গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় পাঠকগন আপনাদের অনেকে বিভিন্ন কিছু জানতে চেয়ে ম্যাসেজ দিয়েছেন কিন্তু আমরা আপনাদের ম্যাসেজের রিপ্লাই দিতে পারিনাই তার কারন আপনারা নিবন্ধন না করে ম্যাসেজ দিয়েছেন ... তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ কিছু বলার থাকলে প্রথমে নিবন্ধন করুন তারপর লগইন করে ম্যাসেজ দিন যাতে রিপ্লাই দেওয়া সম্ভব হয় ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

রিপভ্যান উইংকলঃ(০১)

"পৌরাণিক গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Md.Hasan Imam(Footballer) (০ পয়েন্ট)



হাডসন নদীর উপর দিয়ে জাহাজে করে যারা গেছে তাদের সবারই দৃষ্টি কেড়েছে ক্যাট্সকিল পাহাড়গুলো।নদীর পশ্চিম দিকে সগৌরবে দাঁড়িয়ে আছে এ পাহাড়শ্রেণী। এসব রূপকথার পাহাড়ের নিচে আছে এক গ্রাম।অনেক বছর আগে সে গ্রামে বাস করত একজন লোক;নাম তার রিপভ্যান।উইংকল পরিবারের সদস্য বলে রিপভ্যান উইংকল নামেই সবার কাছে ছিল তার পরিচয়। গ্রামের সবাই তাকে খুব ভালোবাসত।ছেলেরা তাকে পথে দেখলেই আনন্দে চিৎকার করে উঠত।খেলাধুলার ব্যাপারে ছেলেদের খুব সাহায্য করত,তাদের খেলার জিনিস বানিয়ে দিত,ঘুড়ি ওড়ানো শেখাতো,মার্বেল খেলা শেখাত। রিপের এই আড্ডাবাজ মনোভাব গ্রামের অলস বন্ধুরা মেনে নিলেও তার সাথে বউ কিন্তু মেনে নিত না।নিজের কোনো দোষ খুঁজে পায় না রিপ।দোষের মধ্যে শুধু সে কখনো বিশেষ কাজ করত না।পরিশ্রম বা অধ্যবসায়ের ভয়ে কিন্তু সেই অমন করত না।কারণ প্রায়ই সে এক টুকরো ভিজে পাথরের উপর বসে থাকত।হাতে থাকত ইয়া বড় এক লাঠি।শান্তশিষ্টভাবে বসে বসে সে মাছ ধরত।কিন্তু ভুলেও কোনো মাছ তার বড়শিতে ধরা পড়ত না।সে একটা ফাঁদ কাঁধে করে উঁচু পাহাড় আর বনেবাদাড়ে ঘুরে বেড়াত কাঠবিড়ালি আর বুনো কবুতর ধরার জন্য।পাড়াপড়শির সবচেয়ে কঠিন কাজটাও সে করে দিত।ঢেঁকিতে ধান ভানতে অথবা পাথরের প্রাচীর গড়তেও সে তাদের সাহায্য করত।এককথায় রিপভ্যান উইংকল অন্যের উপকার করে দেওয়ার জন্য সবসময় রাজি থাকত। রিপভ্যান উইংকলের ছেলেগুলো খুব বজ্জাত হয়ে উঠল।বাপের ছন্নছাড়া ভাব তাদেরকে আরও অলস হবার জন্য সাহসী করে তুলল।রিপভ্যানের তবু জ্ঞান হলো না।নিজেও সরল জীবনযাপন কামনা করে।পরিশ্রম করে রোজগারের চেয়ে উপোস থাকাই যেন শ্রেয়.........................


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৩৫৩ জন


এ জাতীয় গল্প

→ রিপভ্যান উইংকলঃ(০৩)
→ রিপভ্যান উইংকলঃ(০২)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...