গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় পাঠকগন আপনাদের অনেকে বিভিন্ন কিছু জানতে চেয়ে ম্যাসেজ দিয়েছেন কিন্তু আমরা আপনাদের ম্যাসেজের রিপ্লাই দিতে পারিনাই তার কারন আপনারা নিবন্ধন না করে ম্যাসেজ দিয়েছেন ... তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ কিছু বলার থাকলে প্রথমে নিবন্ধন করুন তারপর লগইন করে ম্যাসেজ দিন যাতে রিপ্লাই দেওয়া সম্ভব হয় ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

ফাযিল ছেলে vs রাগী মেয়ে

"রোম্যান্টিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Mujakkir Islam (৪৪৩০ পয়েন্ট)



ফাজিল_পোলা_vs_রাগী_মাইয়া ( সিনিয়ার vs জুনিয়ার) (বাবুনির বাবুয়া) পর্বঃ ১ম আপু আপনাকে একটা কথা বলা ছিলো..? তুই আবার আসছিস তোকে না কিছুক্ষণ আগে এখান থেকে দৌড়াছি..?(মীলা) না মানি রানা সমন্ধে কথা বলা ছিলো, সেই একটা মেয়ের সাথে.. তুমি শুনতে না চাইলে আর বলা নেই যাচ্ছি....(বলে ঘুরে চলে আসতে যাবো) । এই দাঁড়া রানা সমন্ধে কি বলছিলে যেনো..? (মীলা) না তুমি যখন শুনতে চাচ্ছ না তখন বলে লাভ কি...! আর যদি শুনতে চাও তাহলে আমাকে.... হুম বুঝতে পেরেছি...। । এই নে এখানে পাঁচশতটা আছে..। এখন বল, না মানি রানা একটা মেয়ের সাথে রিকশা করে কোথায় যেনো যাচ্ছে..? কিইইই তুই ঠিক দেখছিস তো...? হুম, বলে চলে আসলাম..। হি হি হি ভালো গেতে দিয়েছি...! হি হি হি???????????? । আসার সময় দেখলাম, একটা মেয়ে বাদাম খাচ্ছে..। আমি গিয়ে বাদাম গুলো নিয়ে খেতে খেতে চলে আসলাম, মেয়েটা হা করে থাকিয়ে আছে...। ও আপনাদের ও পরিচয় দেওয়া হলো না, আমার নাম রাশেল মাহাম্মুদ নীলয়, অনার্স প্রথম বর্সে পড়ি.... । মা বাবা বড় এক খান পোলা, সব সময় ফাজলামো মুডে থাকি...। আপনাদের সাথে কথা বলতে বলতে কার সাথে যেনো ধাক্কা খেলাম, চোখ দুইটা উঠিয়ে দেখি একটা মেয়ে চোখ বড় বড় করে আমার দিকে থাকিয়ে আছে...। । আহা! মেয়ে দেখতে একদম পরী মতো লাগতেছে, এই প্রথম কোনো মেয়ে দেখে বাঁশ খেলাম থুক্কু ক্রাশ খেলাম..। ওই ছেবলা এই ভাবে থাকিয়ে আছিস কেন..?(মেয়েটা) আল্লাহ এত বড় বাঁশ দিলো প্রথম দিনে...। । মাইয়া তোরে তো আমি ছাড়ছি না..। এই যে আন্টি আমার কি মেয়ের অভাব পড়েছে, যে আপনার মতো ৬৫ বছর বয়সী মেয়ের দিকে থাকিয়ে থাকিয়ে বাঁশ খাবো...? হায় আল্লাহ তুই কি কইলি আমি তোর আন্টি লাগি..! । হ্যাঁ তাই তো মনে হয়, চোখে গুল ফ্রেমের চশমা, আর শরীর কালো রঙের একটা শাড়ি, দেখতে তো একদম আন্টি মতো লাগে...? তুই কি কয়লি আজকে শখ করে এই গুলো পড়লাম, আর তুই কি না আমাকে ইনসাইড করছিস....!(রেগে বললো) । হায় আল্লাহ বলেন কি, প্রিয় জনের জন্য শখ করে পড়ছেন, আমি তাঁর আগে প্রশংসা করে পেললাম...। দেখছে আমি কি রকম ভালো ছেলে...। হে ভালো না ছাই ভালো করে দেখতে পেলাম, আর বুঝতে পেলাম....। । গুড আর দেখতে না পেলে একটু দেখেন নিন, আর বুঝতে পারলে তো তোমার ভালো..? এই এইই আপনি আমাকে তুমি করে কেন বলছ ..? না মানি আপনি আর আমি তো দেখতে একই ক্লাসে মনে হয় সেই জন্য বললাম আর কি...!???????????????? । তুই কোন ক্লাসের পড়িস..? এই তো অনার্স প্রথম বর্সে, তুমি...? oh my god, তাঁর মানি তুই আমার জুনিয়ার..। আমি অনার্স দ্বিতীয় বর্সে পড়ি..। আজ থেকে আপু বলে ডাকবি...। আর হ্যাঁ যেই খানে দেখবি সেই খানে সালাম দিবি..? । জ্বি আপু.. আপু একটা কথা..? কি কথা বল..।