গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !
জিজে রাইটারদের জন্য সুঃখবর ! এবারের বই মেলায় আমরা জিজের গল্পের বই বের করতেছি ! আর সেই বইয়ে থাকবে আপনাদের লেখা দেওয়ার সুযোগ! থাকবে লেখক লিস্টে নামও ! খুব তারাতারি আমাদের লেখা নির্বাচন কার্যক্রম শুরু হবে

গল্পেরঝুড়িতে লেখকদের জন্য ওয়েলকাম !! যারা সত্যকারের লেখক তারা আপনাদের নিজেদের নিজস্ব গল্প সাবমিট করুন... জিজেতে যারা নিজেদের লেখা গল্প সাবমিট করবেন তাদের গল্পেরঝুড়ির রাইটার পদবী দেওয়া হবে... এজন্য সম্পুর্ন নিজের লেখা অন্তত পাচটি গল্প সাবমিট করতে হবে... এবং গল্পে পর্যাপ্ত কন্টেন্ট থাকতে হবে ...

গল্পেরঝুড়িতে লেখকদের জন্য ওয়েলকাম !! যারা সত্যকারের লেখক তারা আপনাদের নিজেদের নিজস্ব গল্প সাবমিট করুন... জিজেতে যারা নিজেদের লেখা গল্প সাবমিট করবেন তাদের গল্পেরঝুড়ির রাইটার পদবী দেওয়া হবে... এজন্য সম্পুর্ন নিজের লেখা অন্তত পাচটি গল্প সাবমিট করতে হবে... এবং গল্পে পর্যাপ্ত কন্টেন্ট থাকতে হবে ...

ডার্ক মেটার ( invisible matters)

"মজার গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান মেহেরাজ হাসনাইন (৩৭ পয়েন্ট)



আমাকে কে কে চিনো দেখি হাত পা তুলো তো.. gj gj হুম, অনেকই চিনবেন না, কিছুদিন আগে মাত্র একমাস জিজেতে অবস্থান করছিলাম, অনেক গল্প ও লিখেছিলাম, যদিও ওগুলা এখন ডিলিট করে দিয়েছি। ভূতে ধরেছিল , gj gj gj gj এখন আবার লিখছি কারন জিজেকে মিস করতেছিলাম, সাথে ভাই ও অপুনিদের ও । বড় আপির কথা মত আসলাম, এবার তুমি A রে ওর মাইর টা দিয়ে দিবে.. ras gj gj So, what is dark matter..?? মহাকাশে আমরা যা যা দেখতে পাই, ওই সকল বিষয় গুলাকে আমরা ভিজীবল মেটার হিসেবে চিনি । বিজ্ঞানীরা এর পর আবিষ্কার করেন । বিশেষ করে ১৯শতকের দিকে এক জন বিজ্ঞানী জান উর্ট সর্বপ্রথম ডার্ক ম্যাটার এর কথা উল্লেখ করেন । আর তার স্বিকার্যের উপর ভিত্তি করে গবেষণার মাধ্যমে আরো দুইজন বিজ্ঞানী এই সিদ্ধান্তে আসেন যে ডার্ক ম্যাটার সত্যিই বিদ্যমান । আমাদের সৌরজগতের সকল গ্রহ সূর্যকে যে শক্তিতে ঘুরছে ওই শক্তি তাদের ঘূর্ণন গতি এবং ভরের অপেক্ষায় এতটাই কম যে ওই শক্তিতে গ্রহসমূহ অর্বিটাল থেকে ছিটকে যাবার কথা। বস্তুত এমনটা হয়না, এর কারন হিসেবে তারা যুক্তি দিচ্ছে বহিঃস্থ কোনো শক্তি এদেরকে বাহির হতে কেন্দ্রের দিকে ঠেলছে । মজার বিষয় এই যে এই শক্তি এর উপস্থিতি ব্যতীত অন্যকোনো সত্যতা যাচাই সম্ভব হয়নি । কোত্থেকে যে এই শক্তি , বা এই শক্তির প্রমান হিসেবে যে কোনো ফোটন বা আলো উপস্থিত হবে তার ও কোনো প্রমান নেই। বস্তুত ব্ল্যাক হোল এর মত শক্তির উৎসে বিকিরণ এর দ্বারা এর উপস্থিতির সাক্ষ রয়েছে ,, যেখানে ডার্ক মেটার এর কোনো অবলম্বন এই নেই । তাহলে বিজ্ঞানীরা কেমনে বুঝেন যে কোথায় ডার্ক মেটার আছে..?? উত্তর , কিছুটা প্রমান আছে এই ডার্ক মেটার এর , মহাকাশে ডার্ক মেটার যে আছে এর প্রমান হিসেবে তারা গ্রেভেটিশনাল লেন্স নামক একটি পদ্ধতি দ্বারা বুঝতে পারেন,,, অনেকটা ঘনত্ত্বের ফলে কোনো উৎস থেকে আসা আলো যখন বেঁকে যায় (মাধ্যমের বিন্নতার জন্য আলো এমন ধর্ম প্রদর্শন করে যাকে আলোর প্রতিসরণ বলে ), তার দ্বারা বুঝতে পারেন মহাকাশের এই অঞ্চলে ডার্ক মেটার বিদ্যমান । আরেকটি তত্ব্য হলো, মহাকাশে ভিজিবল মেটার এর চেয়ে ডার্ক মেটার এর পরিমান অনেক অনেক বেশি। উল্লেখ্য মহাবিশ্বের প্রায় ৬৮.৫% ভরের ডার্ক ম্যাটার । বাকি ২৬.৬% দৃশ্যমান বা ভিজিবল মেটার, মনে চন্দ্র, সূর্য , গ্যালাক্সি সহ যা যা আছে আমরা দেখতে পাই । আর শেষে ৪.৯% বেরিয়নিক ভর । তাহলে শুধু এটা জানলে হয় যে কোন অঞ্চলে ডার্ক মেটার বেশি আর কোন অঞ্চলে কম । ডার্ক মেটার এর খুঁজে বিজ্ঞানী অনেক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন , এর সম্পর্কে জানতে, । কারন ডার্ক মেটার আমাদের বিজ্ঞানের অনেক সূত্রকেও হার মানতে পারে বলে বিজ্ঞানীরা ধারনা করেন, আর এমন ও হতে পারে এই ডার্ক মেটার নিয়ে অনেক তত্ব্য আমাদের নাকের ডগায় বাট আমরা উপলব্ধি করতে পারছি না । এটি অনেক মজার একটি বিষয় সেই সাথে রহস্যজনক ও বটে.. আমার জানা সমান্য তত্ব্য , ভুল থাকলে সাহায্য করবেন । ধন্যবাদ । gj gj gj


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৬০৭ জন


এ জাতীয় গল্প

→ হৃদয়ের দভন (পর্ব ২)
→ হৃদয়ের দভন(পর্ব৩)
→ হৃদয়ের দভন (পর্ব১)
→ হযরত মুসা (আঃ) এর জামানার একটি চমৎকার ঘটনা।
→ "রহস্যময়ী সেই ফোন কল"(১)
→ অনুভবে শুধু তুমি♥ (অন্তিম পর্ব)
→ অনুভবে শুধু তুমি♥ (পর্ব-১৪)
→ আফ্রিকার গল্প (সৈকত রুদ্র)
→ বি স্মার্ট উইথ মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) [এক]
→ ক্রুসেড সিরিজ (৯) ষষ্ঠ অংশ

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...