গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

যারা একটি গল্পে অযাচিত কমেন্ট করছেন তারা অবস্যাই আমাদের দৃষ্টিতে আছেন ... পয়েন্ট বাড়াতে শুধু শুধু কমেন্ট করবেন না ... অনেকে হয়ত ভুলে গিয়েছেন পয়েন্ট এর পাশাপাশি ডিমেরিট পয়েন্ট নামক একটা বিষয় ও রয়েছে ... একটি ডিমেরিট পয়েন্ট হলে তার পয়েন্টের ২৫% নষ্ট হয়ে যাবে এবং তারপর ৫০% ৭৫% কেটে নেওয়া হবে... তাই শুধু শুধু একই কমেন্ট বারবার করবেন না... ধন্যবাদ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

মা মেয়ের ঝগড়াজাটি

"মজার গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Samia Akter(guest) (৩৬৪৬ পয়েন্ট)



আমার সবচেয়ে ভালো বন্ধু রেশমি।পড়াশোনাতেও বেশ ভালো। মা-বাবার একমাত্র মেয়ে। বাবার আদরের হলেও মার মনে হয় আদরের নয়। আমাদের বাসার পাশেই তাদের বাসা। প্রতিদিনই দেখি তাদের মা আর মেয়ের মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকে। তাহলে আর কথা না বাড়িয়ে মূল কথাতেই যাই...................... সেদিন ছিল আমাদের স্কুলের পরীক্ষা হওয়ার দুদিন আগের কথা রেশমি তার বাবার সাথে কথা বলছে।রেশমি বলছে, বাবা আমি যদি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করি তাহলে আমরা বানদরবানে ঘুরতে যাব। তুমি যদি রেজাল্ট ভালো কর তাহলে অবশ্যই ঘুরতে যাব(তার বাবা)। মধ্যে থেকে তার মা এসে বলল, যা আগে ভালো রেজাল্ট কর তারপর বোঝা যাবে।এ কথা শুনে রেশমি মুখ ফুলিয়ে সে তার ঘরে চলে গেলে। রেজাল্ট ভালো করার জন্য রেশমি সারা রাত বসে পড়াশুনা করে।কিন্তু তার কয়েকটির প্রশ্ননের উওর জানা না থাকায় রেশমি মোবাইল এ ইনটারনেট থেকে প্রশ্নগুলোর উওর জানার চেষ্টা করে।কিন্তু তার মা ঘুম থেকে উঠে দেখে রেশমি পড়াশোনা না করে মোবাইল নিয়ে পরে আছে অমনিই শুরু হয় ঝগড়া কে শুনে কার কথা।ঝগড়া শুনে পুরো পড়া প্রতিবেশী জেগে ওঠে।এভাবে পরীক্ষার দিন শেষ হয়। কয়েকদিন পর স্কুলে পরীক্ষার খাতা দেয়। পরীক্ষার খাতা দেখে রেশমি খুশিতে বাঁচে না সে পরীক্ষায় 98 নম্বর পেয়েছে। স্কুল ছুটি দেওয়ার পর রেশমি এক দৌড়ে বাসায় যায়।সে তার খাতা বাবাকে দেখায়।বাবা বলেন, ঠিক আছে তাহলে আমরা সবাই বানদরবানে ঘুরতে যাব। একথা শুনে রেশমি মহাখুশি। কিন্তু তার মা খাতা দেখে রাগিগলায় বলে, মার্কস শুধু 98 কেন আর বাকি দুই নম্বর কোথায়। একথা শুনে রেশমির মাথা ঘুরতে লাগল আর ভাবলো, এত কষ্ট করে রাত জেগে পড়ে আমি 98 মার্কস আনার পরেও মা বলছে কিনা আর দুই নম্বর কোথায়।শেষমেশে রেশমি মাথা ঘুরে পড়েই গেল।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ২৮৬ জন


এ জাতীয় গল্প

→ মুসলীমরা বলে কোরআনের আলোকে দেশ চালাতে,এটা অমুসলীমদের জন্যও কীভাবে কল্যান বয়ে আনবে?মানুষ তার ইচ্ছামত চালাবে স্রষ্টার বানী কেন গ্রহন করবে?
→ শেষ বিকেলের মায়াবতী♥ (২৩)
→ বৃষ্টির মাঝে এক ফোঁটা বিশ্বাস
→ বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল
→ ~স্যার হুমায়ূন আহমেদ কী আসলেই নাস্তিক ছিলেন? নাকি সব ভ্রান্ত ধারণা?
→ অসমাপ্ত ভালোবাসা ২
→ মা মেয়ের ঝগড়াঝাটি
→ সৃষ্টিকর্তা যদি দয়ালুই হন তাহলে এত মানুষ না খেয়ে মারা যায় কেন?এর দায় তো স্রষ্টারই।
→ আমার দুঃখ। আবার পড়ুন☹
→ ~জিজেস'রা এখন আমার বাসায়!

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...