গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app

গল্পেরঝুড়িতে লেখকদের জন্য ওয়েলকাম !! যারা সত্যকারের লেখক তারা আপনাদের নিজেদের নিজস্ব গল্প সাবমিট করুন... জিজেতে যারা নিজেদের লেখা গল্প সাবমিট করবেন তাদের গল্পেরঝুড়ির রাইটার পদবী দেওয়া হবে... এজন্য সম্পুর্ন নিজের লেখা অন্তত পাচটি গল্প সাবমিট করতে হবে... এবং গল্পে পর্যাপ্ত কন্টেন্ট থাকতে হবে ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

ছোঁয়াচে ও ইসলাম

"ইসলামিক" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Mohammad Najim (০ পয়েন্ট)



ইসলামে দুইটা বিষয় আছে। একটা হচ্ছে আকিদা বা বিশ্বাস আর অন্যটি হচ্ছে আমল বা কর্ম। দুইটাই জরুরি বিষয়। মানুষের আকিদা ও কাজের ক্ষেত্রে অনেক সময় বাহ্যিক দৃষ্টিতে বিরোধীতা পরিলক্ষিত হলেও বাস্তবে সেখানে বিরোধীতা নেই। আলোচনা হলেই সেটা বুঝে আসবে ইনশাআল্লাহ। ছোঁয়াচে রোগের আলোচনায় যাওয়ার আগে ভূমিকা হিশেবে কয়েকটা উদাহরণ দেয়া যেতে পারে তাহলে বুঝতে সুবিধা হবে। যেমন ইসলামের আকিদা হলো আল্লাহ তায়ালা হলেন রাজ্জাক তথা রিযিকদাতা। আর মানুষ সেই রিযিক তালাশ করবে। আল্লাহ তায়ালা রাজ্জাক বলে মসজিদে বসে থাকলেই রিযিক আসবে না। তালাশ করতে হবে। এটাই ইসলামের শিক্ষা। একইভাবে আমরা বিশ্বাস করি আল্লাহ তায়ালাই হলেন রোগ থেকে মুক্তিদাতা। তাই বলে রোগ হলে ডাক্তারের কাছে যাবে না তা না। সেই প্রচেষ্টাও অব্যাহত থাকবে। এটাই আমল। এর নির্দেশও ইসলামে রয়েছে। এই নিয়ম জন্ম, মৃত্যু থেকে শুরু করে সব জায়গায় বিদ্যমান। দুইটাই ইসলামের আদেশ। যেকোনো একটার অস্বীকার ইসলাম বিরোধীতা। ছোঁয়াচে রোগের ব্যাপারে হাদীস আছে দুই ধরনের। এক ছোঁয়াচে রোগ নেই। যেমন হাদীস " أَنَّ أَبَا هُرَيْرَةَ قَالَ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّی اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُولُ لَا عَدْوَی (বুখারী, কিতাবুত তিব) এমন আরো কয়েকটা হাদীস রয়েছে বুখারিতেই যেখানে বলা হয়েছে কোনো সংক্রমণ রোগ নেই। আবার এর বিপরীতেও হাদীস রয়েছে " عن النبي صلى الله عليه وسلم قال: وفر من المجذوم كما تفر من الأسد কুষ্ঠ রোগী থেকে এমনভাবে পলায়ন করো যেমন বাঘ থেকে পলায়ন করো । (প্রাগুক্ত) سَمِعْتُ أَبَا هُرَيْرَةَ عَنْ النَّبِيِّ صَلَّی اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ لَا تُورِدُوا الْمُمْرِضَ عَلَی الْمُصِحِّ অসুস্থ উটকে সুস্থ উটের সাথে মিলাইও না। (প্রাগুক্ত) সুতরাং এ ব্যাপারে দুই ধরনের হাদীস আছে। নবীজি সাঃ এর আমল বা কাজও দুই রকম পাওয়া যায়। একবার তিনি খাবারে কুষ্ঠ রোগীর হাত রেখেছেন এবং সেই খাবার খেয়েছেন। আরেকবার তিনি এমন এক কুষ্ঠ রোগীর সাথে হাতও মিলাননি। এই দুই ধরনের হাদীসের সমন্বয় কেমন করে করা হয়েছে এব্যাপারে ইবনে হাজার আসকালানী রঃ নুযহাতুন নযর নামক কিতাবে বলেন " قال ابن حجر في نزهة النظر: ووجْه الجمعِ بينَهُما: أَنَّ هذهِ الأمراضَ لا تُعْدِي بطبعها، لكنّ الله سبحانه وتعالى جعلَ مخالَطَةَ المريضِ بها للصَّحيحِ سبباً لإعدائِهِ مَرَضَه، অর্থাৎ এই রোগগুলি নিজে সংক্রমিত হয় না কিন্তু আল্লাহ তায়ালা ভালো ব্যক্তিকে অসুস্থ ব্যক্তির সাথে মিলামিশাকে রোগের কারণ স্থির করেছেন। সুতরাং সোজা কথায় বলা যায় সব বিষয়ের মতো এখানেও ইসলাম মধ্যপন্থা অবলম্বন করেছে। ইসলাম বলে, একটা মানুষ যখন অন্যের সাথে চলাফেরা করে, মিলামেশা করে এটার ফলে অনেক সময় রোগ ছড়ায়। তাই এমন রোগের ক্ষেত্রে এগুলি থেকে বেঁচে থাকতে বলা হয়েছে। অর্থাৎ সংক্রমণ আছে তাই এর থেকে দূরে থাকতে বলা হয়েছে। আবার সাথে সাথে সকল ক্ষমতার মালিক আল্লাহ তায়ালা। বাকি কিছুর মতো এই সংক্রমণের ক্ষেত্রেও চূড়ান্ত ক্ষমতা তার। এই বিশ্বাস রাখতেও বলা হয়েছে। অতএব একদম সংক্রমণ নেই বা রোগ নিজেই সংক্রমিত হয় এই দুইটা মতকেই ইসলাম সমর্থন করে না। বরং ইসলামের বক্তব্য হচ্ছে, এক অর্থে সংক্রমণ রয়েছে। যা ইবনুল কাইয়িম ও ইবনুল হাজারসহ জমহুরগণ স্বীকার করেন। তাই তো তা থেকে বাঁচতে এমন রোগী থেকে দূরে থাকতে বিভিন্ন হাদীসে বলা হয়েছে। তবে সবকিছুর উপরে বিশ্বাস থাকবে সর্বশক্তিমান আল্লাহ তায়ালার উপরে। সংগৃহীত।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১০৪ জন


এ জাতীয় গল্প

→ "ওয়ালা নিয়ামাল জাইশ,যালিকাল যাইশ"
→ অামি তোমায় ভালোবাসি,তুমিও কী অামায় ভালোবাস?
→ মুসলিম হয়েও অমুসলিম
→ পাওয়া
→ ইসলামে চিকিৎসকের মর্যাদা ও কর্তব্য
→ ইসলামের ইতিহাস থেকে সত্যিই কী রক্ত আর তরবারির গন্ধ আসে?
→ সুলতান সুলেমান-"সিরিয়াল" ও ইতিহাস...
→ বাঘ ও দয়ালু ব্রাহ্মণ ১
→ নীলস বোর ও মজার কাহিনী
→ পর্দা করা এত জরুরী কেন? ইসলামে পর্দা কি শুধু মহিলাদের জন্য নাকি পুরুষ-মহিলা উভয়ের জন্যে??

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...