বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

পাগলী বউ

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Bad Boy (০ পয়েন্ট)



X টিং,,,,,,,,,,,, টিং,,,,,,,,,, টিং,,,,,,,,, . . বেল টিপার সাথে সাথেই প্রতিদিনের মত দরজা খুলল তাসনিয়া -ভিসন ক্ষুধা লাগছে বাবুনি -তুমি ফ্রেস হয়ে আস, আমি টেবিলে খাবার দিচ্ছি। . -এই, একটু শোন। -হুম, বল। -বউএর লিপস্টিক খাওয়ার জন্য তো আর ফ্রেশ হতে হয়না (জড়িয়ে ধরে) -যাহ দুষ্টু - বউএর সাথে দুষ্টামি না করলে কার সাথে করব?? -হি হি হি, জিভ দেখিয়ে পালালো পরিটা। . খাবার টেবিলে বসে আছে, আর তাসনিয়া শুভ্রকে নিজ হাতে খাইয়ে দিচ্ছে। এতখনে শুভ্র খেয়াল করল যে, তাসনিয়া আজকে খুব সুন্দর করে সেজেছে। কালো শারি পরেছে সে। . . -আজকে অফিসে দেরি হলো কেন??? -কাজের অনেক চাপ ছিল তো, তাই। -এত কাজ কর কেন তুমি??? -কাজ তো করতেই হবে জান, নইলে কিভাবে চলবে? -আমার এত কাজ চাইনা, সুধু তোমাকে চাই। -আর কিছু চাওনা? -হুম, কিন্তু পরে বলব। -আচ্ছা, রেডি হয়ে নাও, আজকে তোমাকে নিয়ে ঘুরতে যাব। -সত্যি জান? (অনেকদিন পরে এমন একটা হাসি দেখতে পেল) , খাওয়া সেশে শুভ্র তাসনিয়া কে কোলে করে নিয়ে গেল, তার তাসনিয়ার মনে পরে যাচ্ছে তাদের সেই বিয়ের প্রথম দিনের কথা গুলা । তাসনিয়া খুব ঘুম কাতুরে ছিল, তাই সকালে উঠতে চাইতনা, কিন্তু শুভ্র নামায পরত, তাই সে তাসনিয়া কে প্রতিদিন কপালে একটা করে চুমু দিয়ে কোলে করে বিছানা থেকে তুলে নিয়ে যেত, ঠিক তেমনি রাতের খাবার নিয়েও বায়না করত, তখনও শুভ্র একি কাজ করত। আসলে তাসনিয়ার এই আদর গুলা ভালো লাগত, তাই এমন করতো সে। হঠাত শুভ্রর ডাকে ভাবনায় ছেদ পরল . . -জান, রেডি হইছ????? -হুম জান, চল। . . শা শা শব্দে বাইক চলছে, আর তাসনিয়া শুভ্রকে পেছন থেকে জরিয়ে ধরে বসে আছে, শুভ্রের কিন্তু বেশ ভালই লাগছে। তারপর সারা বিকাল ঘুরা ঘুরির পরে তারা রেস্টুরেন্টে রাতের খাবার খেয়ে বাসায় চলে আসল। . রাত ১১:০০ টা বাজে, তাসনিয়া শুভ্রের কোলে মাথা রেখে শুয়ে আছে আর শুভ্র তাসনিয়ার মাথায় হাত বুলিয়ে দিচ্ছে। আর তাসনিয়া আদরে চোখ বুজে আছে। হঠাত শুভ্র বলল, . -জান তুমি তখন বললা আমার কাছে নাকি কি চাইবা, তা এখন বল, তোমার কি চাই???? -জান, আমাকে তুমি এত ভালবাস কেন?? -বা রে, এই সারা পৃথিবীতে আমার একটা মাত্র পরি , তাই তোমাকে ভাল না বাসলে আর কাকে বাসব শুনি???? -তাসনিয়ার চোখ দিয়ে পানি পরছে, সে সুধু বলল, একটা বাবু চাই আমার। -হা হা হা, পাগলি বউ আমার(ইচ্ছে করেই হাসি দিল, তাসনিয়ার মন ভাল করার জন্য) . তাসনিয়াও আর না হেসে পারলনা। . শুভ্র বলল,- এইযে মেম রেডি হন, আমার কিউটি মেয়ের আম্মু হওয়ার জন্য -নাহ, আমি কিউট ছেলের আম্মু হব . শুভ্র সুধু তাকে জড়িয়ে ধরে কপালে একটা চুমু দিয়ে বলল, পাগলি বউ আমার। . . দেড় বছর ধরে তাদের বিয়ে হয়েছে, কিন্তু কেউ কাউকে ছাড়া কিচ্ছু বুঝেনা, তাদের দেখলে মনে হয় যেন তারা হাজার বছরের চেনা, এমনকি তাদের ভালবাসাও এক চুল পরিমান কমেনি, বরং দিন দিন বেরেই চলেছে। . বেচে থাকুক ভালবাসা গুলো...


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৬৪৬ জন


এ জাতীয় গল্প

→ পাগলী (Heart Touching)
→ "অভিমানী পাগলী"
→ পাগলী প্রেমিকা
→ বুদ্ধিমতী পাগলী ♥♥♥
→ বুদ্ধিমতী পাগলী
→ "অদ্ভুত পাগলী"
→ ঘুম পাগলী:) (:
→ গল্প : #পাগলী_মেয়ে !!!
→ পাগলীর ভালোবাসা :P :P :P
→ ঘুম পাগলী:) (:
→ গল্প : #পাগলী_গার্লফ্রেন্ড !!!
→ পাগলী বউ
→ সেই পাগলী মেয়ে
→ পাগলীর ভালবাসা
→ তিন কচু পাগলীর গল্প

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...