গল্পেরঝুড়ির এ্যাপ ডাউনলোড করুন - get google app
গল্পেরঝুড়ি ফানবক্স ! এখন গল্পের সাথেও মজাও হবে! কুইজ খেলুন , অংক কষুন , বাড়িয়ে নিন আপনার দক্ষতা জিতে নিন রেওয়ার্ড !

সুপ্রিয় গল্পের ঝুরিয়ান গন আপনারা শুধু মাত্র কৌতুক এবং হাদিস পোস্ট করবেন না.. যদি হাদিস /কৌতুক ঘটনা মুলক হয় এবং কৌতুক টি মজার গল্প শ্রেণি তে পরে তবে সমস্যা নেই অন্যথা পোস্ট টি পাবলিশ করা হবে না....আর ভিন্ন খবর শ্রেনিতে শুধুমাত্র সাধারন জ্ঞান গ্রহণযোগ্য নয়.. ভিন্ন ধরনের একটি বিশেষ খবর গ্রহণযোগ্যতা পাবে

সুপ্রিয় গল্পেরঝুরিয়ান... জিজেতে আজে বাজে কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন ... অন্যথায় আপনার আইডি বা কমেন্ট ব্লক করা হবে... আর গল্প দেওয়ার ক্ষেত্রে গল্প দেওয়ার নিয়ম মেনে চলুন ... সার্বিকভাবে জিজের নীতিমালা মেনে চলার চেস্টা করুন ...

পুরনো স্মৃতি

"রূপকথা " বিভাগে গল্পটি দিয়েছেন গল্পের ঝুরিয়ান রাশেদুজ্জামান (০ পয়েন্ট)



সেদিন বিকেল বেলা নদীর ধারে একলা বসে আছি, এমন সময় হঠাৎ দেখি নদীর ওপারে একটি মেয়ে এক দৃষ্টি চেয়ে বসে আসে আকাশের পানে দূর থেকে যতোটা দেখতে পেলাম তাকে তাতে আমার মনে হলো। মেয়েটি হয়তো কষ্ট পেয়ে আকাশে দিকে চেয়ে থেকে তার কষ্টগুলোকে সে নিবারণ করছে।ভাবলাম আমি কি যাবো তার কাছে যানতে চাইব তার কষ্টগুলো কি! তারপর পর মনে হলো এখন যদি তার কাছে যাই অন্য কিছু মনে করবে না আবার। তারপর কিছুক্ষণ আকাশের দিকে চেয়ে থেকে, মনে হলো যাই দেখে আছি বিষয়টা কি!!""নৌকা নিয়ে নদীর ওপারে চলে গেলাম তারপর আজানা অচেনা মেয়েটির পাশে দাড়িয়ে বললাম.......... আকাশটা অনেক সুন্দর আকাশের নীল রং মনের কষ্ট দূর করার জন্য যথেষ্ট। এরপর কিছুক্ষণ চুপ থাকার পর মেয়েটি বলল.... সেটা সাময়িক সময়ের জন্য কষ্ট দূর হতে পারে তবে সবসময় না। আমি বললাম...হয়তো হতে পারে। মেয়েটি...আমার কষ্টগুলো সারাজীবনের সেটা আকশের দিকে চেয়ে থেকে ভালো হতে পারে না। ভালো লাগছে তাই তাকিয়ে আছি। আমি....কিছু মনে না করলে জানতে পরি কি কষ্টটা কতো কঠিন!!!! মেয়েটি.....আমার জীবনে আর কিছু নেই আমার কাছের মানুষগুলো সবাই চলে গেছে ঐ আকাশে তাই আমি প্রতিদিন আকাশের দিকে চেয়ে তাদের কথা চিন্তা করি। আমি....যদি এমনটা হয় তাহলে তো আকাশের দিকে চেয়ে থাকাটা কষ্টের স্মৃতি মনে বয়ে আনবে। আমি......তা কাছের মানুষটা কি রকম? মেয়েটা...... আমার বাবা মা এক সঙ্গে বাসের এক দূরঘটনায় মারা গেছেন আজকে দিয়ে ৬ দিন হলো। আমি এই কথা শুনে নিজের মধ্যে খারারপ লাগার দিক গুলো খুজে পেলাম। আর তাকে সান্তনা বানী দিয়ে বললাম। কি আর করার আছে বলুন, একদিন তো সবাইকে পৃথিবী ছেড়ে চলে যেতে হবে তাই না।সেটাকে নিয়ে কষ্টের বিষয় আছে ঠিকই তবে, বাস্তবকে তো মেনে নিতে হবে তাই না।মেয়েটি কিছুক্ষণ চুপ করে থাকার পর আমাকে বলল,আচ্ছা আপনি কি করেন আর আপনার বাসা কোথায় আগে তো কখন দেখি নাই,আমি বললাম আমার বাসা এখান থেকে অনেক দূর আর আমি এখানে আজ প্রথম এসেছি আমার এক বন্ধুর বাসায়। এভাবে অনেক কথার মাধ্যমে মেয়েটির সাথে আমার কিছুটা পরিচিত হলো।মেয়েটি নাম শিউলি, এভাবে কিছুদিন আমি নদীর পাড়ে প্রতিদিন আসতাম তার সাথে কথা বলতে বেশ ভালো লাগতো। এক পর্যায় তার সাথে আমার বেশ ভালো বন্ধুত্ব সৃষ্টি হলো। আমি একদিন নদীর পাড়ে অনেকক্ষণ বসে থাকলাম কিন্তু শিউলীর দেখা পেলাম না । আমি কিছুটা কষ্ট পেলাম,সেদিনের মতো আমি চলে আসলাম তার পর থেকে প্রতিদিন যেতাম নদীর পাড়ে, যদি কখনো তার দেখা পাই। note :পরে আমার বন্ধুর কাছ থেকে জানতে পারলাম, তাদের গ্রামের শিউলী নামে কোনো মেয়ে নেই তবে অনেক আগে ঐ নদীর পাড়ে শিউলী নামে একটি মেয়ে নদীতে ডুবে মারা গেছে তাদের পাশের গ্রামের।কি কারণে সেটা সঠিক ভাবে কেউ জানে না তবে মেয়েটির বাবা মা মারা যাওয়ার পর সে অত্যহত্যা করেছিল।


এডিট ডিলিট প্রিন্ট করুন  অভিযোগ করুন     

গল্পটি পড়েছেন ৫২৩ জন


এ জাতীয় গল্প

→ স্মৃতি
→ পুরানো ঈদের রাতগুলো, স্মৃতির পাতায় রয়েই গেল।
→ ♦ছোট বেলার ঈদস্মৃতি♦
→ প্রিয়জনের স্মৃতি
→ স্মৃতির শৈশব।
→ ছোটবেলার স্মৃতি
→ ছোটবেলার স্মৃতি
→ সেই দিনগুলো স্মৃতি হয়ে থাকবে
→ ক্রিকেটের স্মৃতি
→ মেজোভাইয়ের স্মৃতি ২

গল্পটির রেটিং দিনঃ-

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করুন

গল্পটির বিষয়ে মন্তব্য করতে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করুন ... ধন্যবাদ...