্রতিটা সেকেন্ডের খবর এনে দিবি। রিফাত ওকে নীলঃ আচ্চা শুন রিফাত ঃবল নীল ঃ তোকে কিন্তু আমার এই plan help করতে হবে রিফাত ঃঃ আমার সাধ্য মত চেষ্টা করব নীল ঃআচ্চা , তুই এখন যা!পরে সময় মত দরকার হলো ডেকে নিব এভাবে কিছুদিন চলে যায় রিফাত ঃ নীল নীল ঃ কোন খবর আনতে পেরেছিস রিফাত ঃ হুম রিফাত ঃ আজকে যে একটা ফাংশানে Attend করবি তুই। এটা আলিশা কলেজে হচ্ছে। আলিশা সেই কলেজে পড়ে । অই ফাংশানে তোকে প্রধান অতিথি করেছে। নীলঃঃ তাহলে তো আমার কাজটা আরো সহজ হয়ে যাবে। রিফাত ঃহুম নীলঃঃওই ফাংশান টা কি উপলক্ষে করা হয়েছে রিফাতঃঃ আজকে ইন্টার ফাইনাল যারা দিয়েছে তাদের মধ্যে ১০জনকে বাছাই করা হবে। আর যাদের মেধা তালিকায় নাম উঠবে তাদের পুরষ্কার দেওয়া হবে নীলঃ ফাংশান কখন শুরু হবে রিফাত ঃ সন্ধ্যা ৬.০০ নীল ঃ ওকে তুই রেডি হয়ে থাকিস আর ওখান থেকে রিফাত চলে যায়। _ মিসেস আলিশা তৈরি থেকে আমি আসতে ছি(নীল) সাথী ঃ কিরে তিথি তুই এখন আলিশাকে ফোন করছ নাই(আলিশা বেস্ট ফ্রেন্ড দুজনে) তিথিঃ না সাথী ঃ আচ্ছা এখন ফোন দিয়ে দেখতো। কোথায় আছে ও তিথিঃ ফোন কানে দিয়ে) আরে ও তো ফোন ধরছে না সাথী ঃ ও তিথি ঃ আমার মনে হয় আসসবে না সাথী ঃ তিথি অই দেখ তিথিপিছন পিরে অবাক হয়। সাথী আমি এই কাকে দেখছি। ভুত নয় তো _আরে তুই ঠিক দেখলি আমি আলিশা ( তিথি সামনে আসে আলিশা এতা বলে) সাথি&তিথি ঃ তুই বললি তুই শাড়ি পড়বি না। তো এখন আলিশা ঃ আসলে তোরা এতো করে request করলি আর। ভাবি ও আমায় জোর করে শাড়ি পড়িয়ে দিল তিথিঃ আগে একটু তোকে দেখেনি ভালে করে _পা থেকে মাথা আবধি দেখে তিথি বলে তোকে আজকে যে ছেলে দেখবে চোখ সরাতে পারবে না আলিশা ঃ এভাবে হা করে কি দেখছ সাথী ঃ তোকে আলিশাঃ আমার দেখার কি আছে সাথী &তিথি আমার তো তোকে চিনতে পারি নাই আলিশা ঃতাই সাথী হুম। গোল্ডেন কালারে শাড়ি অনেক সুন্দর লাগতেছে আলিশা ঃ শুধু কি আমায় সুন্দর লাগে।,তোদের দুটো কে আরো বেশি সুন্দর লাগতেছে আজ সব ছেলেরা ক্রাশ খাবে তোদের উপরে তিথি ঃ আলিশা জানিস কে আসবে আজকে ফাংশানে আলিশা ঃ জানি না সাথী ঃ জানবি কি করে তুই তিথিঃ বাংলাদেশের টপ বিজনেসম্যান নিলাভ্র চৌধুরী। ফাংশানে প্রাধান অতিথি। যেমন হ্যান্ডসাম তেমন তার বডি। সব মেয়েরা তার উপরে ক্রাশ খায়।।কিন্তু উনি কাউকে পাত্তাই দেয় না আলিশা ঃ আমি আজকে দেখব। সব মেয়েরা কি এমন দেখছে অই ছেলের ভিতরে সবাই ক্রাশ খায় সাথী ঃ বেশি দেখেতে যাই না। পরে দেখা যাবে তুই এই ছেলে প্রেম হাবুডুবু খাচ _সাথি কথা সুনে তিথি ও হাসা শুরু করে দেয়। আলিশা ঃ তোরা দামবি। নাকি আমি চলে যাব তিথি ঃ আরে রাগ করছ কেন? আমরা শয়তানি করে বলছি সাথি ঃ আলিশা স্যার বলেছে নিলাভ্র চোধুরী কে স্পেশাল ভাবে স্বাগত জানাতে।