গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app

সুপ্রিয় গল্পের ঝুরিয়ান ... গল্পেরঝুড়ি একটি অনলাইন ভিত্তিক গল্প পড়ার সাইট হলেও বাস্তবে বই কিনে পড়ার ব্যাপারে উৎসাহ প্রদান করে... স্বয়ং জিজের স্বপ্নদ্রষ্টার নিজের বড় একটি লাইব্রেরী আছে... তাই জিজেতে নতুন ক্যাটেগরি খোলা হয়েছে বুক রিভিউ নামে ... এখানে আপনারা নতুন বই এর রিভিও দিয়ে বই প্রেমিক দের বই কিনতে উৎসাহিত করুন... ধন্যবাদ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

ভূতের মিষ্টি

"ভৌতিক গল্প " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান মোঃ আনিসুর (২ পয়েন্ট)



আজকেই আমি প্রথম ,,কখনো গল্প লিখি নি ,,আজকে আমি যে টা লিখতে যাচ্ছি,একটি সত্যি গটনা,,, সম্পকে আমার ফুপু ,,বিবাহিত ,,তাদের একটা মেয়ে,,,আছে, মেয়েটা বড় হয়ছে ,তাদের ছেলে বাচ্চা হয় কিন্তু মারা যায়,পর পর আর ২ টা ছেলে হয় কিন্তু মারা যায়,, কেন মারা যায় কোন কারন খুজে পাওয়া যায়, না ,মাঝে মাঝে ফুপু কেমন করে,, হঠাৎ আবিষ্কার হয় ,,ফুপুকে জ্বিনে ধরে ,,সবাই বলা বলি করতে লাগলো এজন্যই হয়ত ৩ টা ছেলে মারা গিয়েছে, ,,জ্বিনে খেয়ে ফেলছে, ,আমার ফুপুর স্বামি তার পেশা রিকশা, চালানো, ,,কোন এক সময় আমার ফুপুকে জ্বিন কিছু টাকা দেয় আর সেই টাকা গুলো ফুপু নিয়েছিলো কিন্তু তার স্বামি তার প্রয়োজনে খরচ করে ছিল,, শবেবরাতের রাত,,ঐ দিন বাড়ির পূব পাশ থেকে খুবি সুন্দর মিষ্টি গন্ধ আসতে লাগল,,একটা কথা ,বলি রাখি ,,ফুপুর শরীরে জ্বিন আমিজ হওয়ার আগে ফুপু, ,আগে থেকেই বুঝতে পারত,, কোন না কোন ভাবে তাকে সংকেত দিয়ে জানিয়ে দিত, ,ত ফুপু সিউর হয়লো আজকে কিছু একটা ঘটবে, ,ফুপু খুব ভয় পায়লো এত গ্রাণ আসছে, তাই বাড়ির সবাই কে বললো তারা যেন সবাই নামায তার গড়েয় পরে শুধু মহিলা রা, আমার মা,,বড় জেডি,, দাদি রা সবাই চলে গেলেন তাদের রুমে,,, এশার নামায পরে যেই শবেবরাত এর নাময শুরু করলো, ,আবার সেই গ্রাণ আসতে লাগলো ,,সবাই বুঝলো হয়ত আসতে আর বেশি দেরী নেয় ,,,সবাই নামায পড়ছে,, দরজা খুলা না,তবে আটকানো ছিলো না,, দরজা টা একটু শব্দ করলো একটা বিড়াল ডুকলো দরজা ফাক হয়ে যে শব্দ হয় সেই শব্দ টা য় ,হলো,,,,হঠাৎ তারা দেখলো ২ কাটুন মিষ্টি ,,কোথা থেকে আসলো কেমনে আসলে কেউ বলতে পারছে না,,আবার সবারি জানা, আজকে জ্বিন ধরবে আমার