বাংলা গল্প পড়ার অন্যতম ওয়েবসাইট - গল্প পড়ুন এবং গল্প বলুন

বিশেষ নোটিশঃ সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান - আপনারা যে গল্প সাবমিট করবেন সেই গল্পের প্রথম লাইনে অবশ্যাই গল্পের আসল লেখকের নাম লেখা থাকতে হবে যেমন ~ লেখকের নামঃ আরিফ আজাদ , প্রথম লাইনে রাইটারের নাম না থাকলে গল্প পাবলিশ করা হবেনা

আপনাদের মতামত জানাতে আমাদের সাপোর্টে মেসেজ দিতে পারেন অথবা ফেসবুক পেজে মেসেজ দিতে পারেন , ধন্যবাদ

টিউশনি ও রোমান্টিক মেয়ে (২য় পর্ব)

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Bad Boy (০ পয়েন্ট)



X টিউশনি ও রোমান্টিক মেয়ে। .. ২য় পর্ব .. এই বলে করিম চাচা মশার কয়েল আনতে গেল অন্য রুমে।আমি তখন মিম কে ধমক দিয়ে জিজ্ঞাস করলাম। .. --এই মেয়ে,স্যার এর সাথে কিভাবে ব্যাবহার করতে হয় জানো না। --ন্যা জানিনা,আর আপনি আমার কিসের স্যার।প্রাইভেট পড়াইলে কি স্যার হয়ে গেলেন। --একটু আগে তো স্যার বলে খুব সম্মান করলে। --তখন আব্বু সামনে ছিল।তাই স্যার বলছি।এই যে শুনেন আমি আপনাকে স্যার বলতে পারব না। --কিন্তু কেন? --কারন আপনি আমার থেকে খুব বেশি বড় না।আমি ফেল করতে করতে এই ক্লাসে, কিন্তু বয়স বেড়েই চলছে। --যে জীবনে তোমাকে একটি অক্ষর শিখাইছে সেও তোমার স্যার এটা হাদিসে আছে।বুঝছো। --আচ্ছা ঠিক আছে স্যার বলব। .. আবার করিম চাচা আসলো।এসেই মশার কয়েলটা ধরাই দিয়ে চলে গেল। .. --এই তো লক্ষী মেয়ে।ইংলিশ বই বের কর। --কিন্তু আজ পরব না।গল্প করব। --কিসের গল্প। --আপনার গল্প। --আমার কোন গল্প নেই। --আছে গল্প আছে।আপনি প্রেম করেন না। --না। --কেন করেন না। --ইচ্ছে হয় না তাই। --কেন ইচ্ছে হয় না। --এই মেয়ে চাচা কিন্তু বলছে বেশি বেয়াদবি বা পড়া না পারলে মারতে কাল থেকে আমি বেত নিয়ে আসব। --কি আপনার এত্ত বড় সাহস।যান আমি আপনার কাছে পড়ব না। --ঠিক আছে পড়তে হবে না।চলে যাচ্ছি।(চেয়ার থেকে উঠে গেলাম) --কোথায় যান স্যার।(আমার হাত ধরে ফেলল) --এই হাত ছাড়ো বলছি। --বলেন যাবেন না,না পড়িয়ে। --ঠিক আছে পড়াবো।হাত ছাড়ো।তুমি তো আচ্ছা বেয়াদব স্যারের হাত কেউ ধরে নাকি।আর পড়াবো একটা শর্ত আছে। --কি শর্ত। --কোন বেয়াদবি করা যাবে না। --হুম।করব না। --ওকে ইংলিশ বই বের কর। --হুম।(মন খারাপ করে) .. মিম ইংলিশ বই বের করল।তাকে কয়েকটা ইম্পরট্যান্ট গ্রামার এর সুত্র দাগিয়ে দিয়ে বললাম।কাল এগুলো মুখস্ত করে আমাকে শুনাতে।আর এখন এইগুলাই পড়তে। কিন্তু ও বইয়ের চেয়ে বেশি তাকাচ্ছে আমার দিকে।ব্যাপার টা খেয়াল করে আমি ভড়কে গেলাম। .. --এই মেয়ে বইয়ের ভাল করে তাকিয়ে পড়।এদিকওদিক না তাকিয়ে। --এদিকওদিক কোথায় তাকালাম।আমি তো আপনার দিকে তাকালাম। --কি! তুমি বারবার আমার দিকে তাকাও কেন?(কিছুটা অপ্রস্তুত হয়েই উত্তর দিলাম) --স্যারের দিকে তাকাবো না। --না পড়ার সময় শুধু বইয়ের দিকে তাকাবা।না হয় আমি কাল থেকে মারতে শুরু করব চড়।আজ প্রথম দিন বলে মাফ করে দিলাম। --ঠিক আছে স্যার আর হবে না। --ঠিক আছে আজ পড়তে থাকো।কাল যদি পড়াটা না পারো তোমার কপালে শনি,রবি,সোম,মঙ্গল,বুধ সব রেডি।আজকের জন্য শেষ। --আচ্ছা পড়ব। .. চলে আসলাম মিম দের বাসা থেকে।মনে মনে ভাবতে লাগলাম..মেয়েটা অনেক সুন্দর অনেক আগে আমি দেখেছিলাম।মাঝেমাঝেও দেখা হত কিন্তু ভাল ভাবে তাকানোর অভাবেই ওকে অচেনা মনে হচ্ছিল আজ।কিন্তু মেয়েটা আমার সাথে এমন করলো কেন আজ এটাই বুঝতে পারলাম না। .. যথারীতি কালকের মত আজকেও মিমদের বাড়ি গেলাম মিম কে পড়াতে।ওর বাসায় যেতেই মনে হল মিম আমাকে দেখে খুব খুশি হল।ব্যাপার টা পাত্তা না দিয়ে আমি ওকে বই বের করতে বললাম। .. --কালকের পড়া গুলো বের কর। --হুম করছি। --এদিকে দাও।এবার বলো পড়া গুলো। (আমি বইটা হাতে নিলাম) --মনে নেই,পারিনা। --কেন কাল রাতে মুখস্ত কর নি। --না করিনি। --কেন কি প্রবলেম। --পড়তে ভাল লাগে না তাই। .. এই কথাটা বলতেই ঠাস করে চড় মেরে দিলাম ওর গালে।আসলে মাথাটা গরম হয়ে গেছিল ওর কথায়।দেখলাম মিমের চোখ দিয়ে শুধু পানি পড়ছে আর ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে আস্তে আস্তে কান্না করছে।ওর কান্না দেখে এবার আমার খারাপ লাগতে শুরু করলো।একটু বেশিও হলে গেল মনে হচ্ছে।খেয়াল করলাম আমার ভেতরটাও জ্বলছে ওর কান্না দেখে।(চলবে)


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৭৮০ জন


এ জাতীয় গল্প

→ টিউশনি ও রোমান্টিক মেয়ে (শেষ পর্ব)
→ টিউশনি ও রোমান্টিক মেয়ে (১ম পর্ব)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...