গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !
জিজে রাইটারদের জন্য সুঃখবর ! এবারের বই মেলায় আমরা জিজের গল্পের বই বের করতেছি ! আর সেই বইয়ে থাকবে আপনাদের লেখা দেওয়ার সুযোগ! থাকবে লেখক লিস্টে নামও ! খুব তারাতারি আমাদের লেখা নির্বাচন কার্যক্রম শুরু হবে

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

♥রং-রোড♥ পর্ব-দ্বিতীয়

"ফ্যান্টাসি" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান =_= (৭ পয়েন্ট)



★রং-রোড★ লেখাঃ- রিয়াদুল ইসলাম রূপচাঁন উৎসর্গঃ- স্বপ্নকন্যা কবিতা। চারদিন পর.......... হঠাৎ করেই রাতে আমার ফোনটা বেজে উঠলো! ভয় পেয়ে গেলাম টোনের শব্দে.... এত রাতে কোন শালা আমাকে চমকিয়ে দিলো! হ্যালো..আসসালামু-আলাইকুম!(আমি) ওয়ালাইকুম সালাম (মেয়ে কন্ঠ) কেমন আছেন? (মেয়ে) জ্বি ভালো..কিন্তু কে আপনি?(আমি) ঐ আপনি এমন কেন? বললাম কেমন আছেন আর আমাকে বলতে পারতেন আমি কেমন আছি!(একটু রেগে) আমি তো আপনাকে চিনিনা..আর তাই! (আমি) তাই নাকি? আমাকে চিনেন না হাতি কোথাকার! (মেয়ে) *****হাতি বলতেই বুঝে গেলাম ওটা কবিতা! কি মায়াবী কন্ঠ! যেমন রূপ, তেমন তার কন্ঠটাও! আমি হাসতে লাগলাম** এবার চিনতে পারছেন?(মেয়ে) হুম! #কেমন আছেন? *হুম ভালো! #এতরাতে কি মনে করে? *ঐ আমি ফোন দিছি আপনার কি প্রবলেম? #না, তা না..আসলে এত রাতে! আর নাম্বার কিভাবে পেলেন? *হিহিহি...নাম্বারটাও রেখেছি আর সাথে আরেকটা জিনিস! #কি? কি জিনিস? বলেন? *না...আচ্ছা বাই #এই লাইন কাটবেন না... লাইনটা কেটে দিলো........ আমি আমার ম্যানিব্যাগটা চেক করলাম দেখি আমার একটা ছবি মিসিং! তাই ভালোই লাগছিলো যে,কেউ আমার ছবিটাও রেখেছে! কবিতাকে ফোন দিবো কিনা ভাবছিলাম! কিন্তু দিলাম না....এত রাতে ডিস্টার্ব করা আমার কাম্য নয়! হ্যাপি মুডে দারুণ একটা ঘুম দিলাম.. রাত্রি তখন ৩টা ............ ঘুম ভাঙার পর দেখি ১১ঃ৩০টা বাজে.... আমার তো মাথায় হাত! কি করবো? কি করবো? ধুরররর কিছুই করবো না... মনটাই খারাপ হয়ে গেলো....বসকে কি জবাব দেবো! যাই-হোক গোসল করে ফ্রেশ হলাম.... নাস্তা শেষ হতেই ১২ঃ২৫ বাজে তখন... বসকে কিছু একটা বলে ম্যানেজ করতে হবে! তাই ফোন দিলাম........ টু টু টু ট্রুট... ধরছে ই না... মনে হয় খুব রেগে আছে! ৫ম বারে রিসিভ করলো..... বসঃ- রূপচাঁন তোমাকে আর আসতে হবে না। # (আমি তো ভয় পেয়ে জেলা গেলাম। চাকরিটা গেলো। ) বস প্লীজ প্লীজ বুঝার চেষ্টা করুন। আমি ইচ্ছে করে দেড়ি করিনি। বসঃ- আরে আমি যে কাজের জন্য তোমাকে আজ তাড়াতাড়ি আসতে বলেছিলাম । সেই কাজটা দুইদিন পরে হবে। আর তোমাকে তো আমি অনেক বিশ্বাস করি, এতদিনেও আমাকে চিনলেনা? আমিঃ- বস আসলে একটা মজার ঘটণা ঘটে গেছে তাই ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। (হাসি মুখে) বসঃ- ওয়াও! কি ঘটণা? আমিঃ- কালকে