ফুপুকে ,,ত ফুপু বলল, কেউ ভয় পাবে না ,,,মিষ্টি ওনি নিয়ে আসছে, ,,,,ত নামায ,,,সম্পূন শেষ ,,হলো না,, হঠাৎ ছালাম দিলো, একজন মানুষ ,,সবাই চমকে গেলো কে ছালাম দিলো এক দন চিকন কন্ঠ, ,ছালাম টা কোন দিক থেকে আসছে কে ঠিক করতে পারলো না, ,ছালামের জবাব দিল, তার পর ভালো মন্ধ জিগিয় ,,,লো ,,সবাই যার যার প্রশ্ন করতে শুরু করলো,,ওহ মিষ্টির সাথে পান আর সুপারি ছিলো, ,,কিন্তু চূন ছিলো না ,ত সবাই বলতে লাগলো এখন চূন কোথায় পাব, চুন ত নেয়,, ,জ্বিন বললো এত রাতে চুন কোথায় পাব ,,এখন প্রশ্ন হলো আপনি এগুলো কোথা থেকে নিয়ে আসছেন ,,আপনি কি নিজে বানিয়ে ছেন নাকি কিনে নিয়ে আসছেন ,,সবার একি পশ্ন, ,জ্বিন বলো আমি মানুষের রুপ ধরে কিনে নিয়ে আসছি, আমার বন্ধুর জন্য ,,তার পর চূন আনবার কথা ত চুন কোথায় পাবে,, সবাই বললো আপনি ত ইচ্ছে করলেই নিয়ে আসতে পারেন ,,জ্বিন বললো না,, আমরা ইচ্ছে করলে অনেক কিছু করতে পারি,, কিন্তু জ্বিন জাতিরা সবাই এক না,, ,আপনারা বলেন আমি চুন নিয়ে আসব যার ঘরে বলবেন তার ঘর থেকেই এনে দিব,, সবাই ভয় পায়লো কার ঘরের কথা বলবে,, আমার বড় জেডি আমার ৩য় কাকার কথা বললো তার ঘরে চুনের বাটি আছে ,,তবে চুন আনলে সেখানে যাতে চিন্হ থাকে,, বলার পর পরি সাথে চূুন নিয়ে হাজির একটা পানের মাঝ খানে চুন ত, ,সাথে বললো ,আমার আগ্ুলের চিন্হ ঐ চুনের বাটিতে আছে, বাটি কোথায় আছে তাও বলে দিল,সবাই মিষ্টি খেয়ে নিল,, ,জ্বিন খায়লো কিনা তা দেখা যায় নি ,তবে বলছে জ্বিন ও খায়ছিলো ,,ত যাবার সময় আবার ছালাম দিয়ে চলে গেলো,, সকাল হতে না হতেই সবাই আমার কাকর ঘরের আয়সা হাজির,, জ্বিন যে চুন নিয়ে গেছে কাকি জানত না,,কারন ঐ রাতে শুধু ফুপুর ঘরে যারা নামায পড়ছে তারাই জানত এই ঘটনা,,, পরে কাকির ২ টা ছেলে একটা বড় একটা ছোট কাকি শুনে খুব রাগ ,,কেন তারা তার ঘরেপাঠাল, ,পরে চুনের বাটি তে একটা বড় আগুলের ছাপ দেখতে পেলো সবাই,, পরে সবাই কে মিষ্টি দেওয়া হয়ছিলো, ,আমাদের বাড়িতে হয়চই পরে গেলো জ্বিনের মিষ্টি নিয়ে । এই ঘটনার পর অনেক দিন পরে আবার ফুপুকে শরীরে আমিজ করলো জ্বিন ,দিনের বেলা ,খুব রাগা রাগি ফুপুর স্বামি কে মার তে যায়,,,বলতে লাগলো ঐ আমার টাকা কেন খায়লো, ,ঐ টাকার জন্যই ওর অনেক ক্ষতি হয়ছে,,,, এভাবে চলতে থাকলো কবিরাজ আয়সা ছাড়াতে চেষ্টা করলো পারলো না,,বললো আমি নিজে আসছি নিজেই