গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

যাদের গল্পের ঝুরিতে লগিন করতে সমস্যা হচ্ছে তারা মেগাবাইট দিয়ে তারপর লগিন করুন.. ফ্রিবেসিক থেকে এই সমস্যা করছে.. ফ্রিবেসিক এ্যাপ দিয়ে এবং মেগাবাইট দিয়ে একবার লগিন করলে পরবর্তিতে মেগাবাইট ছাড়াও ব্যাবহার করতে পারবেন.. তাই প্রথমে মেগাবাইট দিয়ে আগে লগিন করে নিন..

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

আমার স্কুলে ভূত দেখা যায়

"ভৌতিক গল্প " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান লিখন(guest) (৬১৪৮ পয়েন্ট)



"আসসালামুয়ালাইকুম" আমি লিখন আমি নবম শ্রেণিতে পড়ি, আমি আজকে আপনাদের একটা সত্য ঘটনা বলবো,ঘটনাটি ঘটে জানুয়ারীর 2020 15 তারিখ, আমি যেই স্কুলে পড়ি সেখানে মাঝে মাঝেই রাতের বেলা আমাদের নৈশ প্রহরী একটা মেয়ের কান্না করার শব্দ শুনতে পায় অনেক কথা বলার শব্দ শুনে কিন্তু সে কখনো এগুলো দেখার জন্য উপরে যেত না আমার স্কুলে দুইটা ভবন পাঁচ তলা করে দশ তলা আর তিনি শব্দ শুনতেন প্রথম ভবনের দুইতলায় আমাদের সাইন্স ল্যাব থেকে শব্দ শুনতো রাতে তার সাথে আরও একজন থাকত কিন্তু একদিন রাতে একজন নৈশ প্রহরী কে তার কিছু পারিবারিক কাজে তার গ্রামে যেতে হয় তো সেই দিন একজন প্রহরী পাহারা দিচ্ছিলো হঠাৎ সে দুই তলা থেকে আমাদের ল্যাবের দরজা জোরে জোরে ধাক্কানোর শব্দ শুনতে পায় তারপর সে খুব ভয় পেয়ে জায় এমনেতেই সে আজ একা ফলে সে একটু ভয়ে ভয়ে বলল কে আছে ঐ খানে কেউ সারা দিলো না কিছু ক্ষণ পর আবার সেই শব্দ তারপর সে আবার বলল কে আছো ঐ খানে কিন্তু কোনো সারা পাওয়া যায় না একটু পর উপর থেকে কারও কাশি দেওয়ার শব্দ শুনতে পায় তিনি সে মনে করে হয় তো কোনো চোর ঢুকেছে স্কুলে তারপর সে তার লাঠিটা হাতে নিয়ে টর্চ লাইট দিয়ে স্কুলের দুইতলার বাতি জালাতে সুইচ on করল কিন্তু দেখে লাইট জলছে না ফলে সে তার টর্চ লাইট দিয়ে ল্যাবের দরজার সামনে যেতেই দেখলো ভেতর থেকে কে যেন কান্না করছে একটা মেয়ের কন্ঠ সে ভয় পেয়ে যায় এবং চোখ বন্ধ করে দূরুদ শরীফ পরা শুরু করে সে চোখ খুলতেই দেখে সে প্রায় দশ তলা উচুতে আছে এবং খুব জোরে চিৎকার করতে লাগল আর দেখে সে আবার ল্যাবের সামনে সে ল্যাবের দরজা খুলতেই দেখে দশ বারো টা মেয়ে উলঙ্গ হয়ে দাড়িয়ে আছে সে তাদের কাছে যেয়ে তাদের একজনের শরীর স্পর্শ করতেই সব মেয়ে উধাও হয়ে যায় এবং ল্যাবের এক কোনে একটা মেয়ে বসে পুরো শরীর চাদর দিয়ে ঢেকে কান্না করছে সে বলে কে তুমি এখানে কিভাবে এলে ল্যাব তো বাইরে থেকে বন্ধ ছিলো আর মেয়েটা হাওয়ায় ভেসে উঠে এটা দেখে প্রহরী চিৎকার করে বাইরে বের হওয়ার চেষ্টা করে দরজা খোলা তবুও সে বের হতে পারছে না ফলে মেয়েটা বিকট শব্দে হাসি দিয়ে তার দিকে এগিয়ে আসছে এবং তাকে খুব মেরেছে তার দুই হাত ভেঙে দুই তলা থেকে নিচে ফেলে দিয়েছে আর সে সেনসলেস হয়ে গেলো পরে সকাল বেলা আমাদের স্কুলের দারোয়ান চাচা স্কুলের গেইট খুলে দেখে সে নৈশ প্রহরী মাটিতে পরে আছে সে ভেবেছে যে নৈশ প্রহরী মারা গেছে আর সে হেড স্যার কে ফোন করে বলল ফলে হেড স্যার সব স্যার মেম কে ফোন করে বলল আসতে পরে সবাই আসলো এসে দেখে সে মরে নাই পরে তার ঙ্গান ফিরলো এবং সবাই কে বলল তার সাথে কি ঘটেছে পরে হেড স্যার তানত্রিক দিয়ে আমাদের স্কুলে সুরক্ষা কবচ করালেন। (চলবে) (আল বিদা বন্ধুরা)


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৫৯৮ জন


এ জাতীয় গল্প

→ ক্লান্তহীন অনুভূতি
→ জিজের সবার ভূত নিয়ে আলোচনা
→ চুক্তি নিয়ে তালেবান আমীরের আহবান ও অনুভূতি
→ যখন প্রকৃতি হয়ে যায় শিক্ষক!!!
→ ~জিজেতে আমার অত্যন্ত প্রিয় ১০ জন!
→ ভূতুড়ে কুকুর
→ সৃষ্টিকর্তা যদি দয়ালুই হন তাহলে এত মানুষ না খেয়ে মারা যায় কেন?এর দায় তো স্রষ্টারই।
→ আমার দুঃখ। আবার পড়ুন☹
→ ~জিজেস'রা এখন আমার বাসায়!
→ ~ভূত নামানো(গল্পটি বলেছেন ড.মুহাম্মদ জাফর ইকবাল)।

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...