অফিসে এসে সব বলবো। বসঃ- ওকে। টেক কেয়ার। আমিঃ- জ্বি বস ভালো থাকবেন। আহা! কি আনন্দ ? আকাশে বাতাসে। আমি তো তখনই গান গাওয়া শুরু করে দিলাম। মন যে করে উড়ু উড়ু হিহিহিহি ☺ ☺ ☺ ☺ । আমি বিছানায় গিয়ে পোশাক পরিবর্তন করে একটা গেঞ্জি আর জিন্স প্যান্ট পড়লাম। মোবাইলটা হাতে নিয়ে ফানি ভিডিও দেখছি আর হাসছিলাম। এবারো ফোনটা বেজে উঠলো। ফোন আর কারোর না.. মায়াবতী পরী কবিতার। আহ্ আজকে দিন টাই পুরো চাঙ্গা। কার মুখ দেখে যে উঠলাম। ধুররর কার মুখ দেখবো। আমি তো ব্যাচেলর। যাই হোক ফোনটা ধরলাম। আমিঃ- হ্যালো আসসালামু আলাইকুম । কবিতাঃ- ওয়ালাইকুম সালাম। আমিঃ- কেমন আছেন ? কবিতাঃ- ভালো নেই। আমিঃ- কেন কেন? কি হয়েছে ? কবিতাঃ- কিছু না। আমিঃ- প্লীজ বলুন না কি হয়েছে ? কবিতাঃ- আপনাকে বারবার মনে পড়ছিলো! (লজ্জায় মৃদুস্বরে) আমিঃ- হিহিহি ☺ হেসে ফেললাম। ভালোই তো ফোন দিবেন যখন মন চাইবে। কবিতাঃ- জ্বি না মি. কুদ্দুস। আমিঃ- কেন কেন? কবিতাঃ- আমাকে একটাবারও মনেই করলেন না। আর আমি আপনাকে ফোন দিবো ইমপজিবল! আমিঃ- সরি! কবিতাঃ- বাই কুদ্দুস! আপনার সাথে আড়ি! ★ফোন কেটে দিলো ★ আমি কলব্যাক করলাম... ধরলো না। আর ২-৩বার তবুও ধরলো না। আমার মাথায় বুদ্ধি এলো। আমি ট্যাক্সট করলাম...... "মেয়ে আপনি অনেক সুন্দর... যাইনা তুলনা করা, কন্ঠ তেমনি মিষ্টি আহা! আমি যে দিশেহারা! আপনার চোখ কথা বলে... আমি শুনতে পাই, সেই কথারই উত্তর দেবো... এখন পাচ্ছি না কোনো উপায় ") কবিতার ফোন এলো... আমি খুশিতে ঘাটেই এক লাফ! মোবাইলটা ফ্লোরে পড়ে গেলো! ধুররর কপাল গেলো মনে হয়। তাড়াতাড়ি ফোনটা উঠালাম, নাহ তেমন কিছু হয়নি গরিলা বিচূর্ণ । হোক গে! ফোনটা ধরলাম না। কবিতা মনে হয় রেগে গেলো। দ্রুত ফোন দিলাম.... রিসিভ করলো... কবিতাঃ- বলেন কি বলবেন? আমিঃ- কিছু বলবোনা, তবে আপনার কন্ঠ শুনবো! কবিতাঃ- আপনি একটা কুদ্দুস ! (রেগে) আমিঃ- আরে আমি কুদ্দুস না, আমি রূপচাঁন। কবিতাঃ- চোখ কি বলে বলতে পারলেন নাতো। আমিঃ- চোখ আপনার বলে " আমাকে দেখতে চাই "! কবিতাঃ- তো দেখা দিন। আমিঃ- ওকে ঠিকানা টা দিন। কবিতাঃ- এখনি আসতে পারলে দিবো। কি পারবেন? আমিঃ- হুমমম এখনি আসবো। দেন। " এরপর কবিতা তার ঠিকানা জানালো! ভাবলো আমি আসবোনা। " আমি রেডি হলাম আর বললাম ৩০মিনিট অপেক্ষা করুন আমি আসতেছি! কবিতাঃ- হুমমম আসুন তাড়াতাড়ি , আপনার জন্য স্পেশাল বার্গার বানাবো ২০মিনিটেই। আমিঃ- আচ্ছা আসছি। এরপর আমি আমার ফ্রেন্ড আতিককে ফোন দিলাম! আমিঃ- বন্ধু তুই কই? আতিকঃ- ধোপাঘাট ব্রীজে! আমিঃ- ২মিনিটে আমার কাছে আয় জরুরী দরকার। আমি যেখানে থাকি.... সেখান থেকে ধোপাঘাট বেশি দূর নয়। তাই ২মিনিটেই আতিক হাজির। ও হয়তো অন্যকিছু ভেবেছিলো।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৪৫৩ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...