ছেড়ে চলে যাব ,,তুই কবিরাজ আমার কিছুই করতে পারবি না,,, এর পর সবাঝ নানান কথা বলতে লাগলো কেউ ফাজলামি করে বলবো আবার কবে মিষ্টি খাওয়াবেন,,, আমার বাবা,, বলবো ,আপনি আবার কবে আসবেন ,,কোন নিদিষ্ট সময় বললো না,, সন্ধায় ছেড়ে চলে গেলো, যাওয়া বলে গেলো ,,আমি আসব,, আমার বাবা সব সময় নামায পরে, ,ত মাস খানেকের মাঝেয় আবার সেই একি গ্রাণ ফুপু বুঝলো জ্বিন আসবে আজকেও আর গ্রাণ টা একেক সময় এক রকম হতো, আগড় বাত্বি বা কোন ফল, ,,ফুলের এ রকম,, ফুপু আমাদের বাড়িতে আসলো আর বললো ,,আমাদের বাড়িতে আসবে ,,আমি তখন High schoole পড়ি, আমি ঘুমায় ছিলাম ,,আমাদের ঘর টা টিনের,, একটা জানালা শুধু ছিলো পড়ার টেবিল র পাশে,, ত আসবে বলে কথা,, কিছু ছোট সবরি কলা আর দুধ আমার পড়ার টেবিলে রাখা হয়ছিলো ,,,সেই দিন আমি ঘুমেই ছিলাম আমি ছাড়া ঘরে কেউ ছিো না, সবাই বাহিরে ছিলো আসার আগে ,গ্রাণ আাসলো সবাই বুঝলো এসে পড়ছে ,সবাই চুপ চাপ,,, ছালাম দিল, সবাই ছালামের উত্তর করলো,, তার পর এক দম চিকন গলায় কথা বললো,, বেশি সময় নাকি ছিলো না ৫-১০ মিনিট কথা বলে,,, সবাই কথা শপষ করলো আমার আপু কে শাশুরি ডাকছিলো ঐ দিন আমার আপু অনেক ভয় পাচ্ছিলো হয়ত সে জন্য তাকে সাহস দিয়েছিলো ,,শাশুরি সম্দন করে,,তাকে আপ্পায়ন করা হয়ছিলো,, তার পর ২ টা কলা আর দুধ খেয়েছিলো ,এই কথা বলার মাঝে কেউ ঘরে যায় নি তার পর দরজায় শব্দহলো তখন আবার ছালাম দিয়ে বিদায় নিলো ,,ঐ দিন জিলাপি নিয়ে আসছিলো জ্বিন চলে যাওয়ার পর সেটা সবাই দেখলো,, ,,ঐ ঘটনার পর থেকে আর কখনো আর এমন ঘটনা ঘটে নি, কিন্তু ফুপুকে মাঝে মাঝে জ্বিন শরীরে আমিজ করত,, ফুপুর একটা ছেলে বাচ্চা হয় নাম শরীফ ,,,এখন ক্লাস ৪ চতুথ্ শ্রেনীতে পড়ে,, ,অনেক অসুখ -বিশুকের মাঝে বড় হয়ছে,, ,এখন আর কোন সমস্যা হয় নি, ,আল্লাহর রহমতে সবাই ভালো আছে.। আমার লেখায় কোন ভুল হলে সবাই ছোট ভাই মনে করে ক্ষমা করবেন! সবার জন্য সু সাস্থ্য কামনা করি। আল্লা হাফেজ।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৬১৮ জন


এ জাতীয় গল্প

→ মিষ্টি ভালোবাসা
→ মিষ্টি বোন
→ অভিশপ্ত ভূতের পুকুর
→ ভূতের পাথর
→ ঝাল-মিষ্টি-টক এই নিয়েই স্কুল জীবন
→ মিষ্টি ছোট্টপরী ৩
→ গোছো ভূতের ক্রিকেট খেলা
→ মিষ্টি ছোট্টপরী ২
→ মিষ্টি ছোট্টপরী ১

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...