বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

তোমার বোরকা পড়া দরকার ছিল

"ইসলামিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান সাদমান আল সিয়াম(guest) (৩৭ পয়েন্ট)



X গল্পঃ#তোমার বোরখা পরা দরকার ছিল। লেখক:সাদমান আল সিয়াম #১ম পর্ব আমার এক কাজিন ছিল যার নাম (আদিবা জান্নাত আইরিন)সে ইস্কুলে পড়ত আর খুব সাজগুজ করত।আমি তাদের বাসাতে কম যেতাম।কারণ তাকে দেখে আমার খুব খারাপ লাগতো।তার সাথে যখনি আমার দেখা হত তখন সালাম দিয়ে শুধু বলতাম বোরখা ছাড়া আমার সামনে যেন না আসে।কারন আমার তাকে দেখা জায়েজ নেই।তার সাথে আমার বিবাহ চলে।তাই তাকে পর্দা কথা বলতাম আর তাদের বাসায় যখন যেতাম তথন তার জন্য আদর্শ নারী মার্সিক পত্রিকা নিতাম ।আমি কথনো তার দিকে তাকিয়ে কথা বলতাম না।হঠাৎ একদিন আমার ফুফা(মানে আদিবার বাবা) কল দেন আমি কুশলইদি জানতে চাইলাম।তিনি জানালেন সন্ধা ৭টা বেজে গেছে আদিবা এখনো ঘরে আসেনি।আদিবারা দুই ভাইবোন আর আদিবা বড়।আমি ফুফাকে বললাম আমি দেখতাছি আপনি আদিবাকে কল দিন।ফুফা বলল আদিবা নাকি বাসায় মোবাইল রাইখা গেছে।আসলে আদিবা বিকাল ৪টার সময় এক জায়গায় পড়তে যায়।তাদের বাসা হতে একটু দূরে ।ও একটা উসরিংক্ষল মেয়ে করো কথা শুনেনা।আমি আম্মাকে বলে আদিবাকে খোঁজতে বের হলাম।১ ঘন্টা খোঁজার পর তাকে না পেয়ে থানায় গেলাম।আমার এক কাজিন ছিল যার নাম (আদিবা জান্নাত আইরিন)সে ইস্কুলে পড়ত আর খুব সাজগুজ করত।আমি তাদের বাসাতে কম যেতাম।কারণ তাকে দেখে আমার খুব খারাপ লাগতো।তার সাথে যখনি আমার দেখা হত তখন সালাম দিয়ে শুধু বলতাম বোরখা ছাড়া আমার সামনে যেন না আসে।কারন আমার তাকে দেখা জায়েজ নেই।তার সাথে আমার বিবাহ চলে।তাই তাকে পর্দা কথা বলতাম আর তাদের বাসায় যখন যেতাম তথন তার জন্য আদর্শ নারী মার্সিক পত্রিকা নিতাম ।আমি কথনো তার দিকে তাকিয়ে কথা বলতাম না।হঠাৎ একদিন আমার ফুফা(মানে আদিবার বাবা) কল দেন আমি কুশলইদি জানতে চাইলাম।তিনি জানালেন সন্ধা ৭টা বেজে গেছে আদিবা এখনো ঘরে আসেনি।আদিবারা দুই ভাইবোন আর আদিবা বড়।আমি ফুফাকে বললাম আমি দেখতাছি আপনি আদিবাকে কল দিন।ফুফা বলল আদিবা নাকি বাসায় মোবাইল রাইখা গেছে।আসলে আদিবা বিকাল ৪টার সময় এক জায়গায় পড়তে যায়।তাদের বাসা হতে একটু দূরে ।ও একটা উসরিংক্ষল মেয়ে করো কথা শুনেনা।আমি আম্মাকে বলে আদিবাকে খোঁজতে বের হলাম।১ ঘন্টা খোঁজার পর তাকে না পেয়ে থানায় গেলাম।।।।।।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৮৫২ জন


এ জাতীয় গল্প

→ তোমার বোরকা পড়া দরকার ছিল

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...