গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় পাঠকগন আপনাদের অনেকে বিভিন্ন কিছু জানতে চেয়ে ম্যাসেজ দিয়েছেন কিন্তু আমরা আপনাদের ম্যাসেজের রিপ্লাই দিতে পারিনাই তার কারন আপনারা নিবন্ধন না করে ম্যাসেজ দিয়েছেন ... তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ কিছু বলার থাকলে প্রথমে নিবন্ধন করুন তারপর লগইন করে ম্যাসেজ দিন যাতে রিপ্লাই দেওয়া সম্ভব হয় ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

ঐতিহাসিক ৫ই মে

"সত্য ঘটনা" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান AI Omar Faruk (৪৪ পয়েন্ট)



৫ই মে যুগ যুগান্তের প্রেরণা ----------------------------- খুব ভোরে জেগে উঠেছিলাম গাবতলী পয়েন্টে অবরোধ করতে হবে বলে ৷ ফজরের আগেই রওয়ানা করেছিলাম ৷ টিপ টিপ বৃষ্টি ছিল ৷ গাড়ীটা নিয়েই বেরিয়ে ছিলাম ৷ ড্রাইভার না থাকায় নিজেই ড্রাইভ করেছিলাম ৷ গাড়ী থাকলেও গতিটা ছিল পায়ে হাটা মানুষদের মতই ৷ মাজার রোড মসজিদের সামনে পার্কিং করে রেখেছিলাম ৷ মিরপুর-মোহাম্মাদপুর মিলে ছিল এই পয়েন্টের দায়িত্ব ৷ আমি ছিলাম নায়েবে আমীর ৷ আমীর ছিলেন মাওলানা মোস্তফা আজাদ রাহিমাহুল্লাহ ৷ প্রশাসন বলেছিল ব্রিজের অপর প্রান্তে অবস্থান করতে ৷ হেফাজতের কেন্দ্রীয় নির্দেশনা ছিল এপারেই থাকার ৷ এপারেই থাকলাম ৷ এপার ওপার সবই তো এক সময় হয়ে গেল একাকার ৷ জোহরের নামাজ পড়েই ছুটলাম শাপলার দিকে ৷ ঢুকে পড়লাম ইতিহাসে ৷ শাপলা ফুলটার পশ্চিমে ট্রাক দিয়ে তৈরি করা ছিল স্টেজ ৷ খুব মামুলি ৷ কিন্তু সেটাই হয়ে গেল নতুন বালাকোটের ঐতিহাসিক মঞ্চ ৷ সেখানে দুইবার বক্তব্য রাখার তাওফীক হলো ৷ প্রথমবার আসরের আগে ৷ সেটা ছিল সিডিউল কর্মসূচীর অংশ ৷ আসরের পরপর মঞ্চ থেকে সিনিয়র নেতৃবৃন্দ সরকারের চ্যালেঞ্জ গ্রহন করে শাপলা চত্বরে অবস্থানের ঘোষনা দিলেন ৷ উত্তেজনার পারদ ক্রমেই উর্দ্ধগামী হলো ৷ ঐ অবস্থায় আবার মঞ্চে উঠলাম ৷ তখন মঞ্চে কোনো স্বাভাবিক কর্মসূচী নেই ৷ জনতার সাগর তখন উত্তাল ৷ গুলিস্তান, প্রেসক্লাব আর বিজয় নগর থেকে থেমে থেমে গুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে ৷ কুণ্ডলী পাকিয়ে উঠছে কালো ধোঁয়া ৷ জমীন থেকে আকাশের মেঘ সব যেন লাল-কালোর বিদ্রোহী শোক ৷ শহীদদের লাশের মিছিল শুরু হলো শাপলার দিকে ৷ ভাইয়ের সামনে ভাইয়ের লাশ! হায়েনাদের খুবড়ে খাওয়া লাশ! রক্তের কণিকাগুলো জ্বলে উঠতে লাগলো বারুদের অমিত তেজে ৷ মাইক্রোফোন তুলে নিলাম হাতে ৷ দ্রোহের সবটুকু আগুন ঝরে ঝরে পড়ল ৷ শহীদের রক্ত যেন তখন আমার ধমনিতে বহমান ৷ এরপর রাত হলো ৷ রাত গভীর হলো ৷ ভয়াল অন্ধকারে ছেয়ে গেল শুভ্র সফেদ শাপলার চারিপাশ ৷ শুরু হলো বুলেট দিয়ে সত্যকে দমিয়ে দেয়ার দানবীয় আয়োজন ৷ নিস্তব্ধ রাতের কালো অন্ধকারে রচিত হলো শাহাদাতের উদ্ভাসিত নতুন ইতিহাস ৷ আমি তখনো শাপলার কাছাকাছি ৷ আড়াল থেকে সব দেখলাম ৷ এক সময় বন্ধ হলো তাণ্ডব ৷ বেরিয়ে পড়লাম সেই সুযোগে ৷ মতিঝিল পীরজঙ্গীতে আদায় করলাম সালাতুলফজর ৷ আবার শুরু করলাম হাটা ৷ টিপটিপ বৃষ্টি চলছে তখনো ৷ তবে সে বৃষ্টির সাথে ছিল বারুদের ঝাঁজ ৷ রক্তের লাল ৷ আর অশ্রুর ফোঁটা ৷ হায়েনার দল ভাবলো ঘটনা শেষ ৷ আমি দেখলাম ইতিহাসের অনিঃশেষ যাত্রা ৷ ৫ই মের ভয়াল রাতের নিকশ কালো অন্ধকারে জাতি বিভক্ত হলো দুই ভাগে ৷ এক ভাগ শাপলার শহিদী কাফেলা ৷ অপর ভাগ শাহাবাগী মুরতাদের দল ৷ এক ভাগ বালাকোটের মশালধারী ঈমানদার ৷ অপর ভাগ ধূর্ত ইংরেজদের প্রেতাত্না ৷ এক ভাগ পরাজিত সেনাপতি নবাব সিরাজুদ্দৌলার ভাগ্য বরণকারী ৷ অপর ভাগ হিংস্র লর্ড ক্লাইভের উত্তরসুরী ৷ এক ভাগ কারবালার হুসাইনী চেতনার পতাকাবাহী ৷ অপর ভাগ এজিদী চিন্তার উল্লাসকারী ক্ষমতাশালী… ……… মানুষ মরে যায়, ইতিহাস রয়ে যায় ৷ ইতিহাস কথা কয়… (৫ই মে'১৬ তে লেখা পোস্ট, ঈষৎ সম্পাদিত) #মুহাম্মদ মামুনুল হক


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১২৯ জন


এ জাতীয় গল্প

→ কলম্বাসের আমেরিকা আবিষ্কারের কথা।পর্ব-2
→ ☁ সাদা মেঘের ভেলা ☁
→ সকালের মেঘ
→ ~স্যার হুমায়ূন আহমেদ কী আসলেই নাস্তিক ছিলেন? নাকি সব ভ্রান্ত ধারণা?
→ মা মেয়ের ঝগড়াঝাটি
→ কলম্বাসের আমেরিকা আবিষ্কারের কথা। পর্ব-1
→ প্রেমের কক্ষপথ
→ রাগী মেয়ে
→ মেয়ে part 4
→ বাড়িয়ালার মেয়েটি part-01

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...