গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

গল্পেরঝুড়িতে লেখকদের জন্য ওয়েলকাম !! যারা সত্যকারের লেখক তারা আপনাদের নিজেদের নিজস্ব গল্প সাবমিট করুন... জিজেতে যারা নিজেদের লেখা গল্প সাবমিট করবেন তাদের গল্পেরঝুড়ির রাইটার পদবী দেওয়া হবে... এজন্য সম্পুর্ন নিজের লেখা অন্তত পাচটি গল্প সাবমিট করতে হবে... এবং গল্পে পর্যাপ্ত কন্টেন্ট থাকতে হবে ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

আসলেই কি নারী পুরুষ সমান?

"শিক্ষণীয় গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান ফারিহা তাছনিম ঐশী (০ পয়েন্ট)



আসসালামুআলাইকুম।।। ★★আল্লাহ তায়ালা নারী ও পুরুষকে সৃষ্টি করেছেন আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্যের অধিকারী করে, আলাদা আলাদা ভাবে। ইসলামে নারীদের মর্যাযা অধিক। ইসলামে নারী ও পুরুষের কাজকে আলাদা করে দিয়েছেন আর সেভাবেই তৈরী করেছেন। আল্লাহ তায়ালা নারীদের পর্দার আড়ালে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। আর ঘরে থাকতে বলেছে। তার কাজই হলো ঘরে থাকা, পর্দা করা, সন্তান স্বামীর খেয়াল রাখা, যত্ন নেওয়া।আর ঘরের কাজ সামলানো। সেজন্য নারীদের দিকেহ নমনীয় কোমল। কারন তাকে বাইরের কাজ থেকে বিরত রাখা হয়েছে, কঠোর পরিশ্রম থেকে বিরত রাখা হয়েছে। অন্যদিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে পুরুষদের দেহ কঠিন ও মজবুত। কেননা তাদের সৃষ্টি করা হয়েছে বাইরে পরিশ্রম করে, অর্থ উপার্জন করে নারীর ভরণপোষণের দায়িত্ব নেওয়া। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (সা) বাইরে থেকে এসে তাঁর স্ত্রীকে ঘরের কাজে সাহায্য করতেন। ইসলাম ধর্ম ছাড়া অন্য ধর্মে নারীদের এতো সম্মান দেওয়া হয় না। অন্যান্য ধর্মে দেখবেন নারীদের দাসী, অপবিত্র বলে সম্বোধন করা হয়েছে। যারা নারীদের উপর একসময় অত্যাচার, নির্যাতন চালাতো আজ তারাই কিনা নারীদের বলছে যে "" নারী তুমি পিছিয়ে থেকো না, পুরুষের থেকে তুমি কম কিসের? নারী পুরুষ সমান। তুমিও পুরুষের সাথেই কাজ করো "" এই বলে নারীদের নিরাপত্তার স্থান ঘর থেকে বের করে, পর্দার আড়াল করে রাস্তায় নামানো হচ্ছে। পুরুষের সাথে খেটে খুটে পরিশ্রম করানো হচ্ছে। তাহলে বলুন এরা কি সত্যিই নারীর মঙ্গল চায়??? অন্য দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে,,, নারী পুরুষ উভয়ই একসাথে কাজ করছে। কাজ সেরে যখন বাড়িতে আসে তখন ঘরের কাজগুলো কে করে, নারী নাকি পুরুষ??? নিশ্চয়ই নারী করেন!! কেননা আল্লাহ তায়ালা নারীকে এসব কাজের জন্যই সৃষ্টি করেছেন, বাইরের কাজের জন্য নয়। তাহলে বলুন এটাকে কি সমান অধিকার বলে??? এই কোমলমতী নারীদের সমান অধিকারের নামে দ্বিগুন পরিশ্রম করানো হচ্ছে!!!


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৯৫ জন


এ জাতীয় গল্প

→ হায়রে মানুষ, তাদের কি ছিলনা কোনো হুশ!
→ ~ইসলাম কেন পুরুষদের একাধিক স্ত্রী গ্রহণের অনুমতি দেয়? কিছু ভুল,কিছু বিভ্রান্তের সমাধানের প্রচেষ্টা!
→ ~অমুসলিমদের জন্য মক্কা-মদিনায় প্রবেশ নিষিদ্ধ কেন? এতে কী বিশ্ব ভ্রাতৃত্ব হুমকির মুখে?
→ কিছু বিষয় কিছু ফতোয়া সবাইকে তার প্রাপ্প ক্রেডিট দিতে শিখুন।
→ কিছু অদ্ভুত তথ্য
→ ~নোকিয়া_১২০৮
→ ইউনিকর্ণঃ রূপকথা নাকি বাস্তব?
→ নারী
→ এ মায়ের কি কষ্ট
→ নারীরা কোন কারন ছাড়াই কাঁদে কেন???

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...