বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

অবহেলার পরিনতি পর্ব: ২

"জীবনের গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান ⏩المامون ⏩ (০ পয়েন্ট)



X কিন্তুু স্যার... . __কোন কিন্তুু না , যা বলছি তাই করেন । আর প্রবলেম হলে আমাকে জানাবেন..... . অরন্যর কথা অনুযায়ী নিঝুমের হাত পায়ের শিকল খুলে দেওয়া হলো। অরন্যর গাল টেনে ধরে নিঝুম বলল,,, __বন্ধু তুমি তো খুব ভালো,আমার হাত পায়ের শিকল খুলে দিলা। তুমি কিন্তু অন্য দের মত বকতে পারবে না আমায়। . নার্সেরা রিতীমতো ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে গেল।অরন্য ও কিছু টা লজ্জাবোধ করল। লজ্জার বা কি আছে? এরা তো মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষ। . __না তোমায় বকব না,যদি তুমি আমার কথা শুনো। আর যদি তুমি আমার কথা না শুনো তাহলে তোমায় আবার বেধে রাখব। . __নিঝুম পিচ্ছিদের মতো গাল ফুলিয়ে বলল,-"প্লীজ আমায় আর বেধে রেখো না খুব কষ্ট হয়।"আমি তোমার সব কথা শুনবো। . মেয়ে টা কে একদম পিচ্ছি পিচ্ছি লাগে। কি মায়াবী চেহেরা! এমন একটা মেয়ের লাইফ টা কেমন হয়ে গেল। . __আন্টি আমি আপনার মেয়ে কে ভালো করার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। . __ডাক্তার বাবু আমায় ভালো করার চেষ্টা করবে তার মানে আমি খারাপ। . __না,না কে তোমায় খারাপ বলল? তুমি খুব ভালো একটা পিচ্ছি মেয়ে। (এসব রোগদের সাথে যত বেশী ফ্রেন্ডলি সম্পর্ক স্থাপন করা যায় তত বেশী ভালো। কারন এক মাত্র ফ্রেন্ডলি সম্পর্কের মাধ্যমে এদের আয়ত্তে আনা যায়) . __আমি তোমাকে কিন্তু ডাক্তার বাবু বলে ডাকব।"-আচ্ছা ডেকো প্রোবলেম নেই। . -ডাক্তার বাবু একটা কথা বলি বকবে না তো? . __না তোমায় আমি কখনো বকব না বলো। . __ডাক্তার বাবু তোমার গাল সুন্দর গুলুমুলু একদম বাবুদের মতো। আমি একটু তোমার গাল ধরে টানি? . নিঝুমের কথা শুনে কিছু টা বিব্রতবোধ করল অরন্য।কিন্তু কি করার? মেয়ে টা কে তো মানিয়ে রাখতে হবে।নিঝুম অরন্যর দুই গাল ধরে টানে আর বাচ্চাদের মতো খিলখিলিয়ে হাসে।একটা মানুষের হাসি এত সুন্দর হয় কিভাবে? কি পবিত্র হাসি। ডাক্তার বাবু তোমার গাল গুলো টেনে একদম লাল করে দিছি।ভালোই লাগতেছে এখন তোমায়। . __আর গাল টানতে চাইবে না নিঝুম।তাইলে কিন্তু বেধে রাখব। . __বাচ্চা দের মত হেচকি দিয়ে কেঁদে কেঁদে নিঝুম বলল, -তুমি না বলছো আর কখনো বাধবে না? . __নিঝুম কান্না থামাও আমি তোমার বন্ধু।আমি কি তোমায় বাধতে পারি বলো? . __না,না কান্না থামাবো না যদি আমায় এক্ষুনি আইসক্রীম এনে না দেও। . __এখন আইসক্রীম কোথায় পাবো? . __জানিনা কই পাও।এক্ষুনি যদি আইসক্রীম এনে না দেও তাহলে আমি কান্না থামাচ্ছি না। এ কেমন জিদ্দি মেয়ে! . __আচ্ছা আমি নার্স দের বলছি তোমার জন্য এক্ষুনি আইসক্রীম এনে দিবে। . __না নার্সরা এনে দিলে খাবো না তোমার আনতে হবে।