গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

যারা একটি গল্পে অযাচিত কমেন্ট করছেন তারা অবস্যাই আমাদের দৃষ্টিতে আছেন ... পয়েন্ট বাড়াতে শুধু শুধু কমেন্ট করবেন না ... অনেকে হয়ত ভুলে গিয়েছেন পয়েন্ট এর পাশাপাশি ডিমেরিট পয়েন্ট নামক একটা বিষয় ও রয়েছে ... একটি ডিমেরিট পয়েন্ট হলে তার পয়েন্টের ২৫% নষ্ট হয়ে যাবে এবং তারপর ৫০% ৭৫% কেটে নেওয়া হবে... তাই শুধু শুধু একই কমেন্ট বারবার করবেন না... ধন্যবাদ...

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

ধৃতরাষ্ট্রের জীবনবৃত্তান্ত

"পৌরাণিক গল্প" বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান SK আব্দুল্লাহ(guest) (৬১৯০ পয়েন্ট)



তোমরা যারা হিন্দু মহাকাব্য মহাভারত পাঠ করেছ,তারা নিশ্চয় দুর্যোধনর পিতা ধৃতরাষ্ট্রের কথা জান।ধৃতরাষ্ট্র জন্মান্ধ ছিলেন। মহাভারতে বর্ণিত আছে যে সত্যবতীর দুই ছেলের অকাল মৃত্যু ঘটলে সত্যবতীর আদেশে পরাশর মুনির ঔরসে কুমারি বয়সে গর্ভজাত পুত্র ব্যাসদেব অম্বিকার সাথে মিলিত হয়।অম্বিকা ব্যাসদেবের কুৎসিত চেহারা দেখে চোখ বন্ধ করে ফলে।তাই ধৃতরাষ্ট্র জন্মান্ধ হলেন।অন্য উপ্যাখানে রয়েছে আগের জন্মে ধৃতরাষ্ট্র একজন ক্ষত্রিয় রাজা ছিলেন।তখনকার দিনে ক্ষত্রিয় রাজাগণের হরিণের মাংস ভক্ষণ প্রিয় ছিল।একদিন তিনি জঙ্গলে হরিণ শিকারে বের হয়।জঙ্গলে একটি হরিণ দেখতে পেল।হরিণটি তাকে এক মায়া দ্বারা আবদ্ধ করে।হরিণের পিছনে ছুটতে ছুটতে তিনি জঙ্গলের গভীরে চলে গেল।তখন সূর্য ডুবে গেল।তাই তিনি প্রাসাদে ফিরে যেতে পারেনি।একটি গাছের নিচে আগুন জ্বালিয়ে তিনি বিশ্রাম নিচ্ছেন।রাজা খুবই ক্ষুধার্ত।সেই গাছের ওপরে দুটি পাখি এবং তাদের একশো ছানা।বাবা পাখি বলল যে রাজাকে ক্ষুধার্ত মনে হচ্ছে।আমি আগুনে ঝাঁপ দেয়,তাাহলে আমার শরীর জ্বলসে যাবে আর আমাকে খেয়ে রাজা ক্ষুধার্ত নিবারণ করবে।কিন্তু মা পাখি বলল যদি তুমি মারা যাও তাহলে ছানাদের খাওয়াবে কে।এভাবে কথা কাটাকটি করার সময়


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৪৩২ জন


এ জাতীয় গল্প

→ ধৃতরাষ্ট্রের জীবনবৃত্তান্ত ২

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...