গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় পাঠকগন আপনাদের অনেকে বিভিন্ন কিছু জানতে চেয়ে ম্যাসেজ দিয়েছেন কিন্তু আমরা আপনাদের ম্যাসেজের রিপ্লাই দিতে পারিনাই তার কারন আপনারা নিবন্ধন না করে ম্যাসেজ দিয়েছেন ... তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ কিছু বলার থাকলে প্রথমে নিবন্ধন করুন তারপর লগইন করে ম্যাসেজ দিন যাতে রিপ্লাই দেওয়া সম্ভব হয় ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

ভয়ংকর প্রহরী

"ভৌতিক গল্প " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Mujakkir Islam (০ পয়েন্ট)



ভয়ানক প্রহরী পর্ব : ০১ ----------------- "ক্যাপ্টেন ওই ক্যাপ্টেন " "জ্বি ম্যাডাম ( দৌড়ে তানহার রুমে ডুকে হাপাতে হাপাতে) " "গাড়ি বের করো আমি সেখানে যাবো " ক্যাপ্টেন : কিন্তু ম্যাডাম এখন তো রাত? তানহা :কোনো কিন্তু না। ক্যাপ্টেন চলে গেল। "এখন কি করবো হিটলার জানলে সমস্যা হবে " তানহা :ক্যাপ্টেন কই গেলে, গাড়ি বের করছো। ক্যাপ্টেন :জ্বি ম্যাডাম। "ক্যাপ্টেন গাড়িতে হেলান দিয়ে দাড়িয়ে আছে, কালো একটা শাড়ি পরছে চাদের আলো তানহার খোলা চুলে পরছে,চিক চিক করছে শাড়ির স্টোন গুলো থেকে আলো বিচ্ছুরিত হচ্ছে,ঝোছনা মাখা চাঁদ পরী " তানহা :হা করে কেনো আছো চলো। ক্যাপ্টেন :হুমমম চলুন। "আরে তানহা তো কালো শাড়ি পরছে।আরে এটা তো জেছে বিপদ " তানহা :ক্যাপ্টেন ( দাতে দাত চেপে রেগে) ক্যাপ্টেন :কি হলো আপনার? তানহা :এটা কি সাইকেল চালাচ্ছো,দেখো সাইকেলও তোমার আগে চলে যাচ্ছে ( কটমট করতে করতে) ক্যাপ্টেন :ম্যাডাম ১মিনিট।গাড়ি থামিয়ে তানহার দিকে ঝুকে সিট বেল্ট বেদে দিল। তানহা :হা করে আছে।মনে হচ্ছে ঘুষি মেরে নাক ফাটিয়ে দেই। রায়হান :আমার ড্রাইভিং নিয়ে কথা,আরে আমি তোমাকে মিনিটে নিয়ে যেতে পারি।"মনে মনে ভাবছে আর গাড়ি ফুল স্পীডে চালাচ্ছে ৩০ মিনিটের রাস্তা ৮মিনিট ১৫ সেকেন্ড এ পৌছে গেছে। তানহা :এত স্পিডে কেউ চালায়? (হাপাতে হাপাতে) ক্যাপ্টেন :এই নিন পানি খান।(পানির বোতল এগিয়ে দিয়ে) তানহা :ঢক ঢক করে সব পানি খেয়ে ফেলল। ক্যাপ্টেন :"কি করে বুজাবো এই জায়গাটা নিরাপদ নয়, " তানহা :জানো ক্যাপ্টেন এখানে কেনো আসি। ক্যাপ্টেন :না ম্যাডাম "তানহার কথায় ভাবনা রেস কেটে গেলো " তানহা :এই এখানে আব্বু, আর আম্মু রাতে accident করছিল,তখন আমি খুব ছোট,আর ফিরে আসেনি তারা,তারপর থেকে দাদুর কাছে থাকতাম,কিন্তু পোড়া কপাল দাদুও চলে গেল, তখন আমি অনেকটা বড় সবে মাত্র বুজতে শিখছি।(বলেই কাদতে লাগল) ক্যাপ্টেন :ম্যাডাম কাদবেন না,আপনি কাদলে,আমার খুব কষ্ট হয়।দেখুন ম্যাডাম কতগুলো জোনাকি। তানহা :জায়গায় টা বেস নিস্তব্ধ, মাঝখানে রাস্তা,দুই পাশে ভয়ংকর জঙ্গল।দেখলেই ঘা শিওরে উঠে,তবুও এখানে আসি,কারন এখান থেকেই সবকিছু শেষ হয়ে যায়। এদিকে,হিটলার খবর পেয়ে গেছে রাত্রে তানহা বাড়ির বাহিরে,খুব রেগে আছে, অনেক রাত হয়েছে,দুজনের মাঝে কোনো কথা নেই,চারপাশ জুড়ে নিস্তব্ধতা বিরাজ করছে,শিতল হাওয়ায় শরীর হিম হয়ে গেছে। ক্যাপ্টেন :ম্যাডাম , একি তানহার তো জ্বরে গা পুড়ে যাচ্ছে।ম্যাডাম, শুনছেন।"কাদ ধরে ধাক্কা দিতেই এলিয়ে পড়ে যেতে নিল,কোনো হুশ নেই "নাহ গাড়িতে নিতে অনেক সময় লাগবে,পাজকোলে নিয়ে দৌড় দিতেই মিনিট ৫ এর মধ্যে বাসার সামনে এলো,গেট দেয়াই থাক,জানালা দিয়ে ডুকে নিজের রুপ বদলে নিল।বিছানায় শুয়ে,তানহার মামা কে ডাক দিল। ক্যাপ্টেন :মামা। বুড়ো মামা ( কাজের লোক) :তোমাকে বলতে হবে না তুমি যাও। ক্যাপ্টেন ছাদে চলে গেলো,ভাবতে লাগল মামা কি করে জানলো,মনে হয় বুজতে পারছে,তানহা কে তো অনেকদিন ধরে মেয়ের আদর দিয়ে আগলে রাখছে,রুপ বদলে নিজের রুপে ফিরে।বেরিয়ে গেলো, শেষ রাতে to be continue......


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ২৭০ জন


এ জাতীয় গল্প

→ সবচেয়ে ভয়ংকর মাছ
→ ভয়ংকরী নারী
→ একটি ভয়ংকর ভুতের গল্প
→ ভয়ংকর কবর
→ ভয়ংকর সেই রাত
→ ভয়ংকর সে রাত
→ পৃথিবীর ভয়ংকর উদ্ভিদ
→ ভয়ংকর রাত
→ হাসপাতালের ভয়ংকর ভুত

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...