গল্পেরঝুড়িতে লেখকদের জন্য ওয়েলকাম !! যারা সত্যকারের লেখক তারা আপনাদের নিজেদের নিজস্ব গল্প সাবমিট করুন... জিজেতে যারা নিজেদের লেখা গল্প সাবমিট করবেন তাদের গল্পেরঝুড়ির রাইটার পদবী দেওয়া হবে... এজন্য সম্পুর্ন নিজের লেখা অন্তত পাচটি গল্প সাবমিট করতে হবে... এবং গল্পে পর্যাপ্ত কন্টেন্ট থাকতে হবে ...

সুপ্রিয় গল্পের ঝুরিয়ান গন আপনারা শুধু মাত্র কৌতুক এবং হাদিস পোস্ট করবেন না.. যদি হাদিস /কৌতুক ঘটনা মুলক হয় এবং কৌতুক টি মজার গল্প শ্রেণি তে পরে তবে সমস্যা নেই অন্যথা পোস্ট টি পাবলিশ করা হবে না....আর ভিন্ন খবর শ্রেনিতে শুধুমাত্র সাধারন জ্ঞান গ্রহণযোগ্য নয়.. ভিন্ন ধরনের একটি বিশেষ খবর গ্রহণযোগ্যতা পাবে

শেষ ভালোবাসা

"সত্য ঘটনা" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান Le sania Jung(guest) (৮৫৭ পয়েন্ট)



গল্পটি ৩ জনের জীবনের গল্প।২টি মেয়ে ও ১টি ছেলে।ছেলেটি নাম জাহেদ সে স্কুলে সবচেয়ে সুন্দর ছেলে।পড়া লেখায় খুব ভালো।মেয়ে ২ টির নাম আইসা ও রাহি। তখন তারা ক্লাস 8 এর ছাত্র ছাত্রী।জাহেদ ক্লাসে বসে আছে তখন তার দেখা হয় রাহির সাথে।রাহি জাহেদের দিকে তাকিয়ে আছে তো আছে।জাহেদ দেখতে পাই রাহি তার দিকে তাকিয়ে আছে। কিছু খনি পরে টিচার ছলে গেছে।রাহি আর না পারে জিহাদের কাছে গিয়ে দাঁড়াল।জাহেদ তা টের পেল। তখন সে তার সাথে কথা বলে।তখন তারা ভালো বন্ধু হয়ে যায়। পরের দিন সকালে ওই স্কুলে আসে আইসা। সে দিন জিহাদ আইসার দিকে তাকিয়ে দেখে যে সে কখনো এমন মেয়ে দেখে নিই।সে তাকে তার বান্ধবী বানায়। রাহি কিছু কিছু ক্ষেত্রে খুব খারাপ কাজ করে। কিন্তু সে বুঝতে পারে সে জাহেদকে ভালোবাসা শুরুকরেছে।তার তা বলে দেরি হয়ে যায়।আর তারা ক্লাস 9 এ পড়া শুরু করে।জাহেদ আর আইসা খুব কাছে চলে আসে।এই খবর রাহি জানতে পারে। তখন এক দিন রাহি আইসাকে। খুব খারাপ কথা বলে। এর পর আইসা স্কুলে আসে না। জাহেদ বুঝতে পারে। সে রাহিকে।বলে তুমি আর কোন দিন যদি আইসার সাথে এমন করো তাহলে আমি খুব দুরে চলে যাব। রাহি আর কিছু না বলে চুপ করে যায়। সে খুব কষ্ট পাই কিন্তু সে ঠিক করে থাকে। রাহি মনে মনে বলে সে আইসা আর জাহেদকে কাছে আনে দিবে। তারা যখন ক্লাস 10 এ পড়ছে তখন জাহেদ আইসাকে বলে আইসা আমি তোমাকে ভালবাসি। আইসার পাসে টিচার ও রাহি। আইসা দেখে টিচার তাদের দিকে তাকিয়ে আছে আর রাহি কান্না করছে।জাহেদ ও দেখতে পাই রাহি কান্না করছে।সে রাহিকে বলে রাহি তুমি কান্না করছো কেন? রাহি বলে কিছু না তোমাদেরকে দেখে মনের খুশির কান্না এগুলো। আইসা বলে দাও। আইসা আর কি বলবে তা বুঝতে পারে না।কিন্তু বলে দেয় হে।সব কিছু ঠিক ছিল।কিন্তু শেষে জাহেদ মারা গেল। তার পর রাহি বিদেশে ছলে গেল।আর আইসা খুব কষ্ট করে। জাহেদকে ভুলতে পারে না। আর কোন মানুষ রাহি আর আইসার জীবন কেও আসে না।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ২৯৩ জন


এ জাতীয় গল্প

→ ভাই-বোনের ভালোবাসা
→ রহস্যময় বই (শেষ পর্ব)
→ ভালোবাসার সম্পদ
→ শেষ কথা
→ ভালোবাসা
→ অন্ধকারের গ্রহ পার্ট---10(শেষ পর্ব)
→ পম্পেই ও হারকুলেনিয়াম নগরী - (২য় & শেষ পর্ব)
→ একটি অপ্রকাশিত চিঠি..শেষ
→ ভালোবাসা

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...

X