গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় পাঠকগন আপনাদের অনেকে বিভিন্ন কিছু জানতে চেয়ে ম্যাসেজ দিয়েছেন কিন্তু আমরা আপনাদের ম্যাসেজের রিপ্লাই দিতে পারিনাই তার কারন আপনারা নিবন্ধন না করে ম্যাসেজ দিয়েছেন ... তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ কিছু বলার থাকলে প্রথমে নিবন্ধন করুন তারপর লগইন করে ম্যাসেজ দিন যাতে রিপ্লাই দেওয়া সম্ভব হয় ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

"মজার অভিজ্ঞতা"

"ভূতুড়ে অভিজ্ঞতা" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান [s][A][h][E][d] (৩০ পয়েন্ট)



আসাসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ winter vacation,বাড়ি যাওয়ার জন্য মনটা কেমন যেন করছিল।তাই ভাবলাম বাড়ি যাব।দিনটা ছিল শনিবার। (গ্রাম্য ভাষায় বলা হয় শনিবারে নাকি মানুষের শনি ঘুরে,বিপদ বেশি থাকে) বিকেল ৪ঃ৩০ মিনিটে রওনা হলাম।রাস্তায় জ্যাম থাকায় খুব রাত হয়ে গেল।বাস থেকে নেমে উঠলাম সিএনজিতে।সিএনজি থেকে নেমে দেখি রাত ৯ঃ০০ টা বাজে।বাড়ি তখনও ১.৫ মাইল দূরে।কোনো রিকশা বা গাড়ি না পেয়ে নিজেই হাঁটা শুরু করলাম।শীতের রাত,পুরো গ্রাম নিস্তব্দ।ঘোর অন্ধকার,শিয়াল আর কুকুর ডাকছে।বুকটা কেমন যেন ধড়পড় করছে।তারপরেও হাঁটতে লাগলাম।মনে হচ্ছে কেউ যেন আমাকে পিছন থেকে follow করছে।পিছনে ফিরে তাকালাম .... নাহ কেউ নেই।বুঝলাম মনের ভয়।তবুও কেবল ভুতের কথা মনে পড়ছে।দোয়া দূরদ যেগুলো পারি সব পড়া শেষ।বাড়ি আর মাত্র ৩০০-৪০০ মিটার দূরে।তাই মনের ভিতর কিছুটা সাহস অনুভব করলাম। বিস্তীর্ণ ক্ষেতের মাঝখানে সরু একটি রাস্তা।হাঁটতে লাগলাম... ।হঠাৎ চোখ পড়ে রাস্তার দক্ষিণ পাশে।এইটা আবার কি!!মাথা-পা বিহীন সাদা কাপড় পরিহিত হাত দুটো পূর্ব-পশ্চিমে সোজা করে রেখে যিশুখিষ্টের মতো দাঁড়িয়ে আছে।অনুভব করলাম আমার সিস্টোলিক রক্তচাপ ১২০ এর উপর উঠে গেছে,পা দুটো তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের মতো কাঁপছে। ও...করিম চাচা গো........ ঠাস,মনে হয় মেরুদন্ডটা ভেঙ্গেই গেল। (একি কলার খোসায় পিছলা খাইছি!!) করিম চাচা ঘর থেকে বের হয়ে বলল, -চাচাঃকিরে কি হইছে?এত জোরে চিৎকার করলি কেন? - আমিঃ চা..চা..চাচা......ভু... ভু...ও...ত -চাচাঃ ভুত?(ভ্রু কুচকিয়ে) আমিঃ হ্যাঁ,ভুত!!(চোখগুলো খাড়া করে) চাচাঃ কই আয় আমার সাথে। - আমিঃ না চাচা, আমি যেতে পারবো না। -চাচাঃ যেতে পারবিনা মানে? (রাগান্বিত হয়ে) আস্তে আস্তে চাচার পিছন পিছন গেলাম।রাস্তায় গিয়ে দেখাই ওইযে আপনি ক্ষেতের মাঝখানে তাকান। তিরি বললেন আয় ওখানে যাব আমি তার পিছন পিছন গেলাম।যখন সেটা র কাছে গেলাম.... আমার তো চোখ কপালে উঠে গেল। আসলে সেটা ছিল একটা মূর্তি।(যাতে পশুপাখি ফসল না নষ্ট করতে পারে)যেটা দেখে আমি এত ভয় পেলাম !!!নিজেকে বিশ্বাস হচ্ছিল না তিনি আমার দিকে রাগে চেয়ে আছেন। আমি কি বলব,বোকারামের মতো একবার মূর্তির দিকে তাকাই আবার চাচার দিকে তাকাই। (বিঃদ্রঃভুল-ত্রুটি থাকলে মাপ করবেন।)


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৮০১ জন


এ জাতীয় গল্প

→ "আকাশ ভ্রমনের প্রথম অভিজ্ঞতা"

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...