গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

যাদের গল্পের ঝুরিতে লগিন করতে সমস্যা হচ্ছে তারা মেগাবাইট দিয়ে তারপর লগিন করুন.. ফ্রিবেসিক থেকে এই সমস্যা করছে.. ফ্রিবেসিক এ্যাপ দিয়ে এবং মেগাবাইট দিয়ে একবার লগিন করলে পরবর্তিতে মেগাবাইট ছাড়াও ব্যাবহার করতে পারবেন.. তাই প্রথমে মেগাবাইট দিয়ে আগে লগিন করে নিন..

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

শয়তানের সাথে এমনই হয়!!(হাসতে বাধ্য!! না হাসলে সময় ফেরত!!!)

"মজার গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান সাইম আরাফাত(মিসির আলি) (২৮২ পয়েন্ট)



আসসালামু আলাইকুম,, WRITTEN BY: Md.sAiM aRaFAt. মহিলাটির দাতে প্রচন্ড ব্যাথা।ব্যাথার দরুন তিনি কথা বলতে পারছেন না,তিনি গোঙাচ্ছেন।তার পাশে বসে আছে তার মেয়ে।মেয়ে মেডিক্যাল কলেজে ডাক্তারি পড়ছে।ভালো ছাত্রী।মায়ের অবস্থা দেখে মেয়ে বলল,মা আমি তোমাকে নিয়ে বাইরে গিয়ে চিকিৎসা করাব।এখানে আর রাখব না। --তুই যা ভালো মনে করিছ। তো মেয়ে অনেক দৌড়াদৌড়ি করে মাকে নিয়ে গেল ইউরোপের একটা উন্নত দেশ সুইজারল্যান্ডে।সেখানের সবচেয়ে ভালো হসপিটালে ভর্তি করা হলো মহিলাকে।ডাক্তার মহিলাটিকে পরীক্ষা করে দেখে বলল, সর্বনাশ!!আপনার তাতে একটা মারাত্মক ভাইরাস আক্রমন করছে।যত তাড়াতাড়ি সম্ভব চিকিৎসা করে আপনার সব দাত ফেরে দিতে হবে,নয়ত বিষয়টা মারাত্মক আকার ধারন করবে। মহিলা ভয়ে ভয়ে বলল,সব দাত ফেলে দিতে হবে?? --জ্বী।নয়ত... -ঠিক আছে আমি মেয়ের সাথে আলাপ করে নিই। --করুন।।তবে যত তাড়াতাগি সম্ভব.. মহিলাটি তার মেয়ের সঙ্গে আলাপ করল।মেয়ে বলল,মা,ডাক্তার যা বলছে করে ফেল,এটা পৃথিবীর সবচে ভালো হসপিটালগুলোর একটা। --ঠিক আছে। যথাসময়ে মহিলার চিকিৎসা হলো।চিকিৎসা করে তার সব দাত ফেলে দেয়া হলো।এখন মহিলার মুখে একটাও দাত নেই।দাতগুলো ল্যাবে নিয়ে যাওয়া হলো টেস্ট করে ভাইরাস সনাক্ত করার জন্য। কিছুক্ষণ পর একজন ডাক্তার ল্যাব থেকে বেরিয়ে এসে লজ্জিত ভঙ্গিতে বলল, আমরা খুবই দুঃখিত।আমাদের একটা ভুল হয়েছিল।আপনার মার দাতে খাবার আটকে ছিল,যেটাকে আমরা ভাইরাস ভেবেছিলাম,,আসলে আপনার মার দাতে কোনো ভাইরাস পাওয়া যায় নি,,,আপনার মার দাত ব্যথা করত কেবিটির জন্য।আমরা আমাদের কাজের গাফিলতির জন্য আন্তরিকভাবে দঃখিত। একথা শোনার পর মহিলাটির মাথায় যেন আবাশ বেঙে পড়ে। আপনারা কি জানেন কে ছিল ঐ মহিলা আর মেয়েটি?? মেয়েটি হচ্ছে আমাদের সবার পরিচিত মূর্খ,জাহেল,গন্ডমূর্খ,অশিক্ষিত নারীবাদী,নাস্তিক,কুখ্যাত তসলিমা নাসরিন আর মহিলাটি তার মা। [ঘটনাটা নিচক বানানো নয়,,এটা সত্য ঘটনা।][আল্লাহর সঙ্গে যারা নাফরমানি করে তাদের শাস্তি আল্লাহ এভাবেই দেন।] হাসি পাইছে????? THANKS TO ALL OF GJ FAN.


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ১৬৯৪ জন


এ জাতীয় গল্প

→ নাইন-ইলেভেন
→ জিজের সবার ভূত নিয়ে আলোচনা
→ শিরোনাম আপনিই দেন!
→ একটি নাটকের সিকোয়েন্স
→ তামাশা নাম্বার ফোর
→ জান্নাতের সঙ্গী সাথী ও হুর!!!!!
→ মুমিন সব সময় আল্লাহর কাছে প্রিয়।
→ কাফনের কাপড়ের তো পকেট নাই
→ পিরিয়ড লজ্জার নয়,নারীর অহংকার
→ হাসলে হাসেন নাহয় কাদেন

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...