গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !
জিজে রাইটারদের জন্য সুঃখবর ! এবারের বই মেলায় আমরা জিজের গল্পের বই বের করতেছি ! আর সেই বইয়ে থাকবে আপনাদের লেখা দেওয়ার সুযোগ! থাকবে লেখক লিস্টে নামও ! খুব তারাতারি আমাদের লেখা নির্বাচন কার্যক্রম শুরু হবে

গল্পেরঝুড়িতে লেখকদের জন্য ওয়েলকাম !! যারা সত্যকারের লেখক তারা আপনাদের নিজেদের নিজস্ব গল্প সাবমিট করুন... জিজেতে যারা নিজেদের লেখা গল্প সাবমিট করবেন তাদের গল্পেরঝুড়ির রাইটার পদবী দেওয়া হবে... এজন্য সম্পুর্ন নিজের লেখা অন্তত পাচটি গল্প সাবমিট করতে হবে... এবং গল্পে পর্যাপ্ত কন্টেন্ট থাকতে হবে ...

গল্পেরঝুড়িতে লেখকদের জন্য ওয়েলকাম !! যারা সত্যকারের লেখক তারা আপনাদের নিজেদের নিজস্ব গল্প সাবমিট করুন... জিজেতে যারা নিজেদের লেখা গল্প সাবমিট করবেন তাদের গল্পেরঝুড়ির রাইটার পদবী দেওয়া হবে... এজন্য সম্পুর্ন নিজের লেখা অন্তত পাচটি গল্প সাবমিট করতে হবে... এবং গল্পে পর্যাপ্ত কন্টেন্ট থাকতে হবে ...

শেকসপিয়রের বাড়িতে

"ভ্রমণ কাহিনী" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Rakib Ahmed Rihan (০ পয়েন্ট)



পার্ট- ১ বার্মিংহাম থেকে বাসে চেপে এলাম নিউ স্ট্রিট রেলস্টেশনের গায়ে মিডল্যান্ড রোড বাস টার্মিনালে। নেমে দেখি স্ট্র্যার্টফোর্ডে যাওয়ার জন্য অপেক্ষামান যাত্রীর সংখ্যা কম নয়। দাড়িয়ে পড়লাম কিউতে। একটু পরেই আসলো লাল টুকটুকে একটি বাস। ৮৫ পেনির টিকিট কেটে জানালার ধারে গিয়ে বসলাম। বাসে উৎসাহী ছেলে-মেয়েদের ভিড়। গন্তব্য মহাকবি শেকসপিয়রের স্মৃতিতীর্থ। বার্মিংহাম থেকে বাসে একঘন্টার পথ স্ট্র্যার্টর্ফোর্ড। স্ট্র্যার্টফোর্ড পৌছে বাস-অফিসের জিম্মায় আমার তল্পিতল্পা জমা রেখে হালকা হলাম অনেকখানি। ঝকঝকে সুন্দর সকাল। আজ নাকি অনেক দিন বাধে এখানে সূর্যের মুখ দেখা গেছে। শীতের দিনে এ এক বিরল সৌভাগ্য। পথেঘাটে খুশির জোয়ার। প্রথমে এলাম সরকারি তথ্যকেন্দ্রে। পথের নিশানা বুঝে নিলাম। তারপর ভিরের স্রোতে এগিয়ে চললাম হিনলি স্ট্রিট বরাবর। পথের দুধারে দোকানিরা নানারকমের পসরা সাজিয়েছে। সেসব দেখতে দেখতে এসে হাজির হলাম মহাকবির বাসভবনের দোরগোড়ায়। এখানেও কিউ। প্রথমে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে হল। ১৫৬৪ সালে শেকসপিয়র এখানে জন্মগ্রহণ করেছিলেন ভেবে বিচিত্র এক অনুভূতির সন্ঞ্চার হচ্ছিল সারা দেহে। এই গৃহে শেকসপিয়ার এবং মা মেরি আর্ডেন ও বাবা জন থাকতেন......


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ২৭১ জন


এ জাতীয় গল্প

→ অভিশপ্ত বাড়িতে একরাত
→ নানীর বাড়িতে ঘুম
→ বিয়ে বাড়িতে
→ শেকসপিয়রের বাড়িতে
→ হাসন রাজার পুরনো বাড়িতে,,,,,,,,,,,,,,,,,,,
→ এই বাড়িতে প্রেম নিষিদ্ধ
→ এই বাড়িতে !!
→ বাবু বললেন যে,তিনি বাড়িতে নেই

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...