আর কি বলেছে জানিস আলিশাঃ কি? তিথি ঃ বলছে উনি যখন আসবে উনার গায়ে ফুলের পাঁপড়ি ছিটাতে হবে সাথী ঃ আলিশা আমদের কে মেডাম ডাকতেছে ওই দিকে যাওয়া জন্য তিথি ঃ চল আলিশা ঃ মেডাম আমদের কি আপনি ডেকেছেন মেডাম ঃ তোমার তো জানো আজকে কে আসবে। প্রিন্সিপ্যাল স্যার বলেছে যাতে উনাকে স্বাগত জানানো জন্য কোনো কিছু যেন ক্রুটি না থাকে আমরা ঃ জি মেডাম মেডাম ঃ মনে হয় উনি চলে আসছে।এগুলো তোমরা ধরো।এগুলো সবাই কে দেওয়া হয়ে গেছে। উনি এখুনি চলে আসবে। এগগুলো নিয়ে ওখানে দাড়াও _আমরা মেডাম হাত তিনজন তিনটা ফুলের পাপড়ি থালা নিলাম। এগুলো নিয়ে আমরা সবার কাছে চলে আসলাম _আমারা ফুলের থালা নিয়ে সবার সাথে দাঁড়িয়ে রইলাম মেডাম ঃ তোমরা সবাই রেডি তো সবাই একক সাথে চিৎকার করে বলে। জি মেডাম মেডাম ঃ এখুনি চলে আসবে নিলাভ্র চৌধুরী আসার সাথে সাথে সবাই ফুল ছিটিয়ে স্বাগত জানায় আর আলিশা হা করে তাকিয়ে থাকে সাথী :::::::::ei আলিশা কি করছিস। সাথী কথা আললিশা হুস ফিরে _আলিশা সবার সাথে ফুল পাপড়ি ছিটায়। আর নীল আসতে আসতে আলিশা সামনে আসে দাঁড়ায় । রিফাত নীলের কাছে ফিসফিস করে বলে এটা সেই মেয়ে। যার নাম আলিশা।নীল আলিশা কে এক নজর দেখে সামনে এগিয়ে যায় প্রিন্সিপ্যাল ঃআসুন আসুন। মিস্টার নিলাভ্র চৌধুরি। আপনাকে স্বাগতম। স্যার নিলাভ্র হাতে ফুলে বুকি স্বাগন জানায় _ নিলাভ্র সেই ফুলের বুকি টি রিফাত হাতে দিয়ে হনহন করে হেটে চলে যায় সামনে দিকে। _আর আলিশা নিলাভ্র যাওয়া দিকে তাকিয়ে থাকে। সাথি& তিথি। ঃ এই আলিশা আলিশা ঃ হুম ( অন্যমনস্ক হয়ে বলে) _তারপর সাথী &তিথি জোড়ে ডাকাতে আলিশা হুস পিড়ে সাথী ঃ আচ্চা আলিশা তখন উনি এভাবে তোর দিকে তাকালে কেন? আলিশা ঃ কে! জানে তিথি ঃ আমি জানি,, আলিশা & তিথি ঃ কি জানছ তিথি ঃ আমার মনে হয় উনি আজকে আলিশাকে দেখে ফিদা হয়েগেছে। আর আলিশা তো উনার দিক্র যে ভাবে ড্যাবড্যাব করে দেখছিল আলিশা।ঃ তোরা ও না। কি সবব উল্টা পাল্টা ভাবছ। যত সব _এটা বলে আলিশা হন হন হন করে ভিতরে চলে যায়। আরর সাথি &তিথি আলিশা আলিশা বলে চিৎকার করে। _আলিশা ঃ সত্যি তো। ওরা ভুল কিছু বলে নাই। তারপর সাথী & তিথি দৌড়ে আসেসে । সাথী ঃ কিরে কই যাস । আলিশা ঃভিতরে যাব তিথি ঃ চল আমরা যাব আলিশা ঃ তাহলে চল আচ্ছা আমি গল্পটা কোন শ্রেনীতে দিবো ঠীক বুঝতেছি না ???? আপনাদের মন্তব্য ছাড়া গল্প মূল্যহীন ভুল হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন ????


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৬৩৮ জন


এ জাতীয় গল্প

→ প্রতিশোধ
→ প্রকৃতির প্রতিশোধ
→ অমায়িক প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রকৃতির প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ -১
→ "প্রতিশোধ"
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...