(কিছুটা ভাব নিয়ে বললো) না মানি আপু আপনার নাম কি..? এই তুই কেন আমার নাম জিজ্ঞেস করতেছি..?(রেগে) না মানি আপনাকে সালাম দেওয়ার সময় যদি কেউ দেখে পেলে, । তখন যদি বলে ওটা কে? তখন আমি কি বলবো বলোন..? হুম কথাটা মন্দ বলিস নাই..। আমার নাম ঈশিতা জাহান রাগিণী..তোর নাম কি..? আমার নাম রাশেল..। আপু আরেকটা জিনিস দেবো...! । প্লিজ একটু চোখটা বন্ধ করবে..? কেন চোখ কেন বন্ধ করবো..। না মানি আজকে আমার মায়ের জন্মদিন, আমি আমার মায়ের জন্মদিনে প্রথমে যাকে কাছে পায় থাকে একটা গিফট দেয় তাই আপনি যদি নিন তাহলে অনেক ভালো হবে..(কথা গুলো খুব মায়া লাগিয়ে বললাম) । আচ্ছা ঠিক আছে , (বুঝতে পেলাম রাগিণীকে গাঁধী বানাতে পারলাম...। চোখটা বন্ধ করলো আমি গিয়ে তাঁর মুখে একটা কিস করলা...। আহা কি সাদ...। কিসটা দিয়ে এক দৌড় দিলাম..! । রাগিণী এই ছেলেটা, এটা কি করলো..। আমি তো বুঝতে পারি নাই..! হায় আল্লাহ এখন আমি বান্ধবীদের কি ভাবে মুখ দেখবো...? একবার ছেলেটা হাত পায় তাহলে দেখিয়ে দেবো এই রাগিণী কি জিনিস...। । শালা ফকিন্নি বাচ্চা, আমি বাসায় চলে আসলাম, বাসায় এসে ফ্রেশ হয়ে কিচেনে গিয়ে দেখি মা রান্না করতেছে...। মা কি করো..? বসে আছি নবাবজাদা...। ওরে মা তুমি তো দেখছি আমার মতো ভালো মানুষ হয়ে গেলে..। । এই না হলে রক্তের বন্ধন..। দেখতে হবে না মাটা কার..। মা কুন্ডিটা নিয়ে আমার দিকে আসতেছে...। ভাই এই খানে আর থাকিস না..। এক দৌড়ে রুমে এসে দরজা লক করে দিলাম...। । বেডে শুয়ে শুয়ে রাগিণী কথা ভাবতেছি..। আহা! মেয়েটা দেখতে খুব সুন্দর, এই প্রথম কোনো মেয়েকে কিস করলাম, আহা! মেয়েটাকে কিস করার সময় কেমন যে ভালো লাগছিলো তা আমি ভাবতে ও পারি নাই...। । কিন্তু আমার এমন কি হলো যে মেয়েটাকে কিস করে বসাম..। আমি তো কখনো কোনো মেয়েকে কিস করি নাই..! হাজার হাজার মেয়ের সাথে দুষ্টুমি করেছি কিন্তু কোনো দিন তো এমন লাগে নাই...। । তার মানি কি এটা আমার মনের রাণী..। কিন্তু মনে ঘন্টা বাজে নাই কেন..? তাঁর মানি এই খানে গন্ডগোল আছে ..। হি হি হি সমস্যা নেই হাজার হলে ও সেই আমার বউ হবে...। । তাঁর পরে রুম থেকে বের হয়ে, লাঞ্চ করলাম, মা বাবা সাথে, লাঞ্চ করে ছাঁদে আসলাম..। ছাঁদের এসে এক প্রান্তে এসে দাঁড়িয়ে আছি..। হঠাৎ আমাদের পাশে বাসার ছাঁদে চোখ পড়লো..! । দেখতে পেলাম, কয়েকটা মেয়ে গুল করে লাড্ডু খেলতেছে..। এই মাহী ওই খানে কি করিস.... এই খানে তোর বউয়ের সাথে লাড্ডু খেলতেছি...! খেলবি তুই....। খেলবো না কেন আমার বউ থাকলে তো অবশ্য খেলবো...? । তাহলে চলে আয়..। আমি ছাঁদ থেকে নেমে, আন্টি বাসায় চলে আসলাম..! ছাঁদে উঠে তো আমি অবাকক এটা কি ভাবে হতে পারে.... . collected


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৬৮৭ জন


এ জাতীয় গল্প

→ রাগী মেয়ে
→ বাড়িয়ালার মেয়েটি part-01
→ মেয়ে part 3
→ মেয়ে part 2
→ মেয়ে
→ কালো ছেলে...........
→ ছেলেদের কাঁদানো এতই সহজ নয়!
→ এক লোভী ছেলের গল্প
→ ওই মেয়ে তুমি কি আমার বউ হবা?////

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...