মানে হলো তুমি আর আমি আইসক্রীমের দোকানে গিয়ে আইসক্রীম খাবো . __এই মেয়ে একটা থাপ্পর মারব । তোর এই জেদের কারনে আজ এ অবস্থা ।তুই যদি আমার একমাত্র সন্তান না হইতি অনেক আগেই গলাটিপে হত্যা করতাম । . __আন্টি প্লীজ ওরে বকবেন না ,ও তো বুঝে শুনে বলে না । . __এখন না হয় বুঝে না । ওর জন্য আমি সব হারাইছি সব । . __এ্যাআআ । আমাকে কেউ ভালোবাসে না ,আমি তো ছোট মানুষ । এমন পিচ্ছিদেরকে কী কেউ বকা দেয় । যখন হারিয়ে যাব তখন বুঝবে নে । তখন নিঝুম মা বলে কাঁদলেও শুনব না । . __আন্টি ওরে আর এসব বলে মানসিক প্রেসার দিবেন না । . __আচ্ছা ..।তোমার আইসক্রীম আমি পাঠিয়ে দিচ্ছি . __প্লীজ ডাক্তার বাবু তুমি যেও না ,তাইলে সবাই আমাকে বকা দিবে . __এমন একটা পিচ্ছিকে কেউ বকা দেয় নাকি । তোমাকে কেউ বকলে আমি তাদের বকে দিব । একদম দুষ্টমি করবে না কেমন . __বাচ্চাদের মত মাথা নাড়ালো । . কি এমন পরিস্থিতি হয়েছিল যার জন্য মেয়েটা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছে । সর্বপ্রথম আমাকে এটাই জানতে হবে । . __এই মেয়ে হা কর ,ঔষধটা খেয়ে নাও . __একদম মেয়ে মেয়ে করবে না ,আমাকে নিঝুম ডাকবে নিঝুম . __বেশি কথা না বলে হা কর (ধমক দিয়ে) . __তোমরা আমাকে ধমক দিতেছ ,বকতেছ আমি ডাক্তার বাবুর কাছে বলে দিব । তখন বুঝবে নে (বাচ্চাদের মত ঠোঁট উল্টিয়ে ) . __এহহ পাগলের ঢং দেখছ । ঢং কত ডাক্তার বাবুর কাছে বলে দিব(ব্যাঙ্গ করে) . __এ্যাআআআ ,,ডাক্তার বাবু আমাকে পাগল বলছে । তুই পাগল ,তোর চৌদ্দগোষ্টি পাগল । (জোরে চিল্লিয়ে কাদঁতেছে) . নার্সগুলো ভয়ে ওর মুখ চেপে ধরল । নিঝুম কোন উপায় না পেয়ে হাতে কামর বসিয়ে দিল । ব্যাথা পেয়ে মুখ ছেড়ে দিল . __ওরে মা গো ,ওরে আল্লাহ গো । আমারে মেরে ফেলতেছে গো.. কে কোথায় আছ গো..... . ওর কান্নায় রিতিমত ঘাবরে গেল ওরা ,,, __নিঝুম বোন তুমি খুব ভালো ,একটা লক্ষ্মী মেয়ে । তোমাকে আর কখনো বকব না । কান্না থামাও প্লীজ । তোমাকে অনেক গুলো চকলেট দিব . __সত্যিইইই (মুহুত্বের মধ্যেই কান্না থেমে গেল ,বাচ্চাদের মত খুশিতে হাত তালি দিচ্ছে আর খিলখিলিয়ে হাসতেছে ) . __যাক বাবা তবুও কান্না থামল ,আল্লাহ বাচাঁইছে । . __চকলেট না এনে দিল আবার কান্না করবো । এ্যাআআআ . __ বইনরে তোর পা ধরি ভুলেও আর চিল্লানি দেইস না । . এর মাঝে আরো কয়েকবার এসে অরন্য দেখে গেছে ,আর কখন কোন মেডিসিন দিতে হবে । তা দেখিয়ে দিয়ে গেছে । ডিউটি শেষে অরন্য বাসায় চলে গেছে আর নিঝুকে ইনজেকশন দিয়ে ঘুম পাড়িয়ে রাখা হয়েছে.....


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৯২৯ জন


এ জাতীয় গল্প

→ #অবহেলার পরিনতি পর্ব: ৫
→ # অবহেলার পরিনতি পর্ব: ৪
→ #অবহেলার পরিনতি পর্ব: ৩
→ অবহেলার পরিনতি পর্ব: ১

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...