গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

যাদের গল্পের ঝুরিতে লগিন করতে সমস্যা হচ্ছে তারা মেগাবাইট দিয়ে তারপর লগিন করুন.. ফ্রিবেসিক থেকে এই সমস্যা করছে.. ফ্রিবেসিক এ্যাপ দিয়ে এবং মেগাবাইট দিয়ে একবার লগিন করলে পরবর্তিতে মেগাবাইট ছাড়াও ব্যাবহার করতে পারবেন.. তাই প্রথমে মেগাবাইট দিয়ে আগে লগিন করে নিন..

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

♥ তোমাকেই খোঁজছি (শেষ-পর্ব) ♥

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান মোঃ আনিছুর রহমান লিখন (৩০ পয়েন্ট)



♥♦♥♦♥♦♥♦♥♦♥ রিক্সাটি ছুটে চলল। কত কথা! কত আশা! কত ভালবাসা! রিক্সাটি একটি প্রকান্ড আলিশান বাড়ির সামনে থামল। সারিকা তো অবাক wow। একজন ওয়েটার শিল্পপতির বাড়িতে থাকে? থাকতেও পারে। যখন অপূর্ব মেইন গেট দিয়ে বাসায় প্রবেশ করল সবাই অপূর্বকে স্যার স্যার বলে সম্মান দেখালো এবং সালাম দিল। একজন ওয়েটারের এত সম্মান! কিছু খটকা লাগল। অপূর্ব বাবা বাবা বলে রুমে ঢুকলো। ♥♦♥♦♥♦♥♦♥♦♥ সারিকা সব বুঝে গেল। তাই অঝরে কাঁদছে weep। কারণ অপূর্ব একজন কোটিপতির সন্তান। সারিকা তো একজন ওয়েটারকে ভালবাসে। এটা সে মেনে নিতে পারল না। তাই সে চলে এলো বাসায়। তিনদিন হলো কিছু খায় না। অপূর্ব সবকিছু বুঝে আবারও ওয়েটার সেজে সারিকার বাড়িতে যায়। রুম পরিষ্কার করে। আর সারিকা প্রতিদিন এক একটি গ্লাস ভাঙে। অপূর্ব তা পরিষ্কার করে। - কি হচ্ছে অপূর্ব? এসব দেখিয়ে লাভ নেই। - ভাঙো আরো, আমি পরিষ্কার করছি। - তোমার কানে কি কোন কথা যায় না? - আমি শুধু তোমার ওয়েটার হিসেবে থাকতে চাই। ♥♦♥♦♥♦♥♦♥♦♥ এ বলে অপূর্ব চলে গেল। সারিকার বাবা রুমে এসে বলল, - দেখ মা, অপূর্ব ভাল ছেলে। তোকে সুখে রাখবে। আর কি ভাগ্য তোর? আমি যে ছেলে পছন্দ করে রেখেছি তার বাবা আমার বন্ধু। ওর ছেলেকে দেখেছি। তোর ছবিও ওর বাবা দেখেছে। আর শোন এই অপূর্বই হলো আমার বন্ধুর ছেলে। আর তুই ওকে ভালবাসলি। আল্লাহ বুঝি তোর ভাগ্যে অপূর্বকেই লিখে রাখছে। ♥♦♥♦♥♦♥♦♥♦♥ অপূর্বের মনটা খারাপ। তাই গল্পের বই পড়ছিল। এ সময়ে সারিকার প্রবেশ। সারিকাঃ আমার বিয়ের কার্ড। চোজ করো। অপূর্বঃ এই যে কার্ড!!! সারিকাঃ আমাদের বিয়ের কার্ড এত পচা হবে। অপূর্বঃ মানে? wow। কি বললে? সারিকাঃ বললাম। আমাদের বিয়ের কার্ড এত পচা হবে। অপূর্বঃ না,না,না, ঐ কার্ড না। এই কার্ড হবে। সারিকাঃ বাবা, দেখুন, আপনার ছেলের চয়েজ এত পচা! এই কার্ডটা চয়েজ করেছে। অপূর্বঃ না, বাবা, এই কার্ডটাই ফাইনাল। অপূর্বের বাবাঃ হা হা হা। gj এভাবে অপূর্ব তার পছন্দের মনের মানুষকে খোঁজে পেয়ছিল। আর সার্থক হয়েছিল তোমাকে খোঁজছি- এই অনুভূতিটি!!! ♥♦♥♦♥♦♥♦♥♦♥ ******★**********সমাপ্ত***********★******


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৫৮৪ জন


এ জাতীয় গল্প

→ শেষ বিকেলের মায়াবতী♥ (২৩)
→ শেষ বিকেলের মায়াবতী♥ (২৩)
→ প্রপোজ ♥♥
→ মন জানে ♥♥
→ শেষ বিকেলের মায়াবতী♥ (২২)
→ শেষ বিকেলের মায়াবতী♥ (২১)
→ ♥নেকলেস♥আমার প্রিয় একটি গদ্য
→ শেষ বিকেলের মায়াবতী♥ (২০)
→ শেষ বিকেলের মায়াবতী♥ (১৯)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...