বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

প্রতিশোধ -১

"ক্রাইম" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Rakib Ahmed Rihan (০ পয়েন্ট)



X ফড়িং খুব সুন্দর ও নম্র মেয়ে। ছোটকালেই তার মা মারা যায়। তখন থেকে তার বাবা ই তার দুনিয়া। এক মুহূর্তও তিনার থেকে সে দূরে থাকতে পারে না। . . ফড়িং: আব্বু! রামিজ: আরে আমার মেয়েটা দেখি আমার জন্য খাবার রান্না করে এনেছে। ফড়িং: হ্যা আব্বু নেও তো খেয়ে নাও রামিজ: খেতে খেতে! আমার মেয়েটা তো খুব বড় হয়ে গেছে। এখন তো তার বিয়ে দিতে হবে। ফড়িং: শরমে! আরে আব্বু কি যে বলো, তোমাকে ছাড়া আমি কোথাও যাবো না। রামিজ: একদিন তো যেতেই হবে ফড়িং: গাল ফুলিয়ে বসে আছে! . . এভাবেই সুখে-শান্তিতে দিন কাটছিল বাবা-মেয়ের। কিন্তু হয়ত ভাগ্যের এটা স্বীকার ছিল না! এলো বড় একটা ঝড় যা ফড়িং এর জীবনকে ভেঙ্গে চুড়মুড় করে দিল নিমিষেই ,,ঝড়ের সন্ধ্যা,, ফড়িং এর খুব ভয় করছে কিন্তু কেন সে নিজেও জানে না। সারারাত বাবার অপেক্ষা করতে করতে ঘুমিয়ে পড়ল। সকালে পুলিশের ঘাড়ির শব্দে ঘুম ভেঙ্গে গেল ফড়িং এর। তাড়াতাড়ি দৌড়ে বাইরে এলো . . পুলিশ: এই যে আপনি কি ফড়িং ইলন্নাহ? আর রামিজ ইলন্নাহ কি আপনার বাবা? ফড়িং: জ্বী! আমার বাবা কোথায় বলুন না প্লিজ? পুলিশ: আমাদের সাথে চলুন! ফড়িং: কিন্তু কেন? কি হয়েছে আমার বাবার? পুলিশ: আপনার বাবা তার অফিসের বসকে খুন করেছেন। আজ তাকে আদালতে নেওয়া হবে....


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১২৫৮ জন


এ জাতীয় গল্প

→ প্রতিশোধ
→ প্রকৃতির প্রতিশোধ
→ অমায়িক প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ
→ প্রকৃতির প্রতিশোধ
→ "প্রতিশোধ"
→ প্রতিশোধ
→ প্রতিশোধ

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...