গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

যাদের গল্পের ঝুরিতে লগিন করতে সমস্যা হচ্ছে তারা মেগাবাইট দিয়ে তারপর লগিন করুন.. ফ্রিবেসিক থেকে এই সমস্যা করছে.. ফ্রিবেসিক এ্যাপ দিয়ে এবং মেগাবাইট দিয়ে একবার লগিন করলে পরবর্তিতে মেগাবাইট ছাড়াও ব্যাবহার করতে পারবেন.. তাই প্রথমে মেগাবাইট দিয়ে আগে লগিন করে নিন..

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

হার বেনি

"বুক রিভিউ " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Jamee(জামি) (৩৪ পয়েন্ট)



ইংরেজ লেখক সাইলাস কে. হকিং। তাঁর অনবদ্য কালজয়ী উপন্যাস হার বেনি।এটিকে সরল বাংলায় অনুবাদ করেছেন অনুবাদক ইফতেখার অামিন। দুজন হতদরিদ্র শিশু বেনি বেটস ও নেলি বেটস। তারা দুই ভাইবোন। সংসারে সৎমায়ের নেতিবাচক দৃষ্টিভাঙ্গির কারণে তাদের বাবাও বেনি ও নেলিকে দু’চোখে দেখতে পারে না । এটুকুন বয়সে প্রচন্ড শীতে, বলা যায় বরফ পড়া রাস্তায় দিয়াশলাই বিক্রি করে তাদের খাবার জোগাতে হয়। প্রতিদিন খাবার বাবদ ৬ পেন্স তাদের বাবার হাতে তুলে দিতে হয়। তারপরও তাদের খাবার জোটে না ঠিকমতো । কারণে-অকারণে মার- ধর তো অাছেই। বাবা ও মায়ের নির্মম অত্যাচারে বাড়ি ছেড়ে পালায় দু’ভাইবোন। পৃথিবীতে সৎভাবে বেঁচে থাকার কঠিন লড়াইয়ে নেমে পড়ে তারা। বোন নেলি দিয়াশলাই বিক্রির সময় এক পাগলা কুকুরের তারা খেয়ে দিকভ্রান্ত হয়ে বড় রাস্তায় গিয়ে পড়ে। আর অমনি এক বাস তাকে চাপা দেয়। সেই যে নেলি অসুস্থ হলো, আর বিছানা থেকে উঠল পারল না সে। একদিন প্রিয় ছোট বোনকেটিকেও হারিয়ে ফেলল বেনি। এতে প্রচন্ড ভাবে ভেঙে পড়ল বেনি বেটস। পায়ের তলার মাটিটাই যেন সরে গেল তার। এই অসহায় ও নির্মম সময়ে অবলম্বন হিসেবে পরিচয় হয় লিভারপুলের নামকরা ধনী ব্যবসায়ী মি.লরেনসের মেয়ে ইভা লরেনসের সঙ্গে। সে তার বাবাকে বলে বাবার অফিসেই আর্দালির চাকরি পাইয়ে দেয় বেনির। কিন্তু অনাকাঙ্ক্ষিত চুরির অপবাদে বিনা দোষে তাকে পুলিশে দেহওয়া হয়।অবশ্য প্রমাণও হয় সে এই চুরির সঙ্গে জড়িত নয়। কিন্তু তীব্র অভিমানে বেনি তার প্রিয় শহর লিভারপুল ছেড়ে সৎ ভাবে জীবনযাপনের উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায় নতুন ঠিকানায়। প্রায় মরণাপন্ন অবস্থায় অাশ্রয় পেয়ে যায় বেনি। অার সেখান থেকেই তার নতুন উথান শরু হয়। অাবার ফিরে আসে নিজ শহর লিভারপুলেই।তখন সে আর বেনি নয়। অবস্থাপন্ন এক বেনি বেটস। বুক সাইজের ১৬০ পৃষ্ঠার গ্রন্থটি প্রকাশ করেছে পান্জেরী পাবলেকিশন্স লি.।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১২৪ জন


এ জাতীয় গল্প

→ একটি দামি উপহার
→ ছোট্ট উপহার একটি চিরকুট
→ হার্ট এটাক ( শেষ পর্ব )
→ হার্ট এটাক ( পর্ব-২ )
→ হার্ট এটাক ( পর্ব-১ )
→ আমি তাকে হারাতে চাইনা (শেষ পর্ব)
→ ন্যায় বিচার — খলিফা হারুন অর রশিদের গল্প
→ হারকিউলিসের প্রেম কাহিনী
→ হারকিউলিসের বারোটি অসাধ্য কাজ সাধন
→ আমি তাকে হারাতে চাইনা

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...