বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

ক্ষমতার বড়াই

"মজার গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান MD.Belal Hosan (১৪ পয়েন্ট)



X কুদ্দুস নতুন বিয়ে করেছে। পেশায় সে রেলওয়ে গেটম্যান। বউ বায়না ধরেছে স্বামীর অফিস দেখে তাই কুদ্দুস তার বউকে নিয়ে এসেছে কর্মস্থল দেখাতে। স্বামীর অফিস দেখে বউ মহা বিরক্ত। এটা কোনো অফিস হলো? ছোট্ট একটা ঘরে কোনো মতে বসার মতো একটা চেয়ার, ছোট্ট একটা টেবিল আর আছে একটা রেললাইন অার বাঁশ দিয়ে বানানো গেট। আরেকজন বসানোর মতো কোনো ব্যবস্থা নেই। কুদ্দুস তার বউকে শান্তভাবে নিজের চেয়ারে বসালো এবং এক দৌড়ে ঠান্ডা ম্যাঙ্গো জুস এনে তাকে মাথা ঠান্ডা করতে বলো। তারপর বউকে পটানোর জন্য বলতে লাগলো, ‘আমার অফিস ছোট হলে কি হবে, আমার কিন্তু অনেক ক্ষমতা। আমি ইশারা ছাড়া ট্রেন এক পাও এগোয় না। আমি যদি বলি চলতে তবে চলে আর যদি বলি থাম তবে থেমে থাকে’। কুদ্দুসের কথা শুনে বউ তো বেশ অবাক। সে খুশি হয়ে উঠলো তার স্বামীর ক্ষমতার কথা শুনে। তার ক্ষমতার প্রমাণ হাতেনাতে দেয়ার জন্য সে কিছুক্ষণ পর তার রেলগেটের দিকে আগত এক ট্রেন থামিয়ে দিল লাল পতাকা দেখিয়ে। তারপর খুবই গর্ব নিয়ে কুদ্দুস তার বউকে বলল, দেখেছো আমার ক্ষমতা? কত বড় একটা ট্রেন থামিয়ে দিলাম। বউ এবার মহাখুশি। এদিকে ট্রেন থেকে নেমে এলো ট্রেনের ড্রাইভার। যখন সে শুনলো গেটম্যান অযথা ট্রেন থামানোর সিগন্যাল দিয়েছে। শুনে তার মেজাজ সপ্তমে চড়ে গেলো তাই সে কুদ্দুসের দুই গালে কষে দুইটা চড় মারলেন। স্বামীকে চড় খেতে দেখে কুদ্দুসের বউ ড্রাইভারকে বলে উঠল, ‘আপনি আমার স্বামীকে মারলেন কেনো’? ড্রাইভার বললো, ‘ট্রেন থামিয়ে ও নিজের ক্ষমতা দেখাল। আর অযথা ট্রেন থামালে আমি কি করতে পারি সে ক্ষমতা দেখিয়ে দিলাম’।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১০১৩ জন


এ জাতীয় গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...