গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

যাদের গল্পের ঝুরিতে লগিন করতে সমস্যা হচ্ছে তারা মেগাবাইট দিয়ে তারপর লগিন করুন.. ফ্রিবেসিক থেকে এই সমস্যা করছে.. ফ্রিবেসিক এ্যাপ দিয়ে এবং মেগাবাইট দিয়ে একবার লগিন করলে পরবর্তিতে মেগাবাইট ছাড়াও ব্যাবহার করতে পারবেন.. তাই প্রথমে মেগাবাইট দিয়ে আগে লগিন করে নিন..

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

এখন জিজে (সমস্যা)

"সত্য ঘটনা" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান শাকিম (০ পয়েন্ট)



আমি জানি এই স্বাভাবিক পরিবেশটাকে আমি নষ্ট করছি, নোংরা করছি। হোক আরেকটু নষ্ট! জিজেতে সবগল্পই কীভাবে ফাইভ স্টার রেটিং পায়? ফাইভ, আউট অভ্ ফাইভ, মানে তো একশো-তে একশো। আসলেই কি তাই? সব গল্পই কি একশোতে একশো পাবে? না। স্বয়ং রবী ঠাকুরের সব লেখাও একশো-তে একশো পাবে না। জ্বি, তাইই। তবে জিজের সদস্যরা কেন পায়? কীভাবে পায়? আপনারা একটা কারণ বলেছেন। কারণটার নাম দেয়া হয়েছে উৎসাহ। এই উৎসাহ যে ধ্বংসাত্মক, তা কি বুঝতে পারছেন না? লেখক তো বুঝতে পারছে না তার গল্পে কী ভুল করছে, কোথায় ভুল করছে। ভুলগুলো থেকেই যাচ্ছে। একই ভুল আবার করছে। এইভাবে কি উন্নতি করা যাবে? আচ্ছা, এখানকার ক্ষুদে লেখকরা কি কেউ সত্যিকারের লেখক হতে চায় না? তারা কি এই ভুলগুলো নিয়েই লেখক হতে চায়? কেন ক্ষুদে লেখকদের আপনারা পাঠকরা ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছেন? কমেন্ট প্রসঙ্গ। আমার মনে হয়, আপনারা এক্ষেত্রে আরো বড় ভুল করছেন। গল্পের কমেন্ট বক্সে আড্ডা দিচ্ছেন। এর ফলে কী হচ্ছে বলি, যেকোনো ধরনের গল্প হাজারটা কমেন্ট পেয়ে যাচ্ছে, সেই গল্পের রাইটারগুলো পয়েন্ট টেবিলে জায়গা করে নিচ্ছে। ব্যাপারটা এমন হওয়া উচিৎ, ভালো গল্প বা সত্যিকারের গল্পের রাইটারগুলোর নাম পয়েন্ট টেবিলে থাকবে। সেরাটা শীর্ষে। এভাবে সাধারণ বা অনিয়মিত পাঠক পয়েন্ট টেবিল থেকে ভালো রাইটারের নাম দেখে ভালো ভালো লেখা পড়তে পারবে। তা না হয় বাদ গেলো, গল্পের কমেন্টে আড্ডা দেওয়াতে আরেকটা কী হচ্ছে বলি- অনেকেই গল্প পড়ে এখন আর কমেন্ট করে না। জানায় না তার মন্তব্য। কারণ, কমেন্ট করলেই আপনাদের আড্ডার চোটে তার নোটিফিকেশন আসতে থাকবে, সেগুলো ডিলিট করতে আঙুল ব্যথা হবে। কী প্রয়োজন, থাক করবো না কমেন্ট। অনেক সময় প্রতিক্রিয়া এমন হয় যে, ওই রাইটারের কোনো গল্প পড়তেই আর ইচ্ছে করে না। অপরিচিত রাইটারের গল্প পড়া হয় না টাইপ একটা ব্যাপার আছে এখানে। দেখা যায়, যারা আড্ডা দেয়, বা কোনো গ্রুপে আড্ডা দিয়ে সবার চেনাপাত্র হয়ে গেছে, তাদের গল্পগুলো বেশি পড়া হয়, তাদের গল্পগুলোতে বেশি কমেন্ট থাকে, অন্যগুলো পড়ে থাকে। হুমম, পড়ে থাকে। তাছাড়া সবাই নিজেদের চেনাজনদের লেখা পড়ে আড্ডা দিতে ব্যস্ত, অন্যদের লেখা পড়ার মতো সময় নেই। কখনো কখনো দেখা যাচ্ছে, একইদিনে একটা উপন্যাসের পাঁচ-সাতটা, এমনকি দশ-পনেরটা করে পরিচ্ছেদ সাবমিট/প্রকাশ করা হচ্ছে। যদি একদিনে প্রকাশ করেন, তবে একসাথে কেন নয়? আলাদা আলাদা দশটা পরিচ্ছেদের কারণে এমনিই যে সাধারণ লেখাগুলো সাবমিট/প্রকাশ করা হয়, তা একফাঁকে পড়ে থাকে। বিশেষ সতর্কতা বা উপদেশঃ অনেকেই দেখছি লেখায় বা গল্পে ইমোজি ব্যবহার করছেন। এইটা ঠিক না। বইয়ে ইমোজি ছাপানো হয়না। আপনার অনুভূতি আপনার লেখার মাধ্যমে প্রকাশ করুন। ইমোজি দিয়ে নয়।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৮৩৭ জন


এ জাতীয় গল্প

→ জিজে দের নিয়ে সপ্ন
→ "এখনও আমি অপেক্ষা করছি তোমার জন্য!!!" পর্ব-১
→ জিজেসদের নিয়ে সারার মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন[দ্বিতীয় পর্ব]
→ জিজেসদের নিয়ে সারার মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন[প্রথম পর্ব]
→ মন্দ নামে ডাকা! (জিজের সদস্যবৃন্দদের উদ্দেশ্যে)
→ করোনাকালের জিজে
→ জিজের সাথে সর্বপ্রথম যেভাবে সাক্ষাৎ!
→ জিজের সমবয়সী বন্ধুদের সাথে ভূতুড়ে অভিজ্ঞতা! (শেষ পর্ব)
→ জিজের সমবয়সী বন্ধুদের সাথে ভূতুড়ে অভিজ্ঞতা! (পর্ব-৫)
→ জিজের সমবয়সী বন্ধুদের সাথে ভূতুড়ে অভিজ্ঞতা! (পর্ব-৪)

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...